০৮ মে ২০২১
`

প্রতিদিনই করোনায় মৃত্যুর রেকর্ড

২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ১১২ আক্রান্ত ৪,২৭১
-

চলমান লকডাউনের মধ্যে করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যু হলো গতকাল সোমবার। সামনের দিনগুলোতে মৃত্যু আরো বৃদ্ধির আশঙ্কা করছেন চিকিৎসকরা। এ দিকে আবার কয়েক দিনের চেয়ে নমুনা পরীক্ষা কিছুটা বেড়েছে গতকাল। গত রোববার সকাল ৮টার পর থেকে গতকাল সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত দেশব্যাপী ২৪ হাজার ১৫২টি নমুনা পরীক্ষা করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৪ হাজার ২৭১ জনের এবং মারা গেছেন ১১২ জন। আক্রান্ত রোগীদের করোনা শনাক্ত হতেই কয়েক দিন লেগে যাচ্ছে। আইইডিসিআর তাদের একটি গবেষণা উদ্ধৃত করেছে বলে, করোনাভাইরাসে আক্রান্তরা আগের চেয়ে দ্রুত মারা যাচ্ছে। আক্রান্তদের একটি অংশ দ্রুত অসুস্থ হচ্ছে এবং হাসপাতালে ভর্তি হতে হচ্ছে। এসব কারণে সামনের দিনগুলোতে আরো বেশি হারে মৃত্যুর আশঙ্কা করছেন চিকিৎসকরা। একই সাথে তারা বলছেন, টিকা নেয়ার সুযোগ থাকলে যত দ্রুত সম্ভব টিকা নিয়ে নিন। বাংলাদেশে যে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা দেয়া হচ্ছে এর দুই ডোজ নেয়া হলেও যদি কাউকে করোনায় আক্রান্ত করে তা হলে তাকে হাসপাতালে হয়তো যেতে হতে পারে কিন্তু বেশিদিন থাকতে হবে না। তার আইসিইউ সেবাও লাগবে না বলে অক্সফোর্ডের গবেষকরা দাবি করেছেন। সে কারণে সুযোগ পেলে নিয়ে নেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা।
করোনা ইউনিটে দায়িত্ব পালনরত চিকিৎসকরাও বলছেন, এখনকার বয়স্ক করোনা রোগীদের ৩০ থেকে ৬০ শতাংশ ফুসফুস ক্ষতি নিয়েই হাসপাতালে ভর্তি। এ কারণে শুরু থেকেই এসব রোগীর হাইফ্লো অক্সিজেন সেবা ছাড়াও আইসিইউ সেবারও প্রয়োজন পড়ছে। রাজধানী ঢাকা শহর ঘনবসতিপূর্ণ হওয়ায় আক্রান্তদের হাসপাতালে ভর্তি করা যাচ্ছে না পর্যাপ্ত সিট না থাকায়। আইসিইউ তো এখন মহার্ঘ্য একটি বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। ফলে আইসিইউ প্রয়োজন এমন রোগীদের সেখানে চিকিৎসা দেয়া সম্ভব না হওয়ায় সাধারণ বেডেই তাদের মৃত্যু হচ্ছে। এ দিকে গত রোববার মহাখালীতে এক হাজার শয্যার একটি করোনা হাসপাতাল চালু হওয়ায় সেখানে আরো কিছু রোগী সেবা দেয়া সম্ভব হবে; যদিও হাসপাতালে পূর্ণাঙ্গ গতিতে এখনো চলছে না। এ মাসের শেষ নাগাদ পূর্ণগতিতে চলতে শুরু করবে বলে কর্তৃপক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। গতকাল সোমবার যে ১১২ জন করোনা আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে, এদের মধ্যে ৭৫ জন পুরুষ ও ৩৭ জন নারী। গত বছরের ১৮ মার্চ থেকে গতকাল পর্যন্ত মোট ১০ হাজার ৪৯৭ জন করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। এর মধ্যে ৭ হাজার ৭৬৯ জন পুরুষ এবং ২ হাজার ৭২৮ জন নারী রোগী রয়েছে। গতকাল যাদের মৃত্যু হয়েছে এদের মধ্যে ১০৮ জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন এবং তিনজন বাড়িতে ছিলেন এবং একজন একজন হাসপাতালে আনার পথে মৃত্যুবরণ করেন।
এ দিকে করোনা ইউনিটের চিকিৎসকরা সাধারণ মানুষের উদ্দেশে বলছেন, দয়া করে আপনারা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাফেরা করুন; অযথা বাইরে যাবেন না। মুগদা হাসপাতালে কর্মরত ডা: সৈয়দা নাজিয়া বলছেন, নিজেরা সাবধান না হলে দুনিয়ার সবচেয়ে বড় ডাক্তারেরও সাধ্য নেই আপনাকে বাঁচানোর। আইসিইউ ও অক্সিজেন দুষ্প্রাপ্য এখন। হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ার কথা মাথায় আনবেন না। রোগটি শরীরে বাসা বাঁধলে যে কী ভয়াবহ অবস্থা হয়, তা আমরা জানি। আপনারা ততক্ষণ বুঝবেন না যতক্ষণ এতে আক্রান্ত না হচ্ছেন। কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে যাবে। আপনাকে বাঁচানোর জন্য হাসপাতালের কোনো সিট হয়তো নাও থাকতে পারে। অতএব রোগটিতে আক্রান্ত হওয়ার আগেই সাবধান থাকুন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন।
চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, চট্টগ্রামে একদিনে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন পাঁচজন। এ সময় চট্টগ্রামের সাতটি ল্যাবে এক হাজার ১৩৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২৯৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। চট্টগ্রামের ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন ডা: মোহাম্মদ আসিফ খান বলেন, নতুন শনাক্তদের মধ্যে ২৪৯ জন নগরীর ও ৪৪ জন উপজেলার বাসিন্দা রয়েছে। এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৪৭ হাজার ২২৭ জন। এ পর্যন্ত করোনায় মারা গেছেন ৪৬৪।
চাঁদপুর সংবাদদাতা জানান, চাঁদপুর ২৫০ শয্যা সরকারি জেনারেল হাসপাতালের করোনা আইসোলেন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে একজন করোনায় আক্রান্ত রোগী, একজন করোনা নেগেটিভ রিপোর্টের রোগী ও চারজনের করোনার উপসর্গ ছিল। সোমবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত পাঁচজন ও রোববার একজন মারা গেছেন।
চাঁদপুর সদর হাসপাতালের করোনাবিষয়ক ফোকাল পারসন ডা: সুজাউদ্দৌলা রুবেল জানান, হাজীগঞ্জের বাকিলা এলাকার সিরাজুল ইসলাম (৭০) গত ১৬ এপ্রিল দুপুরে সদর হাসপাতালে ভর্তি হন। তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। সোমবার বেলা ১টা ৫০ মিনিটে তিনি আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এ ছাড়া পুরান বাজারের জাফরাবাদ এলাকার মিলন গাজী (৭০) সোমবার বেলা ২টার দিকে মারা যান। রোববার বেলা ১১টা ২০ মিনিটে তিনি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। তবে তার করোনা টেস্টের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছিল।
তিনি আরো জানান, চাঁদপুর শহরের মাদরাসা রোডের সৈয়দুন্নেছা (৭০) সোমবার বেলা পৌনে ৩টায় মারা যান। তিনি একই দিন পৌনে ২টায় হাসপাতালে আসেন। বিকেল সাড়ে ৩টায় মারা যান। চাঁদপুর সদর উপজেলার আশিকাটির মাজেদা বেগম (৭০)। হাসপাতালে আসেন এর এক ঘণ্টা আগে। এ ছাড়া শহরের গুয়াখোলা এলাকার সালামত মিজি (৬৮) মারা যান বিকেল ৩টা ৫০ মিনিটে । এর আগে গত রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় চাঁদপুর সদর হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডে লতিফা বেগম (১০৫) নামের এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। তার বাড়ি চাঁদপুর সদর উপজেলার বাগড়া বাজার সংলগ্ন উত্তর বালিয়া গ্রামে।
বগুড়া অফিস জানায়, বগুড়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৫ ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। তবে এ সময়ে ভাইরাসের সংক্রমণ কিছুটা কমে ৬৮ জনে দাঁড়িয়েছে। আগের দিন রোববার ২১৯টি নমুনা পরীক্ষায় শনাক্ত হন ৮৫ জন। সোমবার বগুড়ার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা: মোস্তাফিজুর রহমান তুহিন এ তথ্য জানিয়েছেন।
তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও টিএমএসএস মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আরটিপিসিআর ল্যাবে ৩২১ টি নমুনা পরিক্ষা করে ৬৮ জনের দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে বগুড়া সদরে ৬০ জন। একই সময়ে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন ৫ জন। এদের দুইজন নারী ও ৩ জন পুরুষ। এ ছাড়াও গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৪৬ জন। এনিয়ে বগুড়ায় মোট আক্রান্ত হলেন ১১ হাজার ৪১৮ জন, সুস্থ হয়েছেন ১০ হাজার ১১০ জন, মারা গেছেন ২৭৭ জন। চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১০৩১ জন।
আগৈলঝাড়া (বরিশাল) সংবাদদাতা জানান, করোনায় আক্রান্ত হয়ে বরিশালের আগৈলঝাড়ায় সাবেক সমবায় কর্মকর্তার মৃত্যু হয়েছে। আগৈলঝাড়া উপজেলার গৈলা ইউনিয়নের সেরাল গ্রামের মৃত আব্দুল হাই সেরনিয়াবাতের ছেলে সাবেক সমবায় কর্মকর্তা হারুন অর রশিদ সেরনিয়াবাত (৭৫) করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত শুক্রবার বরিশাল শেরে বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। শনিবার রাতে করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। রোববার সাবেক সমবায় কর্মকর্তা হারুন অর রশিদ সেরনিয়াবাতের লাশ বরিশাল থেকে নিজ বাড়ি সেরালে আনা হলে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বারপাইকা আল মদিনা যুব ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে সংগঠনের সদস্যরা তার নামাজে জানাজা ও দাফন সম্পন্ন করে। উল্লেখ্য আগৈলঝাড়া উপজেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারী ১৩ জনের নামাজে জানাজা ও লাশ দাফন সম্পন্ন করল স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন আল মদিনা যুব ফাউন্ডেশনের সদস্যরা।
