২০ এপ্রিল ২০২১
`
অগ্নিঝরা মার্চ

জেল ভেঙে ৩৪১ জনের মুক্তি

-

১৯৭১ সালের আজকের দিনে ঢাকা সেন্ট্রাল জেলের গেট ভেঙে ৩৪১ জন বন্দী পলায়ন করে। পলায়নকালে পুলিশের গুলিতে সাতজন নিহত হয়। আহত হয় ৩০ জন। প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া খান বেলা ১টা ৫ মিনিটে জাতির উদ্দেশে বেতার ভাষণ দেন। ভাষণে তিনি বাংলাদেশের বিক্ষুব্ধ জনতাকে দুষ্কৃতকারী আখ্যা দেন এবং ২৫ মার্চ জাতীয় পরিষদের অধিবেশন আহ্বান করেন।
ইতিহাসের পরবর্তী ঘটনাবলি বিশেষ করে ২৫ মার্চ রাতে গণহত্যার ঘটনা প্রমাণ করে তার এ ঘোষণা ছিল আসলে একটি প্রতারণা। ন্যায্য দাবি আদায়ে আন্দোলনরত পূর্ব পাকিস্তানকে দমন এবং শায়েস্তা করার পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছিল সামরিক সরকার। সে প্রস্তুতির লক্ষ্যেই সময় ক্ষেপণের কৌশল হিসেবে ২৫ মার্চ পর্যন্ত ঝুলিয়ে দেয়া হয় জাতীয় পরিষদের অধিবেশনের তারিখ।
এ দিকে জাতীয় পরিষদের অধিবেশন বাতিলের প্রতিবাদে পাঁচ দিনব্যাপী হরতাল কর্মসূচি এ দিন শেষ হয়। সাত মার্চ রেসকোর্স ময়দানের সভার প্রস্তুতি এবং জাতীয় পরিষদের নতুন তারিখ ঘোষণার বিষয়ে আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ, স্বাধীন বাংলা ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ ও ডাকসু নেতৃবৃন্দ বৈঠকের পর বৈঠক করতে থাকেন। অলি আহাদের সভাপতিত্বে বিকেলে পল্টন ময়দানে জনসভা এবং মোজাফফর আহমদের নেতৃত্বে গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।



আরো সংবাদ