২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

প্রজন্মগত বিপর্যয়ের মুখে বিশ্ব

যুক্তরাষ্ট্রে গ্রামাঞ্চলেও ছড়াচ্ছে করোনা; অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে কারফিউ জারি; বহু বিমানের ঠাঁই হয়েছে মরুভূমিতে; ভারতে ৬ দিন ধরে শনাক্ত ৫০ সহস্রাধিক
-

আক্রান্ত : ১,৮৫,১০,১১৭ মৃত্যু : ৬,৯৮,৯০১
দেশ আক্রান্ত মৃত্যু
যুক্তরাষ্ট্র ৪৮,৭০,৯৭৩ ১,৫৯,২৬১
ব্রাজিল ২৭,৫১,৬৬৫ ৯৪,৭০২
ভারত ১৮,৭৮,৩৮২ ৩৯,১৮৮
রাশিয়া ৮,৬১,৪২৩ ১৪,৩৫১
দ. আফ্রিকা ৫,১৬,৮৬২ ৮,৫৩৯
মেক্সিকো ৪,৪৩,৮১৩ ৪৮,০১২
পেরু ৪,৩৩,১০০ ১৯,৮১১
চিলি ৩,৬১,৪৯৩ ৯,৭০৭
স্পেন ৩,৪৪,১৩৪ ২৮,৪৭২
কলম্বিয়া ৩,২৭,৮৫০ ১১,০১৭
করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে স্কুল বন্ধ থাকা বিশ্ব এক ‘প্রজন্মগত বিপর্যয়ের’ মুখে রয়েছে। শিক্ষার্থীদেরকে নিরাপদে শ্রেণিকক্ষে ফিরিয়ে নেয়াই হবে এখনকার ‘অন্যতম শীর্ষ অগ্রাধিকার’। মঙ্গলবার ভিডিও কনফারেন্সে জাতিসঙ্ঘের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এসব কথা বলেন জাতিসঙ্ঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস।
গুতেরেজ বলেন, ‘জুলাইয়ের মাঝামাঝি নাগাদ ১৬০টি দেশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এর কারণে প্রায় ১০০ কোটি শিক্ষার্থীর পড়াশোনা ব্যাহত হয়েছে; অন্তত চার কোটি শিশুর জীবন থেকে প্রি-স্কুল হারিয়ে গেছে। এ ছাড়া মহামারী শুরুর আগেই ২৫ কোটির বেশি শিশু স্কুল থেকে ঝরে পড়েছে। আর উন্নয়নশীল দেশের মাত্র চতুর্থাংশ শিক্ষার্থীর মৌলিক দক্ষতা অর্জিত হয়েছে। এখন আমরা মুখোমুখি হয়েছি এক প্রজন্মগত বিপর্যয়ের, যা না বলা মানবিক সম্ভাবনাকে নষ্ট করে দিতে পারে, কয়েক দশকের প্রগতিকে নস্যাৎ করে দিতে পারে এবং সমাজে প্রোথিত অসমতা পরিস্থিতিকে আরো খারাপের দিকে নিয়ে যেতে পারে।’
জাতিসঙ্ঘ মহাসচিব বলেন, কোভিড-১৯ এর স্থানীয় সংক্রমণ যখনই নিয়ন্ত্রণে আসবে তখনই যতটা নিরাপদে সম্ভব স্কুল শিক্ষার্থীদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফিরিয়ে নেয়া হবে অন্যতম প্রধান কাজ। এ জন্য অভিভাবক, বাহক, শিক্ষক ও তরুণদের আলোচনা করা জরুরি। খবর রয়টার্স, আনন্দবাজার পত্রিকা, এএফপি, সিএনবিসি, এই সময়, ইন্টারফ্যাক্স, ডয়েচে ভেলে, এনডিটিভি, বিবিসি বাংলা, ওয়ার্ল্ডওমিটার ও বিবিসির।
