২৩ জানুয়ারি ২০২২, ০৯ মাঘ ১৪২৮, ১৯ জমাদিউস সানি ১৪৪৩
`

তিন বছর পর এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু কাল

-

দুই বছর আট মাস পর আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। ২০১৯ সালের এপ্রিল মাসে সর্বশেষ এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এরপর ২০২০ সালে করোনার কারণে পরীক্ষা না নিয়েই দেয়া হয় অটো পাস। আর চলতি ২০২১ সালের এপ্রিলের এই পরীক্ষাও সাত মাস পিছিয়ে নেয়া হচ্ছে ডিসেম্বরে। সব মিলিয়ে পৌনে তিন বছর পর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এবারের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা।
করোনার নতুন সংক্রমণের ঝুঁকির মধ্যেই কাল থেকে সারা দেশে একযোগে শুরু হতে যাচ্ছে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। দেশের ১১টি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এবারের পরীক্ষায় ১৩ লাখ ৯৯ হাজার ৬৯০ জন অংশ নিচ্ছেন।
আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব কমিটি থেকে পাওয়া তথ্য মতে, এবার দেশের সাধারণ ৯টি শিক্ষা বোর্ডে এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছেন ১১ লাখ ৩৮ হাজার ১৭ জন। এর মধ্যে ছাত্র পাঁচ লাখ ৬৩ হাজার ১১৩ জন, ছাত্রী পাঁচ লাখ ৭৪ হাজার ৯০৪ জন। আর মাদরাসা বোর্ডের অধীনে আলিম পরীক্ষা দিচ্ছেন এক লাখ ১৩ হাজার ১৪৪ জন। এতে ছাত্র ৬১ হাজার ৭৩৮ জন, ছাত্রী ৫১ হাজার ৪০৬ জন। এ ছাড়া কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের এইচএসসি (বিএম বা ভোকেশনাল) পরীক্ষা দিচ্ছেন এক লাখ ৪৮ হাজার ৫২৯ জন। এতে ছাত্র এক লাখ চার হাজার ৮২৭ জন, ছাত্রী ৪৩ হাজার ৬৪২ জন। ইতোমধ্যে এইচএসসি পরীক্ষার জন্য ২৫ নভেম্বর থেকে ৩ জানুয়ারি পর্যন্ত সব কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
সাধারণ শিক্ষা বোর্ডগুলোর তত্ত্বীয় বিষয়ের পরীক্ষা আগামী ২ ডিসেম্বর থেকে শুরু হয়ে ৩০ ডিসেম্বর শেষ হবে। মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের তত্ত্বীয় বিষয়ের পরীক্ষা ২ ডিসেম্বর থেকে শুরু হয়ে ১৯ ডিসেম্বর শেষ হবে। আর কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের তত্ত্বীয় বিষয়ের পরীক্ষা ২ ডিসেম্বর থেকে ৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত হবে। এ বছর ১১টি শিক্ষা বোর্ডে ৯ হাজার ১৮৩টি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা দুই হাজার ৬২১টি কেন্দ্রে পরীক্ষা দেবেন। গতবারের তুলনায় পরীক্ষার্থী বেড়েছে ৩৩ হাজার ৮৭৫ জন। প্রতিষ্ঠান বেড়েছে ১২০টি এবং কেন্দ্র বেড়েছে ২০টি। বিদেশের আটটি কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী ৪০৬ জন। এর মধ্যে জেদ্দায় ১১৪, রিয়াদে ৭৪, ত্রিপোলিতে ২, দোহায় ৭৯, আবুধাবিতে ৩৪, দুবাইয়ে ২৬, বাহরাইনে ৫৮ এবং ওমানের সাহামে ১৯ জন রয়েছেন।
শিক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে যাই বলা থাকুক, শিক্ষা বোর্ডের নম্বর ও সময় বিভাজন নির্দেশিকা অনুযায়ী প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। এইচএসসি পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের প্রতিটি বিষয়ের তত্ত্বীয় অংশে আটটি প্রশ্ন থাকবে, যার মধ্য থেকে দুইটি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। তত্ত্বীয় পরীক্ষার সময় ১ ঘণ্টা ১৫ মিনিট। আর এ বিভাগের পরীক্ষার্থীদের নৈর্ব্যক্তিক অংশে ২৫টি প্রশ্ন থেকে ১২টির উত্তর দিতে হবে। সময় ১৫ মিনিট। আর মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের প্রতিটি বিষয়ের তত্ত্বীয় অংশে ১১টি প্রশ্ন থাকবে, যার মধ্য থেকে তিনটি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। তত্ত্বীয় পরীক্ষার সময় ১ ঘণ্টা ১৫ মিনিট। আর এ বিভাগের পরীক্ষার্থীদের নৈর্ব্যক্তিক অংশে ৩০টি প্রশ্ন থেকে ১৫টির উত্তর দিতে হবে। পরীক্ষা শুরুর আগে কক্ষ প্রত্যাবেক্ষক বিষয়টি উচ্চৈস্বরে পরীক্ষার্থীদের জানাবেন।
শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এই পরীক্ষা সংশ্লিষ্টদের জন্য বেশকিছু নির্দেশনা জারি করা হয়। এসব নির্দেশনার মধ্যে রয়েছে, কোভিড-১৯ অতিমারীর কারণে শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও পরীক্ষাসংশ্লিষ্ট সবাইকে যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে পরীক্ষা অনুষ্ঠান নিশ্চিত করতে হবে। এ জন্য একজনের বেশি অভিভাবক পরীক্ষার্থীর সাথে আসতে পারবেন না। এ ছাড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর থেকে গত ৫ সেপ্টেম্বর জারিকৃত গাইডলাইনের নির্দেশনা প্রতিপালন করতে হবে।
নির্দেশনায় আরো বলা হয়, পরীক্ষা শুরুর কমপক্ষে ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষার্থীদের অবশ্যই পরীক্ষাকেন্দ্রে ঢুকে আসন গ্রহণ করতে হবে। অনিবার্য কারণে কোনো পরীক্ষার্থী নির্ধারিত সময়ের পর পরীক্ষাকেন্দ্রে এলে রেজিস্টারে নাম, রোল নম্বর, প্রবেশের সময় ও দেরির কারণ উল্লেখ করতে হবে। দেরিতে আসা পরীক্ষার্থীদের তালিকা প্রতিদিন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানাতে হবে।


আরো সংবাদ


premium cement