১৯ এপ্রিল ২০২১
`

জান্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থার আহ্বান জাতিসঙ্ঘের

মিয়ানমারের বিভিন্ন শহরে বিক্ষোভ অব্যাহত
-

মিয়ানমারে গত মাসে হওয়া অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে চলা আন্দোলনে নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে অর্ধশতাধিক বিক্ষোভকারী নিহতের পর জাতিসঙ্ঘের মিয়ানমার বিষয়ক বিশেষ দূত ক্রিস্টিন শানার দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার দেশটির সামরিক জান্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে নিরাপত্তা পরিষদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। গত শুক্রবার জাতিসঙ্ঘ নিরাপত্তা পরিষদের এক রুদ্ধদ্বার বৈঠকে তিনি এ আহ্বান জানান। জাতিসঙ্ঘের এই দূত নিরাপত্তা পরিষদকে মিয়ানমারের নভেম্বরের নির্বাচনের ফলের প্রতি সমর্থন জানাতে এবং দেশটির জনগণের পাশে দাঁড়াতেও বলেছেন। রয়টার্স ও বিবিসি।
মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী গত ১ ফেব্রুয়ারির অভ্যুত্থানে দেশটির গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত সরকারকে উৎখাতের পাশাপাশি অং সান সু চিসহ অসংখ্য রাজনৈতিক নেতাকর্মীকে আটকও করে। সেনা শাসনের বিরুদ্ধে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশটির বিভিন্ন শহরে কয়েক সপ্তাহ ধরে প্রতিদিনই বিক্ষোভ, ধর্মঘটসহ নানান কর্মসূচি হচ্ছে। গতকাল শনিবার দেশটির বিভিন্ন শহরে অভ্যুত্থানের প্রতিবাদ ও বন্দীদের মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ হয়েছে। দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর দাওয়েইতে বিক্ষোভকারীরা ‘গণতন্ত্রই আমাদের উদ্দেশ্য’ এবং ‘বিপ্লব অবশ্যই জয়ী হবে’ স্লোগান দিয়েছেন। মিয়ানমারের সবচেয়ে বড় শহর ইয়াংগুনেও বিক্ষোভকারীদের জড়ো হতে দেখা গেছে।
টালমাটাল এ পরিস্থিতি অর্থনীতিকে বিপর্যস্ত করার পাশাপাশি দেশটির প্রশাসনকেও অনেকখানি পঙ্গু করে দিয়েছে। বিক্ষোভকারীরা সু চিসহ আটকদের মুক্তি এবং নভেম্বরের নির্বাচনে জয়ীদের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তরের দাবি জানিয়ে আসছে। নভেম্বরের ওই নির্বাচনে সু চির দল ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্র্যাসি (এনএলডি) নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করেছিল। ‘মিয়ানমারের সেনাবাহিনী পার পাবে, এমনটা আর কতবার হতে দেবো আমরা?’ শুক্রবার নিরাপত্তা পরিষদের ১৫ সদস্য রাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে মিয়ানমার বিষয়ক বিশেষ দূত শানার এমনটাই বলেছেন।
শানারের বক্তব্য বিষয়ে মিয়ানমারের সামরিক জান্তার মুখপাত্রের মন্তব্য চেয়ে ফোন করা হলেও তিনি তা ধরেননি। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশটির সেনাবাহিনী বলছে, তারা বিক্ষোভকারীদের প্রতি সর্বোচ্চ সংযম প্রদর্শন করলেও তাদেরকে মিয়ানমারের স্থিতিশীলতার জন্য হুমকি হয়ে উঠতে দেবে না। শুক্রবার মান্দালয়ে বিক্ষোভকারীদের ওপর পুলিশের গুলিতে একজন নিহত হন। জান্তাপন্থীদের ছুরিকাঘাতে এনএলডির এক কর্মকর্তা ও তার কিশোর ভাতিজাও প্রাণ হারিয়েছেন বলে জানিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো।
