১৫ এপ্রিল ২০২১
`

ভারতে করোনা সংক্রমণে আবারো রেকর্ড

-

ভারতে দৈনিক করোনা সংক্রমণ আবারো নতুন রেকর্ড করেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে এক লাখ ২৬ হাজার ৭৮৯ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে। এক দিন আগে বুধবার সকালে মন্ত্রণালয়টি রেকর্ড এক লাখ ১৫ হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হওয়ার কথা জানিয়েছিল। ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই শনাক্ত নতুন রোগী সংখ্যা সেই সংখ্যাকেও ছাড়িয়ে গেল।
বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত ভারতের শনাক্ত রোগীর মোট সংখ্যা এক কোটি ২৯ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। বুধবার দেশটিতে আরো ৬৮৫ জন করোনাভাইরাস রোগীর মৃত্যু হওয়ায় মহামারীতে মোট মৃত্যু এক লাখ ৬৬ হাজার ৮৬২ জনে দাঁড়িয়েছে।
বিশ্বজুড়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যায় যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রাজিলের পর তৃতীয় স্থানে আছে ভারত; আর মৃতের সংখ্যায় যুক্তরাষ্ট্র, ব্রাজিল ও মেক্সিকোর পর চতুর্থ স্থানে আছে।
ভারতের রাজ্যগুলোর মধ্যে শনাক্ত রোগীর সংখ্যায় শীর্ষে আছে মহারাষ্ট্র। এরপর যথাক্রমে আছে কেরালা, কর্নাটক, অন্ধ্রপ্রদেশ ও তামিলনাডু। পরিস্থিতি সামাল দিতে মধ্য প্রদেশ রাজ্য কর্তৃপক্ষ সব শহরাঞ্চলে শুক্রবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টা থেকে সোমবার সকাল ৬টা পর্যন্ত কারফিউ জারি করেছে। এ দিকে টিকার সঙ্কট দেখা দেয়ায় মহারাষ্ট্রসহ বেশ কয়েকটি রাজ্যে লোকজনকে ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে। উড়িষ্যা রাজ্য কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তারা অর্ধেক টিকা কেন্দ্র বন্ধ করে দিয়েছে। এ দিকে সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির কারণে ভারত থেকে নিউজিল্যান্ড প্রবেশে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার ওয়েলিংটন জানায়, আগামী দুই সপ্তাহ ভারত থেকে কেউ নিউজিল্যান্ডে ঢুকতে পারবে না। বর্তমানে ভারতে অবস্থানরত নিউজিল্যান্ডের নাগরিকদের জন্যও এ আদেশ প্রযোজ্য হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার নিউজিল্যান্ড সীমান্তে ২৩ জনের শরীরে নতুন ভ্যারিয়েন্টের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। ওই ২৩ জনের মধ্যে ১৭ জনই ভারতের নাগরিক। এর পরই দেশটি থেকে নিউজিল্যান্ড প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপের সিদ্ধান্ত নেয় জাসিন্ডা আরডার্নের সরকার।
উল্লেখ্য, গতকালের আগে নিউজিল্যান্ডে ৪০ দিন ধরে স্থানীয়ভাবে করোনা সংক্রমণের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। অন্য দিকে বৃহস্পতিবার ভারতে এক দিনে করোনা সংক্রমণের নতুন রেকর্ড তৈরি হয়েছে।
আর্জেন্টিনায় কারফিউ ঘোষণা : আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্ট আলবার্তো ফার্নান্দেজ গত বুধবার তিন সপ্তাহের জন্য সান্ধ্য আইন জারির ঘোষণা দিয়েছেন। পরপর দুই দিন করোনাভাইরাস সংক্রমণে রেকর্ড হওয়ার পর তিনি এ ঘোষণা দিলেন। আর্জেন্টিনার সর্বোচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাগুলোতে বিশেষ করে মধ্যাঞ্চলে এ কারফিউ কার্যকর করা হবে। সে হিসেবে আজ শুক্রবার থেকে এ কারফিউ কার্যকর করা হবে এবং তা আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত মধ্যরাত থেকে প্রতিদিন সকাল ৬টা পর্যন্ত বলবৎ থাকবে। তিনি নিজে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর সেলফ-আইসোলেশনে রয়েছেন।
