২৮ অক্টোবর ২০২০

সাংগঠনিক কার্যক্রম শুরু করার সিদ্ধান্ত বিএনপির

-

করোনা মহামারীর কারণে ৫ মাস বন্ধ রাখার পর কমিটি গঠনসহ সাংগঠনিক কার্যক্রম শুরু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি।
গত শনিবার রাতে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সভাপতিত্বে স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয় বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশসহ বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারী এখনো বিরাজমান। বাস্তবতার নিরিখে দলীয় কার্যক্রমের অগ্রগতির জন্য সাংগঠনিক কার্যক্রম ও সাংগঠনিক কমিটি গঠন ও পুনর্গঠন কার্যক্রম পুনরায় চালু করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। সারা দেশের নেতাকর্মীদের প্রতি পরামর্শ দিয়ে বলা হয়েছে যে, নেতাকর্মীদের সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার স্বাস্থ্য বিধি মেনে সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে।
গত ২৫ মার্চ বাংলাদেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের প্রাদুর্ভাব দেখা দিলে বিএনপি দলের সর্ব প্রকার এক মাসের জন্য সাংগঠনিক কার্যক্রম তথা কমিটি গঠন ও পুনর্গঠনের কাজ স্থগিত ঘোষণা করে। এরপর পর্যায়ক্রমে এই স্থগিতাদেশ বর্ধিত করা হয় দফায় দফায়। সর্বশেষ ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এই স্থগিতাদেশ ছিল।
বিএনপির স্থগিতাদেশ থাকলেও ইতোমধ্যে যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, মহিলা দল, কৃষক দল, ছাত্রদল প্রভৃতি অঙ্গসংগঠন গত আগস্ট মাস থেকে মাঠপর্যায়ের কমিটি গঠনের কাজ শুরু করে দিয়েছে।
কমিটি গঠনের ওপর স্থগিতাদেশ উঠিয়ে নেয়ার পর শনিবার রাতেই জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের ১৪৯ সদস্যের কেন্দ্রীয় কমিটি (আংশিক) অনুমোদন দেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
সন্ধ্যায় তারেক রহমানের সভাপতিত্বে স্থায়ী কমিটির ভার্চুয়াল বৈঠকে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মওদুদ আহমদ, জমির উদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, সেলিমা রহমান ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু উপস্থিত ছিলেন।

 


আরো সংবাদ