২৫ জানুয়ারি ২০২১
`

ওআইসি বৈঠকে কাশ্মির নিয়ে মুসলিম দেশগুলোর যৌথ প্রস্তাব

-

জম্মু-কাশ্মির নিয়ে যৌথ প্রস্তাব গ্রহণ করেছে মুসলিম দেশগুলোর সংগঠন ইসলামী সহযোগিতা সংস্থা বা অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশন (ওআইসি)। প্রস্তাবে ‘জাতিসঙ্ঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রাসঙ্গিক প্রস্তাবগুলো মোতাবেক জম্মু ও কাশ্মির সমস্যার শান্তিপূর্ণ সমাধানের পক্ষে ওআইসির অবস্থান বলে উল্লেখ করা হয়েছে।’ তা ছাড়া কাশ্মিরের বিশেষ মর্যাদাসম্বলিত ৩৭০ নং ধারা পুনর্বহালেরও আহ্বান জানানো হয় ভারতের প্রতি। ডয়চে ভেলে।
চলতি সপ্তাহে নাইজারে সংস্থাটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে এ প্রস্তাব গৃহীত হয়। এ প্রস্তাবের মাধ্যমে এই প্রথম কোনো আন্তর্জাতিক মঞ্চে সরাসরি কাশ্মির নিয়ে প্রস্তাব গ্রহণ করা হলো। প্রস্তাবে বলা হয়, আমরা জাতিসঙ্ঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রাসঙ্গিক প্রস্তাবগুলো মোতাবেক জম্মু ও কাশ্মির সমস্যার শান্তিপূর্ণ সমাধানের পক্ষে ওআইসির নীতিগত অবস্থান পুনর্ব্যক্ত করছি।
গত ২৭ থেকে ২৯ নভেম্বর নাইজারে ৪৭তম ওআইসি সম্মেলনে মিলিত হয়েছিলেন গুরুত্বপূর্ণ মুসলিম দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা। করোনা, আন্তর্জাতিক কূটনৈতিক সম্পর্কের পাশাপাশি এবারের বৈঠকে জম্মু-কাশ্মিরের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে ওআইসির প্রস্তাবের কড়া সমালোচনা করে ভারত বলেছে, জম্মু-কাশ্মির নিয়ে এ ধরনের প্রস্তাব গ্রহণের কোনো অধিকার অন্য কোনো দেশের নেই। বিবৃতিতে দিল্লি আরো বলেছে, জম্মু-কাশ্মির ভারতের অখণ্ড অংশ এবং এটা ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়।
উল্লেখ্য, ২০১৯ সালে কাশ্মিরের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল করে ভারত সরকার। ফলে কাশ্মির এতদিন যে বিশেষ অধিকার পেতো, তা এর মাধ্যমে খারিজ হয়ে গেছে। একই সাথে জম্মু-কাশ্মির রাজ্যটিকে ভেঙে দুইটি পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করা হয়েছে। এর একটি হলো লাদাখ এবং অপরটি জম্মু-কাশ্মির। ভারতের এই সিদ্ধান্তের পর বিতর্ক কম হয়নি। দেশটির বিরোধীরা এর প্রতিবাদ করেছেন। দেশের বাইরেও এর প্রভাব পড়েছে। পাকিস্তান গোড়া থেকেই এর প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে।
আন্তর্জাতিক মঞ্চে এ বিষয়ে একাধিক প্রস্তাব গ্রহণের আবেদন জানিয়েছে ইমরান খানের সরকার। কিন্তু জাতিসঙ্ঘ থেকে শুরু করে একাধিক মঞ্চে পাকিস্তানের আবেদন সেভাবে গুরুত্ব পায়নি। জাতিসঙ্ঘে চীনের সমর্থনে পাকিস্তান কাশ্মির প্রসঙ্গ উত্থাপনের একাধিক চেষ্টা করলেও তা বিশেষ কার্যকরী হয়নি। পরবর্তীকালে পাকিস্তানের পাশে দাঁড়িয়েছে তুরস্ক। ভারতের কাশ্মির নীতির নিন্দা করেছেন এরদোগান। আরব বিশ্বেও কাশ্মির নিয়ে আলোচনা হয়েছে। সম্প্রতি আরবের জি-২০ নোটে ভারতের যে মানচিত্র ব্যবহার করা হয়েছে, সেখানে কাশ্মিরকে বাদ দেয়া হয়েছে। বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, সাম্প্রতিক সময়ে ওআইসির বৈঠকে কাশ্মির প্রসঙ্গে প্রস্তাব গ্রহণ অভূতপূর্ব ঘটনা।



আরো সংবাদ


আসন্ন বাজেটের জন্য একগুচ্ছ প্রস্তাব আইবিএফবির বিশ্বে শান্তি ফিরিয়ে আনতে মাইজভাণ্ডারীর দর্শনই হতে পারে নিয়ামক শক্তি : সাইফুদ্দীন আহমদ আল-হাসানী সাবেক শিক্ষক নুরুলের মৃত্যুতে রাজশাহী মহানগর জামায়াতের শোক গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় ৬৯’র মতো গণ-অভ্যুত্থান প্রয়োজন : জাগপা তিন বিষয়ে প্রমোশনের দাবিতে সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের অনশন পি কে হালদারের আরো দুই সহযোগী গ্রেফতার সরকারের দুর্নীতি-লুটপাট থেকে জনদৃষ্টি ভিন্ন দিকে নিতে অপপ্রচার : জামায়াত প্রতিরক্ষা খাতের পেনশন সহজীকরণে নতুন কার্যালয় উদ্বোধন বাবুল চিশতী ও ছেলে রাশেদুল চিশতী গ্রেফতার গাজীপুরে কর্মচারীকে ধর্ষণের অভিযোগে কারখানার মালিক গ্রেফতার কমলাপুরে পোশাক কারখানায় আগুন

সকল