০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ন ১৪২৯, ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

ইউক্রেনে আরো হিমার্স ব্যবস্থা পাঠাবে যুক্তরাষ্ট্র

-

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভাদিমির পুতিন যখন সেনা সমাবেশের ঘোষণা দিয়ে ইউক্রেনে যুদ্ধের জন্য আরো তিন লাখ সেনা সংগ্রহ করছেন তখন যুক্তরাষ্ট্র ঘোষণা দিয়েছে ইউক্রেনকে দেয়া অস্ত্র সহযোগিতা বাড়ানো হবে। বুধবার মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতর ইউক্রেনের জন্য ১১০ কোটি ডলার মূল্যের নিরাপত্তা সহযোগিতা ঘোষণা করেছে। এই প্যাকেজের মধ্যে থাকবে যুক্তরাষ্ট্রের নির্মিত ১৮টি হাই মোবিলিটি আর্টিলারি রকেট সিস্টেমস (হিমার্স) ক্ষেপণাস্ত্র কেনার জন্য তহবিল। ইতোমধ্যে ইউক্রেনকে ১৬টি হিমার্স ব্যবস্থা সরবরাহ করা হয়েছে। নিউজউইক, ইভিনিং স্ট্যান্ডার্ড, সিএনএন।
ইউক্রেন আরো ১৮টি হিমার্স ব্যবস্থা পাওয়ার পর দেশটির কাছে এমন অস্ত্রের সংখ্যা দাঁড়াবে ৩৪টি। রাশিয়ার বিরুদ্ধে চলমান লড়াইয়ে এই অস্ত্র ইতোমধ্যে ‘গেম চেঞ্জার’ হয়ে উঠেছে। ধারণা করা হচ্ছে, রাশিয়া এখন পর্যন্ত ইউক্রেনের কোনো হিমার্স ব্যবস্থা ধ্বংস করতে পারেনি, সবগুলোই রণক্ষেত্রে সক্রিয় আছে। দুই মাসের কিছু বেশি আগে ইউক্রেনকে প্রথম হিমার্স ব্যবস্থা সরবরাহ করার ঘোষণা দেয়া হয়। ওই সময় চারটি হিমার্স পেয়েছিল কিয়েভ। ইউক্রেন নিরাপত্তা সহযোগিতা উদ্যোগের আওতায় হওয়ার কারণে শিগগিরই নতুন ১৮টি হিমার্স পাবে না কিয়েভ। কিছু সময় লাগতে পারে। প্রেসিডেন্সিয়াল ড্রডাউন অথরিটির (পিডিএ) আওতায় হলে ঘোষণার পরপর হিমার্স পেয়ে যেত ইউক্রেন। মার্কিন বার্তা সংস্থা এপি জানিয়েছে, নতুন ১৮টি হিমার্স পেতে প্রায় এক বছর সময় লাগতে পারে।
দুই লাখ রাশিয়ান দেশ ছেড়েছে : প্রেসিডেন্ট ভাদিমির পুতিন নতুন করে সেনা সমাবেশের ঘোষণার মাত্র সাত দিনে ১ লাখ ৭০ হাজারের বেশি নাগরিক রাশিয়া ছেড়ে পালিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। গতকাল বৃহস্পতিবার এমনটাই জানিয়েছেন ব্রিটেনের প্রতিরক্ষা প্রধান। ‘মাতৃভূমি রক্ষায়’ গত বুধবার আংশিক সেনা সমাবেশের নির্দেশ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট পুতিন। তার এই নির্দেশের বাস্তবায়ন সে দিন থেকেই কার্যকর হয়েছে বলে জানা গেছে। সবশেষ গোয়েন্দা তথ্য অনুযায়ী লন্ডনে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, যারা রাশিয়া ছাড়ছে তাদের মধ্যে শিক্ষিত মানুষের সংখ্যা বেশি।
অবিলম্বে রাশিয়া ছাড়ার নির্দেশ : এদিকে মার্কিন নাগরিকদের আবারো অবিলম্বে রাশিয়া ছাড়ার আহ্বান জানিয়ে নিরাপত্তা সতর্কতা জারি করেছে মস্কোয় যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস। এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, দেশ ছাড়ার এখনো সময় আছে। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভাদিমির পুতিন ইউক্রেনে যুদ্ধের জন্য নতুন করে আংশিক সেনা সমাবেশের ঘোষণার মধ্যেই এমন বার্তা দিলো যুক্তরাষ্ট্র।
সতর্কবার্তায় উল্লেখ করা হয়, মার্কিনিদের দ্বৈত নাগরিকতার বিষয়টি রাশিয়া অস্বীকার করতে পারে। যেসব আমেরিকানদের দ্বৈত নাগরিকতা রয়েছে তাদের মার্কিন কনস্যুলার সহায়তা নাও করতে পারে। পাশাপাশি রাশিয়া থেকে তাদের বাইরে যেতে বাধা দেয়া হতে পারে। এমনকি রুশ সামরিক বাহিনীতে দ্বৈত নাগরিকদের নিয়োগ দিতে পারে মস্কো। মার্কিনিদের রাশিয়ায় ভ্রমণ না করতে বার বার আহ্বান জানিয়ে আসছে দূতাবাস। দেশটিতে থাকা নাগরিকদের অবিলম্বে চলে যাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।


আরো সংবাদ


premium cement