ব্রিটেনে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার ব্যাপারে নতুন পরামর্শ : অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোভিড-১৯ টিকার সাথে রক্ত জমাট বাঁধার কিছুটা হলেও সম্পর্ক রয়েছেÑ বিশেষজ্ঞদের এমন বক্তব্য আসার পর ব্রিটেনে ৩০ বছরের কম বয়সীদের এই টিকা না নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। তাদেরকে বরং অ্যাস্ট্রাজেনেকারটি বাদ রেখে অন্য টিকা নিতে বলছে দেশটির টিকাদান কর্তৃপক্ষ। এর আগে ইউরোপীয় ইউনিয়নের ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ইউরোপিয়ান মেডিসিন এজেন্সি (ইএমএ) জানায়, অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার সাথে রক্ত জমাট বাঁধার বিরল লক্ষণের একটি সম্পর্ক রয়েছে। ইএমএ দেখেছে, মার্চ নাগাদ কোভিশিল্ড টিকা নেয়া ৭৯ জনের মধ্যে রক্ত জমাট বাঁধার লক্ষণ দেখা গেছে। এর মধ্যে ১৯ জনের মৃত্যু ঘটেছে। নারীদের ক্ষেত্রে এ ঘটনা বেশি দেখা গেছে।
টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন মোদি : করোনাভাইরাস টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। গতকাল বৃহস্পতিবার দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সেসে (এআইআইএমএস) তিনি টিকার এ ডোজটি নেন। ১ মার্চ টিকার প্রথম ডোজ নেয়ার ৩৭ দিন পর তিনি দ্বিতীয় ডোজ নিলেন। টুইটারে নিজের দ্বিতীয় ডোজ নেয়ার একটি ছবি পোস্ট করে টিকা নেয়ার যোগ্য সবাইকে দ্রুত তা নিয়ে নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। মোদি ভারত বায়োটেক ও ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চের (আইসিএমআর) তৈরি করোনাভাইরাস টিকা ‘কোভ্যাক্সিন’নিয়েছেন।
স্বাস্থ্যবিধি না মানা এবং টিকা না নেয়ায় তরুণদের সংক্রমণ বৃদ্ধি : যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের অনেক দেশে তরুণদের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা বাড়ছে। ফ্লোরিডা, সাউথ ক্যারোলিনা, জর্জিয়া ও টেক্সাসসহ যুক্তরাষ্ট্রের আরো কিছু অঙ্গরাজ্যে এমন প্রবণতা দেখা গেছে। এ পরিস্থিতির ব্যাখ্যা দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ও প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রধান চিকিৎসা উপদেষ্টা ড. অ্যান্থনি ফাউচি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে ৬৫ বছর বা তদূর্ধ্ব বয়সীদের মধ্যে ৭৫ শতাংশই টিকার অন্তত একটি ডোজ নিয়েছেন। অন্য দিকে ডে কেয়ার সেন্টার এবং বিভিন্ন স্কুলের স্পোর্টস টিমগুলোর সদস্যরা নিয়মিত মাস্ক পরছেন না। আমি মনে করি, এসব কারণেই তরুণদের মধ্যে সংক্রমণ বাড়ছে।
সেরামকে আইনি নোটিশ অ্যাস্ট্রাজেনেকার : বিশ্বের অনেক দেশেই ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট কর্তৃক উৎপাদিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন কোভিশিল্ডের সরবরাহ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। সেই পরিপ্রেক্ষিতে এবার ভারতীয় ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানটিকে আইনি নোটিশ দিয়েছে অ্যাস্ট্রাজেনেকা।