ভাঙ্গা (ফরিদপুর) সংবাদদাতা জানান, ফরিদপুরের ভাঙ্গায় মহামারী করোনায় আক্রান্ত হয়ে এক দিনে দুই ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। সোমবার সকালে এদের দুইজনেরই দাফন স¤পন্ন করা হয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডাক্তার মহসিন উদ্দিন ফকির জানান, উপজেলার পৌর সদরের নওপাড়া গ্রামের আব্দুর রহমান মিয়া (৬৫) করোনা পরীক্ষা করালে পরীক্ষায় পজিটিভ ধরা পড়ে। পরে চিকিৎসার জন্য তাকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করা হয়। রোববার দিবাগত গভীর রাতে তিনি মারা যান। অপর দিকে উপজেলার ঘারুয়া ইউনিয়নের চৌকিঘাটা গ্রামের মুকুল শরীফ (৪০) নামে এক ব্যবসায়ী করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান। করোনা পজিটিভ হলে তাকে ঢাকার একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তিনিও রোববার গভীর রাতে মারা যান। উল্লেখ্য করোনা শুরু হতে আজ পর্যন্ত ভাঙ্গায় করোনা আক্রান্ত হয়ে ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে।
সোনারগাঁও (নারায়ণগঞ্জ) সংবাদদাতা জানান, নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে নতুন করে আরো ১৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৯ জনের করোনাভাইরাসের নমুনা সংগ্রহ করে ১৫ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া একই দিনে সুস্থ হয়েছেন আরো ২৪ জন। নমুনা পরীক্ষার তুলনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩৮ শতাংশ। গতকাল সোমবার দুপুরে সোনারগাঁও উপজেলা পরিবারপরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: পলাশকুমার সাহা এ তথ্য জানান।
ডা: পলাশকুমার সাহা জানান, সোমবার পাওয়া তথ্য অনুযায়ী ৩৯ জনের করোনাভাইরাসের নমুনা সংগ্রহ করে ১৫ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া একই দিনে সুস্থ হয়েছেন ২৪ জন। বর্তমানে সোনারগাঁওয়ে করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০৮৭ জন, মৃত্যুবরণ করেছেন ৩৬ জন ও সুস্থতা লাভ করেছেন ৯১১ জন।
সাতক্ষীরা সংবাদদাতা জানান, করোনায় আক্রান্ত হয়ে সাতক্ষীরা মেডিক্যাল কলেজ (সামেক) হাসপাতালে এক নারী ও এক বৃদ্ধসহ দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। গত রোববার রাত সাড়ে ১২টা ও সোয়া ১টার দিকে মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যান।
মৃত ব্যক্তিরা হলেনÑ যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার খুরশা গ্রামের মো: কামাল হোসেনের স্ত্রী লিপি (৩৫) ও সাতক্ষীরা শহরের পলাশপোল এলাকার মৃত মোহাম্মদ আলীর ছেলে মোশারফ হোসেন (৮৬)। এ নিয়ে সাতক্ষীরা জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১৯ এপ্রিল পর্যন্ত মারা গেছে ৩৯ জন আর উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ১৬৩ জন। সাতক্ষীরা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা: কুদরত-ই-খুদা বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে মৃত ওই দুই ব্যক্তির লাশ দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে।



আরো সংবাদ


জেরুসালেমে সংঘর্ষের ঘটনায় আহত ২০৫, ইসরাইলকে যুদ্ধাপরাধের সতর্কতা জাতিসঙ্ঘের মাদরাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের হয়রানি বন্ধের আহ্বান ববি হাজ্জাজের কেকেআরে সাকিবের টিমমেট করোনায় আক্রান্ত ঈশ্বরগঞ্জে দোকান বাকি নিয়ে সংঘর্ষে দোকানি নিহত শাহআলীতে আগুনে ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে মহানগর জামায়াত, সহযোগিতা ইভ্যালির ব্র্যান্ডিং নিয়ে কাজ করবে এশিয়াটিক মহেশপুরে রাতের আঁধারে ড্রাগন বাগান কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা ঈদের আগে দূরপাল্লার গণপরিবহন চালুর দাবি সাবেক নৌমন্ত্রীর সাড়ে ১৮ কোটি টাকার ইঞ্জেকশনে রক্ষা পেল শিশুটির প্রাণ! বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত ১৫ কোটি ৭৫ লাখ ছাড়াল সম্পর্কোন্নয়নে সৌদি আরব ও পাকিস্তানের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর

সকল