০৭ মে ২০২১
`

করোনায় আক্রান্ত খালেদা জিয়া

আক্রান্ত বাসার আরো ৯ জন উপসর্গ নেই, ভালো আছেন : ফখরুল
-

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। গুলশানে তার বাসার বেশ কয়েকজন সদস্যের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসায় গত শনিবার বিকেলে তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। আইসিডিডিআরবিতে ওই নমুনা পরীক্ষায় গতকাল বেগম জিয়ার রিপোর্টও পজিটিভ আসে। তবে তিনি ভালো আছেন বলে জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
করোনায় আক্রান্ত হলেও খালেদা জিয়ার উল্লেখযোগ্য কোনো সিম্পটম নেই বলে জানিয়েছেন তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা: মামুন। গতকাল বিকেলে নয়া দিগন্তকে তিনি জানান, বেগম জিয়ার ফিরোজার বাসায় একজন সদস্য হালকা জ¦র অনুভব করায় আমরা তিন ধাপে বাসার সবার টেস্ট করানোর উদ্যোগ নেই। প্রথম দফায় গত বৃহস্পতিবার তিনজন সদস্যের নমুনা পরীক্ষা করা হয়, তাতে তিনজনের রিপোর্টই পজিটিভ আসে। এরপর শুক্রবার আরো ছয়জনের নমুনা পরীক্ষা করে একই ফল পাওয়া যায়। সবমিলিয়ে বাসার ৯ জনের রিপোর্টই পজিটিভ আসে।
মামুন জানান, বেগম জিয়ার যদিও কোনো লক্ষণ নেই, তারপরেও আমরা সতর্কতার অংশ হিসেবে তার নমুনা পরীক্ষার উদ্যোগ নেই। শনিবার তার উপস্থিতিতে একজন টেকনোলোজিস্ট খালেদা জিয়ার নমুনা সংগ্রহ করেন। আইসিডিডিআরবির পিসিআর ল্যাবে তার রিপোর্টও পজিটিভ আসে।
গতকাল বিকেলে ফিরোজার বাসায় যান ডা: মামুন। এ সময় তিনি খালেদা জিয়ার জ্বর, কাশি কিংবা শ^াসকষ্টের মতো কোনো লক্ষণ নেই বলে জানান। তিনি বলেন, আমরা এ ব্যাপারে সব প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছি। একটি প্রাইভেট হাসপাতালেও কথা বলে রাখা হয়েছে। এ ছাড়া ম্যাডামের বাসায় হাসপাতালের প্রায় সব ফ্যাসিলিটিস রয়েছে। জানা গেছে, আপাতত খালেদা জিয়া বাসায় থেকেই লক্ষণভিত্তিক চিকিৎসা নেবেন। দলের একটি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদল এ ক্ষেত্রে সার্বক্ষণিক কাজ করছেন। ইউনাইটেডসহ একাধিক হাসপাতালেও কথা বলে রাখা হয়েছে। জরুরি প্রয়োজন হলে সেসব জায়গায় নেয়া হবে তাকে। এ ছাড়া বেগম জিয়ার বাসায় অক্সিজেন সাপোর্টসহ সব ধরনের ব্যবস্থা আগে থেকেই করে রেখেছে তার পরিবার।
এ দিকে বেগম জিয়ার করোনা রিপোর্ট নিয়ে গতকাল দুপুর থেকেই সংবাদমাধ্যমে খবর বের হতে থাকে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বেগম জিয়ার নামে স্বাস্থ্য অধিদফতরের একটি করোনা পজিটিভ রিপোর্টও ছড়িয়ে পড়ে। তাৎক্ষণিকভাবে দল ও পরিবার থেকে এ সম্পর্কে সুস্পষ্ট কোনো মন্তব্য করা না হলে কিছুটা বিভ্রান্তি ছড়িয়ে পড়ে। নেতাকর্মীরাও আসল খবর কী তা জানার জন্য উদ্বেল হয়ে পড়েন। এমন পরিস্থিতিতে বিকেলে জরুরি সংবাদ সম্মেলনে আসেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
খালেদা জিয়া ভালো আছেন, উপসর্গ নেই : মির্জা ফখরুল
গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। শনিবার আইসিডিডিআরবিতে তার নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। আমরা আজকে যেটা পেয়েছি সেই টেস্ট রিপোর্ট পজেটিভ। অর্থাৎ তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।’