চীন ও রাশিয়ার বাধা : এ দিকে মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের নিন্দায় যৌথ বিবৃতি দিতে ব্যর্থ হয়েছে জাতিসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদ। শুক্রবার নিরাপত্তা পরিষদের এক রুদ্ধদ্বার বৈঠকের পর চীন ও রাশিয়ার বিরোধিতায় সামরিক জান্তার বিরুদ্ধে বিবৃতি দিতে ব্যর্থ হয় নিরাপত্তা পরিষদ। নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য ও ভেটো ক্ষমতার অধিকারী রাশিয়া ও চীন মিয়ানমারের অভ্যুত্থানকে অভ্যন্তরীণ বিষয় বলে দেশটিতে জাতিসঙ্ঘের কোনো প্রকার হস্তক্ষেপের বিরোধিতা করে।
সেনাপরিচালিত ৫টি চ্যানেল বন্ধ ইউটিউবের : এ দিকে বিবিসি জানায়, মিয়ানমারে গত মাসে সংঘটিত সামরিক অভ্যুত্থানের জেরে এবার নিজেদের প্ল্যাটফর্মে ব্যবস্থা নিয়েছে ভিডিও শেয়ারিং ওয়েবসাইট ইউটিউব। দেশটির সেনাবাহিনী পরিচালিত পাঁচটি চ্যানেল সরিয়ে দিয়েছে তারা। কমিউনিটি গাইডলাইনের আওতায় এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে শুক্রবার জানিয়েছে ইউটিউব। চ্যানেলগুলো হলো- স্টেট নেটওয়ার্ক, এমআরটিভি (মিয়ানমার রেডিও অ্যান্ড টেলিভিশন), সেনাবাহিনী পরিচালিত মায়াবতী মিডিয়া, এমডব্লিউডি ভ্যারাইটি এবং এমডব্লিউডি মিয়ানমার। এ বিষয়ে ইউটিউবের এক মুখপাত্র বলেন, আমাদের কমিউনিটি গাইডলাইন এবং প্রযোজ্য আইন অনুযায়ী বেশ কিছু চ্যানেল বন্ধ এবং অনেকগুলো ভিডিও সরিয়ে নেয়া হয়েছে। এ দিকে ‘ব্যবস্থাপনায় বিপর্যয় ঘটার’ অজুহাত দেখিয়ে শুক্রবার থেকে মিয়ানমারের সর্বত্র বিদ্যুৎ পরিষেবা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।
ভারতে আশ্রয় চাওয়া পুলিশদের ফেরত চেয়েছে মিয়ানমার : ভারতে আশ্রয় চাওয়া মিয়ানমারের পুলিশ সদস্যদের ফেরত চেয়েছে দেশটি। প্রায় ৩০ জন পুলিশ সদস্য তাদের পরিবার পরিজন নিয়ে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে ভারতে আশ্রয় চেয়েছেন। গতকাল শনিবার ভারতের উত্তর-পূর্বের এক পুলিশ সদস্য এ তথ্য জানিয়েছেন। মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের মধ্য দিয়ে ক্ষমতা দখলকারী জান্তা সরকারের নির্দেশ না মেনে এই পুলিশ সদস্যরা দেশ ছেড়ে পালান।
ভারতের সীমান্তবর্তী রাজ্য মিজোরামের চাম্পাই জেলার একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা বলেন, তিনি মিয়ানমারের ফালাম জেলা কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে একটি চিঠি পেয়েছেন। সেখানে ‘দুই দেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখতে’ আট পুলিশ সদস্যকে ফেরত পাঠাতে অনুরোধ জানানো হয়। ডেপুটি কমিশনার মারিয়া সি টি জুয়ালি বলেন, এ বিষয়ে নয়াদিল্লি থেকে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ‘নির্দেশনার অপেক্ষায়’ আছেন। তবে এ বিষয়ে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তাৎক্ষণিক বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
রয়টার্স মিয়ানমারের ওই চিঠির একটি কপি পাওয়ার পর পর্যালোচনা করে দেখেছে। সেখানে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ আট পুলিশের সীমান্ত অতিক্রম করার তথ্য পেয়েছে বলে উল্লেখ করা আছে। তাদের মধ্যে একজন নারী পুলিশ সদস্যও রয়েছেন। চারজনের বয়স ২২ থেকে ২৫ বছরের মধ্যে। মিয়ানমারের সাথে ভারতের এক হাজার ৬৪৩ কিলোমিটার সীমান্ত রয়েছে। সংখ্যালঘু খ্রিষ্টান চীন জাতিগোষ্ঠীর লোকজন ছাড়াও অনেক রোহিঙ্গা ভারতে আশ্রয় নিয়েছেন। কিন্তু পুলিশ কর্মকর্তাদের ভারতে চলে আসা ও আশ্রয়প্রার্থী হওয়ার ঘটনা এই প্রথম।



আরো সংবাদ