০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`
বিশ্ব শিক্ষক দিবসে বিভিন্ন কর্মসূচি

শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণসহ যৌক্তিক দাবি আদায়ে সোচ্চার বিভিন্ন সংগঠন

-

যথাযোগ্য মর্যাদা ও বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে বিশ্ব শিক্ষক দিবস। গতকাল ৫ অক্টোবর ছিল বিশ্ব শিক্ষক দিবস। দিবসটিতে শিক্ষকদের বিভিন্ন সংগঠন ভিন্ন ভিন্ন কর্মসূচিও পালন করেছে। শিক্ষক সংগঠনগুলোর কর্মসূচি থেকে শিক্ষকদের মর্যাদা রক্ষা, তাদের ন্যায্য ও যৌক্তিক দাবি জানানো হয়েছে। একই সাথে এটাও বলা হয়েছে যে, শিক্ষার মান উন্নয়নে শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণের কোনো বিকল্প নেই। শিক্ষার গুণগত মান উন্নয়নে বৈষম্যহীন শিক্ষাব্যবস্থা গড়ে তোলারও প্রত্যয় ব্যক্ত করেছে বিভিন্ন শিক্ষক সংগঠন। উল্লেখ্য, ১৯৯৪ সাল থেকে জাতিসঙ্ঘের অঙ্গ সংস্থা ইউনেস্কোর উদ্যোগে প্রতি বছর ৫ অক্টোবর এ দিবসটি উদযাপিত হয়। এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘শিক্ষার রূপান্তর শুরু হয় শিক্ষকদের দিয়ে’।


বাকশিস ও বিপিসি’র আলোচনা সভা
শিক্ষক দিবসে গতকাল বুধবার রাজধানীর মিরপুরে প্রধান কার্যালয়ে বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতি (বাকশিস) সভাপতি অধ্যক্ষ ইসহাক হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়েছে আলোচনা সভা। এতে প্রধান আলোচক ছিলেন বাংলাদেশ অধ্যক্ষ পরিষদের সভাপতি প্রফেসর মোহাম্মদ মাজহারুল হান্নান।
তিনি সরকারিভাবে বিশ্ব শিক্ষক দিবস উদযাপন এবং ইউনেস্কো, আইএলও শিক্ষক সনদ ১৯৬৬-এর বাস্তবায়নের দাবি জানান। তিনি আরো বলেন, সুষ্ঠু পরিকল্পনার মাধ্যমে পর্যায়ক্রমে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে জাতীয়করণ করতে হবে। সভায় আরো বক্তব্য রাখেন- অধ্যক্ষ রহিমা খন্দকার, অধ্যক্ষ মুজিবুর রহমান হাওলাদার, ড. এ কে এম আব্দুল্লাহ, অধ্যাপক ইলিম মোহাম্মদ নাজমুল হোসেন, অধ্যাপক সৈয়দ মুহাম্মদ ইউসুফ, অধ্যক্ষ তোফাজ্জল হোসেন, অধ্যক্ষ রাফিকা আফরোজ, অধ্যক্ষ বাহার উদ্দিন, অধ্যক্ষ হোসনে জাহান, অধ্যাপক জহির উদ্দিন আজম, অধ্যাপক জাহাঙ্গীর কবির প্রমুখ।
অপর দিকে একই প্রতিপাদ্য বিষয়ে আলোচনা সভার আয়োজন করে বাংলাদেশ অধ্যক্ষ পরিষদ (বিপিসি)। সভায় শিক্ষার গুণগত মান উন্নয়নে বৈষম্যহীন শিক্ষাব্যবস্থার লক্ষ্যে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের বিকল্প নেই বলে মনে করেন বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতি (বাকশিস) ও বাংলাদেশ অধ্যক্ষ পরিষদ (বিপিসি) নেতৃবৃন্দ।


বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারী ফোরাম
জাতীয় প্রেস ক্লাবে আলোচনা সভার আয়োজন করে বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারী ফোরাম। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম। বিশেষ অতিথি ছিলেন- কুষ্টিয়া-১ আসনের এমপি আ কা ম সরওয়ার জাহান বাদশাহ, সিরাজগঞ্জ-৩ আসনের এমপি ডা: মো: আব্দুল আজিজ। ফোরামের সভাপতি মো: সাইদুল হাসান সেলিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন মহাসচিব মো: আব্দুল খালেক। অনুষ্ঠানে শিক্ষক নেতারা শিক্ষাব্যবস্থা সরকারিকরণের দাবি জানান। তারা বলেন, শিক্ষাক্ষেত্রের সব সমস্যা সমাধানের একমাত্র উপায় এমপিওভুক্ত শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণ।