তিনি বলেন, প্রফেসর ডা: এফ এম সিদ্দিকীর নেতৃত্বে তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক যারা আছেন তাদের তত্ত্বাবধানে ইতোমধ্যে চিকিৎসা শুরু হয়েছে। খালেদা জিয়া এখন স্টেবল আছেন, ভালো আছেন। মির্জা ফখরুল আরো বলেন, ‘তার কোনো টেম্পারেচার নেই, অন্য কোনো উপসর্গও নেই। আমরা দেশবাসীকে আশ্বস্ত করতে চাই, তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক যারা আছেন তারা দেশের অত্যন্ত বরণ্যে চিকিৎসক তাদের তত্ত্বাবধানে আছেন এবং তিনি ভালো আছেন।’
বিএনপি মহাসচিব বলেন, দেশবাসীকে আমরা আহ্বান জানাব, বেগম খালেদা জিয়াও আহবান জানিয়েছেন যে, তার জন্য, তার মুক্তির জন্য সবাই যেন দোয়া করেন। বিশেষ করে আমাদের দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের কাছে আহ্বান থাকবে যে, তারা দেশনেত্রীর রোগমুক্তির জন্য পরম করুণাময় আল্লাহতালার কাছে দোয়া চাইবে এবং সব স্বাস্থ্যবিধি মেনে তারা যেন দোয়া করেন। আমাদের অনুরোধ থাকবে যে, স্থানীয় মসজিদে তার জন্য দোয়া করবেন।
খালেদা জিয়ার সাথে থাকা গৃহকর্মী ফাতেমাসহ অন্যদের সম্পর্কে জানতে চাইলে মির্জা ফখরুল বলেন, ওখানে যারা আছেন তাদের সম্পর্কে আমি বলতে পারব না। আমরা শুধুমাত্র উনারটাই জেনেছি। যেটা আমি সুনিশ্চিতভাবে বলেছি।
প্রায় ১৪ মাস ধরে কারাগারের বাইরে রয়েছেন ৭৫ বছর বয়সী অসুস্থ খালেদা জিয়া। এই পুরো সময়টাই গুলশানের ফিরোজায় একান্ত জীবন-যাপন করছেন তিনি। দলীয় কোনো কর্মসূচিতে অংশ নেননি। এমনকি রাজনৈতিক কোনো আলাপচারিতায়ও ছিলেন না। কদাচিৎ দলের কাউকে কাউকে সাক্ষাৎ দিলেও করোনার কারণে তা হয়েছে সতর্কতা মেনেই। তবে বোন ও ভাইয়ের পরিবারের সদস্যরা নিয়মিতই তাকে দেখতে বাসায় যেতেন। দেশে করোনা মহামারী শুরু হওয়ার পর গত বছরের ২৫ মার্চ কারাগার থেকে শর্তযুক্ত মুক্তি পান খালেদা জিয়া। বিএনপি তার সুচিকিৎসার বিষয়ে উদ্বিগ্ন থাকলেও করোনার কারণে সে ধরনের কোনো ব্যবস্থা তারা নিতে পারেনি। চিকিৎসকদের ভাষ্য মতে, দীর্ঘ সময় ধরেই অস্টিও আর্থ্রাইটিস, ডায়াবেটিসসহ নানা রোগে ভুগছেন খালেদা জিয়া। তার মেরুদ , বাম হাত ও ঘাড়ের দিকে মাঝে মাঝে শক্ত হয়ে যায়। দুই হাঁটু প্রতিস্থাপন করা আছে। তিনি ব্লাডপ্রেসার নিয়ন্ত্রণের ওষুধ খান। বাম চোখেও একটু সমস্যা রয়েছে তার।
দোয়া কামনা : বিএনপির দফতর থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় সারা দেশে বিএনপি, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সব পর্যায়ের নেতাকর্মী ও শুভানুধ্যায়ীদেরকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মসজিদ, অন্যান্য উপাসনালয় এবং যার যার অবস্থান থেকে দোয়া মাহফিল, কুরআন খতম ও অন্যান্য ধর্মমতে প্রার্থনা অনুষ্ঠান করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।
আক্রান্ত যারা : গৃহকর্মী ফাহেমা ও রূপা আক্তার ছাড়াও স্টাফদের মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন খায়ের, আলমগীর, চান্দু মিয়া, রতন, জালালসহ ৯ জন। ডা: মামুন জানান, যারা আক্রান্ত সবারই চিকিৎসা চলছে। বাসার সামনের একজন নিরাপত্তাকর্মী জানান, ম্যাডাম ফিরোজার দোতলায় কোয়ারেন্টিনে আছেন।



আরো সংবাদ