১৮ এপ্রিল ২০২১
`

নারীর মৃত্যুতে অক্সফোর্ড ভ্যাকসিনের একটি ব্যাচ বাতিল করল অস্ট্রিয়া

-

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার উদ্ভাবিত করোনা ভ্যাকসিন নেয়ার পর এক নারীর মৃত্যু ও আরেকজন অসুস্থ হওয়ার পর সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে ভ্যাকসিনটির একটি ব্যাচ প্রয়োগ বাতিল করেছে অস্ট্রিয়া। গত রোববার দেশটির স্বাস্থ্য সংস্থা এই তথ্য জানিয়েছে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানা গেছে।
অস্ট্রিয়ার দ্য ফেডারেল অফিস ফর সেফটি ইন হেলথ কেয়ার (বিএএসজি) অ্যাস্ট্রাজেনেকা ভ্যাকসিনের একটি ব্যাচ থেকে টিকা নেয়ার পর দু’টি ঘটনার রিপোর্ট পেয়েছে। ঘটনা দু’টি ঘটেছে লওয়ার অস্ট্রিয়ার জোয়েত্তি জেলার একটি ক্লিনিকে।
ভ্যাকসিন নেয়ার পর ৪৯ বছরের এক নারীর মৃত্যু এবং ৩৫ বছর বয়সী একজন অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। স্বাস্থ্য সংস্থা জানায়, ভ্যাকসিনের সাথে মৃত্যু ও অসুস্থতার স্বাভাবিক কোনো সম্পর্ক নেই। স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, নিহত নারী ছিলেন ক্লিনিকটির একজন নার্স।
এ দিকে শনিবার ভিয়েনায় করোনাভাইরাস লকডাউনের বিরুদ্ধে কয়েক হাজার মানুষ বিক্ষোভ করেছেন। আইনশৃঙ্খলা ও কোভিড বিধিনিষেধ ভাঙার অভিযোগে কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।
খবরে বলা হয়েছে, বিক্ষোভকারীদের বেশির ভাগেরই মুখে কোনো মাস্ক ছিল না। সামাজিক দূরত্ববিধিও তারা মানছিল না ডানপন্থী ফ্রিডম পার্টি আয়োজিত সমাবেশে যোগ দিতে বিক্ষোভকারী রাজধানীর কেন্দ্রস্থল হয়ে পার্কের দিকে চলে যায়। অস্ট্রিয়া গত মাসে লকডাউন শিথিল করে এবং স্কুল, দোকানপাট ও জাদুঘর খুলে দেয়। কিন্তু বিক্ষোভকারীরা এখনো যে লকডাউন জারি রয়েছে তার বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমেছে। তারা হোটেল রেস্তোরাঁ খোলার দাবি জানায়। এ ছাড়া তারা মধ্য ডানপন্থী চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জের পদত্যাগও দাবি করে।
পুলিশ বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ারগ্যাস ব্যবহার করে। কিন্তু যারা চলে যেতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে, তাদের আটক করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। কর্তৃপক্ষ বলছে, সংক্রমণ কমলে আগামী কয়েক সপ্তাহে নিষেধাজ্ঞা আরো শিথিল করা হবে। মার্চ মাসের শেষের দিকে ক্যাফে, রেস্তোরাঁ খুলে দিতে পারে বলেও জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।
দেশটিতে প্রতিদিনের সংক্রমণ সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে বেড়েছে। গত শনিবার নতুন করে আড়াই হাজারেরও বেশি লোক করোনায় আক্রান্ত হয়েছে।
সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট আসাদ ও তার স্ত্রী করোনা পজিটিভ : করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ ও তার স্ত্রী আসমা আল-আসাদ। সোমবার সিরীয় প্রেসিডেন্টের কার্যালয় এক বিবৃতিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সানা (সিরিয়ান আরব নিউজ এজেন্সি) জানিয়েছে, সিরীয় প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্টলেডি দু’জনের শরীরেই মৃদু উপসর্গ ছিল। পরে তাদের পিসিআর টেস্টের ফলাফল পজিটিভ এসেছে।
প্রেসিডেন্ট ও তার স্ত্রী শারীরিকভাবে ভালো অবস্থায় রয়েছেন এবং বাড়িতে আইসোলেশনে থাকাবস্থাতেই দৈনন্দিন কাজকর্ম চালিয়ে যাবেন বলে জানানো হয়েছে। সিরীয় প্রেসিডেন্টের কার্যালয় জানিয়েছে, ৫৫ বছর বয়সী আসাদের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল। তিনি ও তার স্ত্রী আগামী দু-তিন সপ্তাহ বাড়িতে আইসোলেশনে থাকবেন। তবে তারা করোনায় আক্রান্ত হওয়ার কোনো ধরনের প্রমাণ গণমাধ্যমের কাছে উপস্থাপন করা হয়নি।
বার্তা সংস্থা সানায় প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাস থেকে সিরিয়াসহ সারা বিশ্বের মানুষের সুরক্ষা ও সুস্থতা কামনা করেছেন প্রেসিডেন্ট আসাদ। এ ছাড়া সবাইকে স্বাস্থ্য সুরক্ষাসংক্রান্ত সব নীতি মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।



আরো সংবাদ