১৩ আগস্ট ২০২২
`
শান রাজ্যে সংঘর্ষে ৪০ সেনা ও পিপলস ডিফেন্স ফোর্সের ১১ সদস্য নিহত

মিয়ানমারে বাড়ছে সংঘর্ষের তীব্রতা বাস্তুচ্যুত ৫ হাজার

-

মিয়ানমারের বিভিন্ন রাজ্য ও অঞ্চলে সেনাবাহিনী ও প্রতিরোধ যোদ্ধাদের মধ্যে সংঘর্ষ তীব্রতর হয়েছে। সোমবার শান রাজ্যের পেখন টাউনশিপে এক সংঘর্ষে জান্তা বাহিনীর ৪০ সদস্য এবং পিপলস ডিফেন্স ফোর্সের ১১ সদস্য নিহত হয়েছে। প্রতিরোধ যোদ্ধারা সেনা আউটপোস্টে হামলা চালালে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে। তা ছাড়া মে ও জুন মাসে চিন ন্যাশনাল ডিফেন্স ফোর্সের সাথে সংঘর্ষে চিন রাজ্যে ৬৬ জন জান্তা সেনা নিহত হয়েছে। ইরাবতি।
চিন রাজ্যের ফালাম ও সাগায়িং অঞ্চলের কালে টাউনশিপে জান্তা সেনা ও প্রতিরোধ যোদ্ধাদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে ১১ বার। এ সময়ে প্রতিরোধ যোদ্ধাদের তিনজন নিহত হয়েছে। তার মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষে একজন, দু’জন মাইন বিস্ফোরণে নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে চারজন। জান্তা সেনাদের বিমান হামলায় শুধু সাগায়িং অঞ্চলের তাবাইন টাউনশিপের ১০টি গ্রাম থেকে প্রায় পাঁচ হাজার বাসিন্দা বাস্তুচ্যুত হয়েছে। সোমবার বিকেলে তিনটি হেলিকপ্টারে করে ৫০ জন জান্তা সেনা গ্রামগুলোতে আসে এবং বাসিন্দাদের বাড়িঘর ছাড়তে বাধ্য করে। বাস্তুচ্যুত বাসিন্দাদের সহায়তাকারী একজন স্বেচ্ছাসেবক মঙ্গলবার বলেছেন, ‘পুরো রাত্রি বৃষ্টি থাকায় বাসিন্দাদের জন্য যাতায়াতটা সুবিধাজনক ছিল না। অস্থায়ী ক্যাম্পগুলো লোকে লোকারণ্য হয়ে পড়ে। মধ্যরাত পর্যন্ত লোকজন বাড়িঘর ছাড়তে থাকে। নিজেদের গাড়ি, মোটরবাইক এবং মোটরচালিত গাড়ির বহর তৈরি হয়ে যায় রাস্তাজুড়ে। রাস্তায় যে সমস্যা তৈরি হয়েছে, তা বলার মতো নয়।’ মঙ্গলবার কাইয়ুনতোলে এবং ইনপিন নামে একটি গ্রামের আকাশে ধোঁয়া উড়তে দেখা যায়। একজন বাসিন্দা বলেছেন, জান্তা বাহিনী কয়টি গ্রামে আগুন দিয়েছে তা স্পষ্ট নয়। তবে কেউ বাড়ি ফিরতে পারছেন না।


আরো সংবাদ


premium cement