সেরাম ইনস্টিটিউটের আদর পুনাওয়ালা বরাবর গত বুধবার এ আইনি নোটিশ পাঠায় অ্যাস্ট্রাজেনেকা। এর আগের দিন আদর পুনাওয়ালা জানিয়েছিলেন, বিদেশে কোভিশিল্ডের সরবরাহ আপাতত বন্ধ করতে সরকারের পক্ষ থেকেই নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এর কারণও বাইরের দেশগুলোকে ব্যাখ্যা করা কঠিন। অথচ বিদেশে ভ্যাকসিনগুলো তুলনামূলক বেশি দামে বিক্রি করা হচ্ছিল। বিশ্বের এখন এই ভ্যাকসিন প্রয়োজন। একই সাথে ভারতের চাহিদাকেও আমাদের অগ্রাধিকবার দিতে হচ্ছে। এমনকি পুরো ভারতে এটি সরবরাহ করতে গিয়েও এটি কম পড়ে যাচ্ছে। তিনি জানান, তাদের প্রতিষ্ঠান বর্তমানে প্রতি মাসে ৬০ থেকে ৬৫ মিলিয়ন ডোজ কোভিশিল্ড উৎপাদন করছে। এখন পর্যন্ত ১০০ মিলিয়ন ডোজ ভারত সরকারকে দেয়া হয়েছে এবং বাইরের দেশগুলোতে সরবরাহ করা হয়েছে ৬০ মিলিয়ন ডোজ।
তবুও লকডাউন দেবেন না বলসোনারো : করোনায় প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষের মৃত্যু হচ্ছে ব্রাজিলে। এর পরও দেশটির প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারো কিছুতেই লকডাউন দিতে রাজি হচ্ছেন না। করোনার প্রথম ঢেউয়ের সময়ও লকডাউনের বিরুদ্ধে অনড় ছিলেন এই রাষ্ট্রপ্রধান। এ নিয়ে তাকে সমালোচনাও সইতে হয়েছে। বর্তমানে দেশটিতে এ প্রাণঘাতী ভাইরাসটির সংক্রমণের হার বাড়ছে খুবই দ্রুত। হাসপাতালগুলোতে এখন রোগীর ঠাঁই নেই। কয়েকটি শহরে চিকিৎসার জন্য অপেক্ষায় থেকে রোগী মারা যাচ্ছেন এবং অনেক জায়গায় স্বাস্থ্যব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে। কিন্তু ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারো ক্রমাগতই লকডাউনের বিরোধিতা করে যাচ্ছেন। তার যুক্তি- অর্থনৈতিকভাবে দেশ আক্রান্ত হলে এর প্রভাব ভাইরাসের চেয়ে বেশি খারাপ হবে। এমনকি স্থানীয় কিছু কর্তৃপক্ষের জারি করা নিষেধাজ্ঞা তুলে দেয়ার চেষ্টা করছেন তিনি।
দক্ষিণ কোরিয়ায় ‘করোনা তহবিল’ বিল পাস : অবশেষে করোনাভাইরাস মোকাবেলায় দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুনজে-ইন বহুল আলোচিত ১৫ ট্রিলিয়ন কোরিয়ান ওন (১৩.২ বিলিয়ন ডলারের বেশি) ‘করোনা তহবিলের’ অতিরিক্ত বিল পাস হয়েছে।
গতকাল বৃহস্পতিবার কোরিয়ার জাতীয় পরিষদ সংসদে একটি পূর্ণাঙ্গ অধিবেশনের মাধ্যমে পরিপূরক বাজেট বিলটি অনুমোদন দেয়। বছরব্যাপী করোনা মহামারীতে ক্ষতিগ্রস্তদের এবং ছোট ব্যবসায়ীদের সহায়তার জন্য ভোটাভুটিতে বিলটির পক্ষে ২৪২ ভোট ও বিপক্ষে ৬ ভোট পড়ে। গত বছরের জানুয়ারিতে দক্ষিণ কোরিয়ায় নতুন করোনাভাইরাসটির প্রথম রোগী শনাক্ত হওয়ার প্রায় ১৪ মাস পরে এ বিলটি পাস হওয়ার ফলে দেশে বেকার ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের এবং অন্যান্য দুর্বল লোককে বাছাই করে উপকৃত করবে।

 

 



আরো সংবাদ


কোহলিকে সরিয়ে শীর্ষে বাবর আজম খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনা করে জাপানের রাষ্ট্রদূত ও পাকিস্তান হাইকমিশনারের চিঠি করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ৫০ লাখ দরিদ্র পরিবারকে আবারো ২৫০০ টাকা করে দেয়ার উদ্যোগ আলোচনা দীর্ঘায়িত করা ক্ষতিকর হবে : খামেনি বেঙ্গালুরুর টানা দ্বিতীয় জয় বাবর ধামাকায় পাকিস্তানের রেকর্ড গড়া জয় রাহুল গান্ধীর হুঁশিয়ারি : বিজেপি এলে পশ্চিমবঙ্গ জ্বলবে করোনায় মৃত্যুতে নতুন রেকর্ডে কঠোর লকডাউন শুরু গোবিন্দগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের ৩ জনসহ নিহত ৪ অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে অনৈতিক কাজের অভিযোগে কালিয়াকৈরে যুবক আটক দুর্নীতির অভিযোগে ৮ বছরের জন্য নিষিদ্ধ ক্রিকেটার হিথ স্ট্রিক

সকল