০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ৪ জিলহজ ১৪৪৩
`

তৃণমূলের দিকে নজর আওয়ামী লীগের

লক্ষ্য দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন
-

আওয়ামী লীগের তৃণমূল বেশ কয়েকটি ধারা-উপধারায় বিভক্ত হয়ে পড়েছে। এদের মধ্যে দু’টি ধারা বেশ সক্রিয় থেকে বিপরীত মেরুতে অবস্থান করছে। প্রথমত এমপি বলয়, দ্বিতীয়ত দলীয় বলয়। দলীয় বলয়ের মধ্যেও আবার প্রভাবশালী নেতারা বিভিন্ন উপধারায় বিভক্ত রয়েছেন। তৃণমূলের এসব ধারা-উপধারাকে একত্র করে ঐক্যবদ্ধের কাতারে আনার উদ্যোগ নিয়েছে দলটি। আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে টার্গেট করেই মূলত তৃণমূলের দিকে নজর দিয়েছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। জানা গেছে, বৈশ্বিক মহামারী করোনা পরিস্থিতির কারণে দলটির সাংগঠনিক কার্যক্রম অনেকটা ঢিমেতালে চলছিল। পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় বিভাগীয় সাংগঠনিক টিমগুলো বেশ তৎপর হয়ে উঠেছে। পুরোদমে শুরু হয়েছে সাংগঠনিক সফর, জেলার বর্ধিত সভা ও ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের কাজ। আবার বিভাগীয় টিমগুলো তৃণমূল নেতাদের কেন্দ্রে ডেকে মতবিনিময় সভা করেও খোঁজখবর নিচ্ছেন।

জানা গেছে, সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ২০২৩ সালের শেষ দিকে কিংবা ২০২৪ সালের প্রথম দিকে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে এ বছরের শেষের দিকে অনুষ্ঠিত হবে দলের ২২তম জাতীয় কাউন্সিল। তবে আগামী জাতীয় নির্বাচনের আগেই তৃণমূলকে মজবুত ভিতের ওপর দাঁড় করাতে চাচ্ছেন দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা। এ মাসের শুরুর দিকে অনুষ্ঠিত দলটির কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকেও তৃণমূলকে ঢেলে সাজিয়ে শক্তিশালী করা এবং জোরালোভাবে নির্বাচনী প্রস্তুতি নেয়ার জন্য তাগিদ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ প্রধান। নেতাদের মতে, নির্বাচনের আগেভাগেই অভ্যন্তরীণ বিরোধ মিটিয়ে তৃণমূলের চালিকাশক্তি যোগ্য ও ত্যাগী নেতাদের হাত দিয়ে একটি শক্তিশালী টিম চান দলীয় প্রধান। ওই টিম মূলত আগামী নির্বাচনে দলের পক্ষে জোরালোভাবে কাজ করবে এবং দলকে জিতিয়ে আনতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

এজন্য দুঃসময়ে যারা দলকে আঁকড়ে ধরে রেখেছে তাদের মূল্যায়ন করার নির্দেশনা দিয়েছেন দলীয় প্রধান। দলে কোনোভাবেই বিতর্কিতদের জায়গা দেয়া যাবে না। এছাড়া আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিতর্কিত এমপিদের মনোনয়ন থেকে বাদ দেয়ার চিন্তা রয়েছে। বিশেষ করে বয়সজনিত কারণে যারা অসুস্থ ও নিষ্ক্রিয়, ওইসব দলীয় এমপিদের জায়গায় নতুনদের বিষয়ে আগ্রহ রয়েছে নেত্রীর।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটির সম্মেলন, জেলা কমিটির বর্ধিত সভা, জেলা ও উপজেলায় সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটি গঠন করার ব্যাপারে দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা ব্যাপক পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছেন। এরই মধ্যে জামালপুরের কয়েকটি থানা ও উপজেলা, নওগাঁর রানীনগর, পোরশা, নিয়ামতপুর ও আত্রাই উপজেলা, জয়পুরহাটের কয়েকটি থানা ও উপজেলার সম্মেলন ও পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়েছে। সম্প্রতি বরিশাল ও খুলনা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা জেলা ও মহানগর নেতাদের সাথে বৈঠক করে তৃণমূল গোছানোর তাগিদ দিয়েছেন। এর আগে নওগাঁ সদর উপজেলা, রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলা, সিরাজগঞ্জের কাজিপুর, শেরপুর সদর উপজেলা, ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলা, নেত্রকোনা সদর উপজেলা, বগুড়া নন্দীগ্রাম ও শাজাহানপুর উপজেলা আওয়ামী লীগসহ অনেকগুলো উপজেলার ত্রিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত বছরের অক্টোবরেও বেশকিছু উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। আগামী ১১ জুন ভোলা জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়াও গতকাল আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলের বিদ্রোহী প্রার্থীদের নিয়ে বৈঠক করেন দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম। বৈঠকে স্থানীয় নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে নৌকার পক্ষে মাঠে নামার জন্য বিভিন্ন দিকনির্দেশনা দেন তিনি।

তৃণমূল ঢেলে সাজানো প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম নয়া দিগন্তকে বলেন, আমাদের সামনে রয়েছে জাতীয় সংসদ নির্বাচন ও দলের সম্মেলন। দুটো বিষয়কে সামনে রেখে আমরা সাংগঠনিকভাবে কাজ শুরু করেছি। আমাদের সভাপতি জননেত্রী শেখ হাসিনা জেলা, উপজেলা, ইউনিয়নকে ঢেলে সাজানোর জন্য যে নির্দেশনা দিয়েছেন সেই আলোকে আমরা অনেকগুলো গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছি। জাতীয় সম্মেলনের আগে যেখানে যেখানে সম্মেলন বাকি আছে সেগুলো সম্পন্ন করার জন্য কাজ করছি। এক প্রশ্নের জবাবে বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, তৃণমূলে যে সমস্যা রয়েছে আশা করি সম্মেলনের মধ্য দিয়ে তা কমিয়ে আনতে পারব। সম্মেলনের মাধ্যমে তৃণমূলকে আরো শক্তিশালী করা হবে।

তৃণমূল ঢেলে সাজানোর ব্যাপারে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর অন্যতম সদস্য লে. কর্নেল (অব:) মুহাম্মদ ফারুক খান সম্প্রতি নয়া দিগন্তকে বলেন, দীর্ঘ দিন ধরে বৈশ্বিক মহামারী করোনায় আমরা কোনো সাংগঠনিক কাজ করতে পারিনি। আমাদের নেত্রী নতুন করে আগামী জাতীয় নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিতে এবং তৃণমূলকে শক্তিশালী করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। আমরা সেই নির্দেশনার আলোকে কাজ শুরু করেছি। তিনি আরো বলেন, দায়িত্বপ্রাপ্ত যারা আছেন তারা তৃণমূলে সবসময় খোঁজখবর নিচ্ছেন। প্রতিটি পর্যায়ে সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটি গঠন করা হবে। একই সাথে আগামী নির্বাচনের জন্যও প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।


আরো সংবাদ


premium cement