০৮ মে ২০২১
`

সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসে রাজধানীতে বেড়েছে যানবাহন ও মানুষের চাপ

-

করোনা সংক্রমণ রোধে সরকারের দ্বিতীয় দফায় দেয়া কঠোর লকডাউনের পঞ্চম দিনে রাজধানীতে যানবাহন ও মানুষের সমাগম ছিল চোখে পড়ার মতো। সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবস রোববার সকাল থেকেই রাজধানীর সড়কগুলোতে ছিল নানা ধরনের যানবাহনের চাপ। রাস্তায় মানুষের উপস্থিতিও ছিল অন্য যেকোনো দিনের তুলনায় বেশি। যদিও গতকাল পুলিশের চেকপোস্টগুলোতে ছিল বেশ কড়াকড়ি। তারপরও মুভমেন্ট পাশ থাকায় অধিকাংশ যানবাহনই চেকপোস্ট থেকে পার পেতে সক্ষম হয়েছে। তবে বরাবরের মতোই গণপরিবহন না থাকায় ভোগান্তির শিকার হয়েছেন চাকরিজীবীরা। তবে সরকারের কিছু প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আনা-নেয়ার জন্য বিআরটিসি ডাবল ডেকার বাস চলাচল করতে দেখা গেছে।
রাজধানীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলো ঘুরে দেখে গেছে ব্যক্তিগত গাড়ি, মোটরসাইকেল ও রিকশার কোনো কমতি নেই। চেকপোস্টে আগের মতোই গাড়ি থামিয়ে পুলিশ মুভমেন্ট পাস আছে কিনা চেক করছেন। পাস না থাকলে তাদের জিজ্ঞাসাবাদের সম্মুখীন হতে হচ্ছে। মোটরসাইকেল ও প্রাইভেটকারগুলোকে মামলা দিতেও দেখা গেছে।
লকডাউনের মধ্যেও ব্যাংকসহ জরুরি যেসব অফিস খোলা রয়েছে, সেসব প্রতিষ্ঠানের চাকরিজীবীরা পড়েছিলেন ভোগান্তিতে। রাস্তায় যথেষ্ট পরিমাণ গাড়ি থাকলেও তাদের বহনকরার মতো যানবাহন ছিল না। যার কারণে কেউ এক মোড় থেকে আরেক মোড় পর্যন্ত রিকশায় আবার কেউ ভাড়া করে প্রাইভেটকারে যাচ্ছেন। অনেকেই মোটরসাইকেলে যাত্রা করে পথে পুলিশের বাধার মুখেও পড়েছেন। মোটরসাইকেলে একজনের বেশি চলাচল করতে দিচ্ছে না পুলিশ।
গতকাল ফার্মগেট মোড়ে পুলিশের কড়া চেকপোস্ট দেখা গেছে। চেকপোস্টের আগে থেকেই পুলিশ হাত উঁচিয়ে থামার নির্দেশ দিচ্ছে। থামার পরে প্রথমেই জিজ্ঞেস করা হচ্ছে মুভমেন্ট পাস আছে কিনা। মোহাম্মদপুর, গাবতলী, শ্যামলী, মিরপুর, ফার্মগেট, কারোয়ান বাজার ও শাহবাগ এলাকা ঘুরে একই চিত্র দেখা গেছে।
রাজধানীর পল্টন মোড়ে চেকপোস্টে আসা প্রতিটি গাড়ি চেক করছেন পুলিশ সদস্যরা। মোটরসাইকেলে দু’জন ও মুভমেন্ট পাস না থাকায় মামলাও দেয়া হচ্ছে। রিকশায় দু’জন দেখলেই পুলিশ একজনকে নামিয়ে হেঁটে যাওয়ার অথবা অন্য রিকশায় যাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন। পুলিশের চেকপোস্টের কারণে কোনো কোনো সড়কে যানজটেরও সৃষ্টি হয়েছে। ফলে সেসব সড়ক ব্যবহার করতে গিয়ে নির্দিষ্ট সময়ে গন্তব্যে পৌঁছতে পারছেন না অনেকেই।
পল্টন মোড় চেকপোস্টে দায়িত্বরত পুলিশের এসআই রাফি বলেন, রোববার কিছু অফিস ও ব্যাংক খোলার কারণে সড়কে মানুষের চাপ যেমন বেড়েছে, তেমন বেড়েছে গাড়ির চাপও। প্রত্যেককে চেক করা হচ্ছে। প্রাইভেটকার ও মাইক্রোবাসের প্রত্যেক যাত্রীদের মুভমেন্ট পাস আছে কিনা দেখা হচ্ছে।

 



আরো সংবাদ


পাকিস্তানের আবিদ আলীর ডাবল সেঞ্চুরি সাকিব করোনা নেগেটিভ, ফলের অপেক্ষায় মোস্তাফিজ লিচু পাড়তে না দেয়ায় খুন হলেন মামা আদালতে জামিন পাওয়া মানুষের অধিকার : বিশিষ্টজনদের অভিমত খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশ নেয়ার প্রয়োজন আছে কিনা প্রশ্ন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রীর আসাদকে রক্ষায় রাশিয়ার ইসরাইলি ড্রোন প্রযুক্তি ব্যবহার দূরপাল্লায় প্রাইভেটকারের রাজত্ব, রমরমা ব্যবসা কোম্পানীগঞ্জে সংঘর্ষের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় আটক ৩ করোনার টিকা দ্বিতীয় ডোজ না নিলে কী হবে নোয়াখালীতে ইলেকট্রিক মিস্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা, আটক ২ কুষ্টিয়ায় ব্যবসায়ীদের সহযোগিতায় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করলেন হানিফ

সকল