২৭ নভেম্বর ২০২০

মেঘনায় জেলেদের হামলায় এএসপিসহ ১৫ নৌপুলিশ আহত

-

চাঁদপুরের মেঘনায় জেলেদের হামলায় এএসপিসহ ১৫ নৌপুলিশ আহত হয়েছে। গতকাল দুপুরে চাঁদপুর সদর উপজেলার রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের মেঘনা নদীর লক্ষ্মীরচর এলাকায় নৌপুলিশ নদীতে অভিযান চালায়। এ সময় নদীতে অবাধে মাছ ধরার সময় সাত জেলেকে আটক করে পুলিশ।
খবর পেয়ে জেলেরা সঙ্ঘবদ্ধ হয়ে ইটপাটকেল ও বিভিন্ন লাঠিসোটা নিয়ে পুলিশের ওপর হামলা চালায়। হামলায় নৌপুলিশের সদর দফতরের সহকারী দুই পুলিশ সুপারসহ ১৫ জন নৌপুলিশ সদস্য গুরুতর আহত হন। পুলিশ আত্মরক্ষার্থে প্রায় অর্ধশত রাউন্ড শর্টগান ও টিয়ার শেলের ফাঁকা গুলি ছুড়ে। অভিযানে থাকা পুলিশ সদস্যরা আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।
আহতরা হলেনÑ ঢাকা নৌপুলিশ সদর দফতরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হেড কোয়ার্টার ফরিদা পারভীন (৩৬), অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হেলাল উদ্দীন, ইন্সপেক্টর মুজাহিদুল ইসলাম, এসআই ইলিয়াস (৩০), নায়েক ইকবাল হোসেন, নায়েক শাহ জালাল, প্রসেনজিৎ (২৪), কনস্টেবল আল মামুন (২৮), ফেরদৌস শেখ (২৬), নীলয় দেব (২৫), আলামিন (২৫), কাউসার (৩০), মোনায়েম (২৬)। এ ছাড়াও আরো বেশ কিছু নৌপুলিশ কমবেশি আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।
মেঘনা নদীতে মা ইলিশ রক্ষা অভিযানে আসা ঢাকা নৌপুলিশ হেড কোয়ার্টারের শত সদস্যের একটি টিম গত শনিবার থেকে চাঁদপুর ও শরীয়তপুরের জাজিরা এলাকায় জাহাজ, স্পিড বোর্ড ও হেলিকপ্টার নিয়ে অভিযান চালায়। অভিযানের টিম রোববার দুপুরে চাঁদপুরের মেঘনা নদীর লক্ষ্মীরচর স্থানে এলে এ ঘটনা ঘটে।
আহত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরিদা পারভিন জানান, গত শনিবার বিকেলে ঢাকা নৌপুলিশ হেডকোয়ার্টার থেকে নৌপুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরিদা পারভিনসহ শত সদস্যের একটি টিম নিয়ে মা ইলিশ রক্ষা অভিযানে নামেন। অভিযানের টিম চাঁদপুরের মেঘনা নদীর লক্ষ্মীরচরে সাতজন জেলেকে আটক করে। এ সময় জেলেরা সঙ্ঘবদ্ধ হয়ে পুলিশের ওপর একজোট হয়ে তাদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। জেলেরা ইটপাটকেল ও বিভিন্ন লাঠিসোটা নিয়ে পুলিশ সদস্যদের ওপর হামলা চালালে তারা মারাত্মক ভাবে আঘাত প্রাপ্ত হয়। অভিযানে থাকা অন্যান্য পুলিশ সদস্যরা আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসেন। পুলিশ আত্মরক্ষার্থে প্রায় অর্ধশত রাউন্ড শর্টগান ও টিয়ার শেলের ফাকা গুলি ছুরে।
আহত ইন্সপেক্টর মুজাহিদ জানান, ঢাকা হেডকোয়ার্টার থেকে প্রায় শতাধিক পুলিশ সদস্য ও প্রশাসনিক কর্মকর্তা নিয়ে শরীয়তপুর জেলায় অভিযানে আসেন। সেখান থেকে ফিরে যাওয়ার পথে চাঁদপুরের মেঘনা নদীর লক্ষ্মীরচর স্থানে গেলে তারা দেখেন যে মেঘনা নদীতে অনেক জেলে মা ইলিশ নিধন করছে। এ সময় তারা বিভিন্ন স্পিডবোট এবং ইঞ্জিনচালিত নৌকা ও জেলেদেরকে আটক করেন। পরবর্তীতে ওই এলাকার সমস্ত জেলেরা একজোট হয়ে তাদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। এ দিকে এমন হামলার ঘটনার খবর পেয়ে চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশ সদস্যরা হাসপাতালে ছুটে এসে আহতদের কাছ থেকে ঘটনার সম্পর্কে খোঁজখবর নেন এবং তাদের চিকিৎসার ক্ষেত্রে সহযোগিতা করেন।


আরো সংবাদ