আদর্শ শিক্ষক ফেডারেশন
যথাযথ মর্যাদায় বিশ্ব শিক্ষক দিবস পালন করেছে বাংলাদেশ আদর্শ শিক্ষকের অধিভুক্ত ৯টি শিক্ষক পরিষদের মহানগর, জেলা ও উপজেলা/থানা সংগঠন। একই সাথে এসব সংগঠন গত ৩ অক্টোবর থেকে আগামী ১০ অক্টোবর পর্যন্ত ধারাবাহিকভাবেও বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের উদ্যোগ নিয়েছে।
ফেডারেশনের সভাপতি প্রফেসর ড. এম কোরবান আলী এবং জেনারেল সেক্রেটারি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সিনেট সদস্য অধ্যাপক এ বি এম ফজলুল করীম এক বিবৃতিতে শিক্ষকদের মর্যাদা রক্ষা ও শিক্ষকদের যৌক্তিক দাবিদাওয়া পূরণে সরকারিভাবে শিক্ষক দিবসকে যথাযথ মর্যাদার সাথে পালনের জন্য সরকার ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কাছে জোর দাবি জানান।


স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ
দিবসটি উপলক্ষে গতকাল বুধবার রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের সেমিনার কক্ষে স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের (স্বাশিপ) উদ্যোগে ‘বঙ্গবন্ধুর দৃষ্টিতে শিক্ষকদের মর্যাদা’ শীর্ষক সেমিনারের আয়োজন করে। এ ছাড়া বাংলাদেশ বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারী ফোরাম ‘বঙ্গবন্ধুর শিক্ষা দর্শন ও মুজিববর্ষে এমপিওভুক্ত শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণ’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান ও র্যালির আয়োজন করে।
জানা যায়, ১৯৬৬ সালের ৫ অক্টোবর ফ্রান্সের প্যারিসে শিক্ষকদের অবস্থা নিয়ে একটি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। সেখানেই শিক্ষকদের কথা চিন্তা করে ইউনেস্কো ও আন্তর্জাতিক শ্রম সংগঠন (আইএলও) কিছু সুপারিশমালায় সই করে। এ পরামর্শ বা সুপারিশমালায় শিক্ষাকর্ম নীতি, শিক্ষকদের নিয়োগ, প্রাথমিক প্রশিক্ষণ, কর্মসংস্থান ও কাজের অবস্থার সাথে সম্পর্কিত মানদণ্ডের রূপরেখার উল্লেখ ছিল।
এরপর ১৯৯৪ সালে ইউনেস্কোর ২৬তম অধিবেশনে গৃহীত সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে ইউনেস্কো মহাপরিচালক ড. ফ্রেডারিক এম মেয়রের ঘোষণায় ৫ অক্টোবর বিশ্বব্যাপী শিক্ষক দিবস পালনের সূচনা হয়। বিশ্ব শিক্ষক দিবস উদযাপনের জন্য ইউনেস্কো ও এডুকেশন ইন্টারন্যাশনাল (ইআই) প্রতি বছর একটি প্রচারাভিযান চালায়, যেন বিশ্বকে শিক্ষকদের সম্বন্ধে আরো ভালোভাবে বোঝানো যায় এবং ছাত্র ও সমাজের উন্নয়নে তারা যে ভূমিকা পালন করে তা মানুষের সামনে তুলে ধরা যায়।
পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে পৃথক পৃথক তারিখে দিবসটি পালিত হয়। বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, আর্মেনিয়া, আজারবাইজান, ক্যামেরুন, কানাডা, ক্রোয়েশিয়া, এস্টোনিয়া, জর্জিয়া, জার্মানি, কুয়েত, মালদ্বীপ, মরিশাস, মালডোভা, মঙ্গোলিয়া, মিয়ানমার, নেদারল্যান্ডস, নাইজেরিয়া, ফিলিপাইন, পর্তুগাল, কাতার, রোমানিয়া, রাশিয়া ও সৌদি আরবে ৫ অক্টোবর দিবসটি পালন করা হয়।

 


আরো সংবাদ


premium cement
জীবননগরে নাশকতার মামলায় বিএনপির ৭ নেতাকর্মী গ্রেফতার সরকার বিকল্প প্রস্তাব না দিলে নয়াপল্টনেই সমাবেশ : মির্জা আব্বাস এনামুলের পর লিটনের বিদায়, পাওয়ার প্লেতে সংগ্রহ ৪৪ হাবিব উন নবী সোহেলসহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা রাশিয়ার বিমানঘাঁটিতে ইউক্রেনের ড্রোন হামলা দিনাজপুরে পৃথক দুর্ঘটনায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত শাহপরীর দ্বীপ সড়ক উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী ইন্টারন্যাশনাল ফ্লিট রিভিউ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী বিশ্বব্যাপী করোনায় আক্রান্ত-মৃত্যুহার বেড়েছে কর জালিয়াতির মামলায় ট্রাম্প অর্গানাইজেশন দোষী সাব্যস্ত সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

সকল