২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯, ২ রবিউল আওয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

সহযোগিতা না করে উৎখাতে নেমেছে বিএনপি : কাদের

জনপ্রিয় অনেক সরকারকে ফেলে দেয়া হয়েছে : পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী
-

সারা বিশ্বের অর্থনৈতিক সঙ্কটে বিভিন্ন দেশের বিরোধী দল ও সরকার মিলে সঙ্কট উত্তরণে কাজ করলেও বিএনপি মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে উল্টো পথে হাঁটছে বলে মনে করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, বিএনপি সরকার পতনের ষড়যন্ত্র করছে। পৃথিবীর বহু দেশ আজকে সমস্যায় জর্জরিত। আর এটাকে কেন্দ্র করে ফ্রান্স, আমেরিকা, যুক্তরাজ্যের বিরোধী দল সরকার উৎখাতে নামেনি। জার্মানি, জাপানের বিরোধী দল প্রতিবাদ করেনি, বিক্ষোভ মিছিল করেনি। আমাদের প্রশ্ন সেখানে, সহযোগিতা চেয়েছিলাম আমরা। দুনিয়াজুড়ে সঙ্কটে বিরোধী দলগুলো সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে, আর বাংলাদেশে তারা সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্র করছে।
গতকাল শনিবার আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মহিলা শ্রমিক লীগ আয়োজিত ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, সারা বিশ্বে সঙ্কটে একটা নেতিবাচক প্রভাব আজকে বাংলাদেশ মোকাবেলা করছে। আমরা জানি অনেক মানুষের কষ্ট হচ্ছে। সারা দুনিয়ায় যেভাবে জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে তাতে কিন্তু আমাদের সামনে কোনো উপায় ছিল না। এ সময় পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের তুলনামূলক মূল্যবৃদ্ধির চিত্র তুলে ধরে তিনি বলেন, আমেরিকা, যুক্তরাজ্য, জার্মানি, ফ্রান্স, আমাদের প্রতিবেশী দেশ শ্রীলঙ্কা পাকিস্তান কেউ তো আজ আরামে নেই। চেষ্টার কোনো ত্রুটি নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আন্তরিকভাবে তিনি আপনাদের এই সঙ্কট উত্তরণের জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছেন।


আওয়ামী লীগ সরকার কোনো বিদেশী শক্তির কাছে মাথা নত করে না- এ কথা উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি এতদিন বলত আওয়ামী লীগ আমাদের মিছিল মিটিং করতে দিচ্ছে না। এখন নেত্রী বলেছে ওরা করুক। যখন মিছিল মিটিং করতে পারছে তাদের সাহসের ডানা বিস্তারিত হচ্ছে। এখন তারা বলে বিদেশী শক্তির চাপে পুলিশ বাধা দিচ্ছে না। তাহলে এখন স্বীকার করলেন যে, পুলিশ বাধা দিচ্ছে না। তিনি আরো বলেন, বিদেশী শক্তির চাপে মাথা নত করার মতো মানুষ বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা নয়। মনে রাখবেন, কোনো শক্তির কাছে আমরা মাথা নত করি না। আগুন নিয়ে খেলবেন না বলে দিচ্ছি, সতর্ক করে দিচ্ছি। শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে আপনাদের কেউ বাধা দিচ্ছে না। কিন্তু আগুন সন্ত্রাস নিয়ে যদি নামতে চান তাহলে সমুচিত জবাব দেয়া হবে। এ সময় সঙ্কটে নেতাকর্মী ও দায়িত্বশীলদেরও কথাবার্তায় সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।
মহিলা শ্রমিক লীগের সভাপতি সুরাইয়া আক্তারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, শ্রম ও জনশক্তি বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, মহিলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী রহিমা আক্তার সাথী, কার্যকরি সভাপতি সামসুন্নাহার প্রমুখ বক্তব্য দেন।


বহু দেশেই জনপ্রিয় অনেক সরকারকে ফেলে দেয়া হয়েছে : পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম বলেছেন, কেবল ব্যবসা বাণিজ্যের প্রসার ঘটলেই হবে না। একটা দেশের সামাজিক পুঁজি ও প্রতিষ্ঠান যত শক্তিশালী হয় সে দেশের সামাজিক পরিবর্তন তত দ্রুত হয়। সামাজিক প্রতিষ্ঠান দূর্বল হওয়ায় বহু দেশেই জনপ্রিয় অনেক সরকারকেই ফেলে দেয়া হয়েছে। এ জন্য মূল্যবোধ, দৃষ্টিভঙ্গি ও আধুনিক চিন্তাচেতনায় উদ্বুদ্ধ করার জন্য সামাজিক পরিবর্তন খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে গতকাল ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) আয়োজিত হেলথ ক্যাম্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। ডিআরইউর এ আয়োজনে সহযোগিতা করেছে ইনসাফ বারাকা কিডনি অ্যান্ড জেনারেল হাসপাতাল।
ডিআরইউ সভাপতি নজরুল ইসলাম মিঠুর সভাপতিত্বে ও কল্যাণ সম্পাদক কামরুজ্জামান বাবলুর সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তৃতা করেন, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক নূরুল ইসলাম হাসিব। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন ইনসাফ বারাকা হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক লায়ন অধ্যাপক ডা: এম ফখরুল ইসলাম।
ক্যাম্পে আগত সদস্যদের ডায়াবেটিস ও কিডনি সম্পর্কিত “আরবিএস, সিরাম ক্রিয়েটিনিন” পরীক্ষা বিনামূল্যে করা হয়। এ ছাড়া ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সদস্য ও পরিবারের জন্য ইনসাফ বারাকাহ হাসপাতালের সাথে স্বাস্থ্যসেবা (করপোরেট) চুক্তি হয়। এ দিকে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে হাসপাতালে এক হাজার টাকার প্যাকেজে ছয়টি পরীক্ষা (আল্ট্রাসনোগ্রাফি, সিবিসি, ইউরি-আরই, সিরাম ক্রিয়েটিনিন, আরবিএস ও ইসিজি) হেলথ চেক-আপের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এ ছাড়াও চুক্তির আলোকে ডিআরইউ সদস্যদের জন্য সারা বছর পরীক্ষা-নিরীক্ষায় ৫০ শতাংশ ডিসকাউন্টের সুবিধা থাকবে।

 

 


আরো সংবাদ


premium cement