২১ জানুয়ারি ২০২২, ০৭ মাঘ ১৪২৮, ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩
`
শিক্ষকের মৃত্যু নিয়ে উত্তেজনা

কুয়েট ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা

কুয়েট বন্ধ ঘোষণায় শিক্ষার্থীরা হল ত্যাগ করছেন: স্টার মেইল -

খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) অধ্যাপক ড. মো: সেলিম হোসেনের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত ভার্সিটি বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডেকেটের এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিকেল ৪টার মধ্যে শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগের নির্দেশ দেয়া হয়। গতকাল দুপুরে ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী আনিসুর রহমান ভূঁইয়া স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কুয়েটের সিন্ডিকেটের ৭৬তম জরুরি সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. সেলিম হোসেন অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনা সুষ্ঠু তদন্তের জন্য ও বিশ্ববিদ্যালয়ে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ার আশঙ্কায় ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হলো।
অধ্যাপক ড. সেলিমের মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে কুয়েট ক্যাম্পাস উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। শিক্ষার্থীরা ও শিক্ষক সমিতি আন্দোলন শুরু করে। গত বৃহস্পতিবার শিক্ষকরা একাডেমিক কার্যক্রম বর্জন করে ক্যাম্পাসে প্রতিবাদ সভা করেন। সভায় ড. সেলিমের ওপর কিছু ছাত্রনেতার মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ করে তাদের শাস্তি দেয়া এবং ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতি বন্ধসহ ৪ দফা দাবি তোলা হয়। শিক্ষক নেতারা বলেন, অবিলম্বে সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত অপরাধীদের বিচারের আওতায় এনে তাদেরকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা না পর্যন্ত শিক্ষকরা সব একাডেমিক কার্যক্রম বর্জন করছেন। সমিতির দাবি ড. সেলিম হোসেনের পরিবারকে প্রচলিত বিধি অনুযায়ী প্রাপ্য ন্যায্য আর্থিক সুবিধাসহ অতিরিক্ত ১ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। এ দাবিতে ভিসি, শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও ইউজিসি বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হবে।
শিক্ষক নেতারা বলেন, ৩০ নভেম্বর দুপুরে কুয়েটের অধ্যাপক ড. মো: সেলিম হোসেন মারা যান। তিনি লালন শাহ ছাত্রহলের প্রভোস্ট ছিলেন। হার্ট অ্যাটাকে তার মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু মৃত্যুর আগে তিনি ছাত্রলীগের কিছু নেতার লাঞ্ছনার শিকার হয়েছিলেন।


আরো সংবাদ


premium cement