করোনার কোনো সহজ সমাধান নেই : এই মুহূর্তে করোনাভাইরাস মোকাবেলার কোনো সহজ ও জাদুকরী সমাধান নেই এবং হয়তো কোনো দিন পাওয়া যাবে না। স্বাভাবিকতায় ফেরার পথ হবে দীর্ঘ। জনগণ এবং বিভিন্ন দেশের সরকারের কাছে আমাদের পরিষ্কার বার্তা: সবাই সাধারণ জনস্বাস্থ্য সুরক্ষার নিয়মগুলো পালন করুন। মুখে মাস্ক পরাটা বিশ্বজুড়ে সংহতির প্রতীক হয়ে ওঠা উচিত। করোনা পরীক্ষা, আইসোলেশন ও রোগীর চিকিৎসা, রোগী সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের শনাক্ত করা ও তাদের পৃথক রাখতে হবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান তেদরোস আধানম গেব্রিয়াসিস সোমবার জেনেভায় এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেছেন। বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনা মহামারীর প্রভাব ভবিষ্যতে অনেক বছর পর্যন্ত থেকে যেতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশের পর গেব্রিয়াসিস বলেন, ‘সম্ভাব্য বেশ কয়েকটি টিকা এখন পরীক্ষামূলক প্রয়োগের তৃতীয় পর্যায়ে আছে। বেশ কয়েকটি কার্যকর টিকা পাওয়ার ব্যাপারে আমরা আশাবাদী। এসব টিকা মানুষকে সংক্রমণ থেকে রক্ষার ব্যাপারে সহায়তা করতে পারে। যদিও করোনাভাইরাস নিয়ে গবেষণায় অগ্রগতি হয়েছে, তারপরও অনেক প্রশ্নের উত্তর এখনো মেলেনি, মানুষ এখনো ঝুঁকিতে থেকে গেছে।’
যুক্তরাষ্ট্রে গ্রামাঞ্চলেও ছড়াচ্ছে করোনা : যুক্তরাষ্ট্রে শহরের পাশাপাশি গ্রামাঞ্চলেও সমানভাবে করোনাভাইরাস ছড়াচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন হোয়াইট হাউজ করোনা টাস্কফোর্স দলের প্রধান ডা: দেবোরাহ বার্কস। যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাস মহামারীর নতুন পর্যায়ে প্রবেশ করেছে। তিনি বলেন, দেশের বিস্তৃত গ্রামীণ ও শহর; উভয় অঞ্চলেই করোনাভাইরাসের প্রকোপ বাড়ছে, যা ভাইরাসের শুরুর তুলনায় ভিন্ন আঙ্গিকে এবং আরো মারাত্মক। আজ আমরা যে পর্যায়টি দেখছি তা গত মার্চ এবং এপ্রিলের চেয়ে আলাদা এবং আরো মারাত্মকভাবে বিস্তৃত। গ্রামাঞ্চলের মানুষজনও কোভিড-১৯ থেকে নিরাপদ নয় এবং তাদেরকে অবশ্য মাস্ক পরতে হবে ও সামাজিক দূরত্ব অনুশীলন করতে হবে।
অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে কারফিউ জারি : অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম জনসংখ্যাবহুল রাজ্য ভিক্টোরিয়ায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় সেনা মোতায়েন করা হচ্ছে। মঙ্গলবার এ সিদ্ধান্ত জানিয়েছে রাজ্যটির কর্তৃপক্ষ। করোনার ভয়াবহতায় আগের দিন ভিক্টোরিয়াকে দুর্যোগপূর্ণ ঘোষণার পাশাপাশি রাজ্যজুড়ে লকডাউন আরোপ করা হয়। সেই লকডাউন কার্যকরে সেনা মোতায়েনের সাথে যারা কোয়ারেন্টিন মানবে না তাদের জরিমানাও করা হবে। দেশটি লকডাউন শিথিল করার পর থেকেই বিশেষ করে অন্যতম বড় শহর মেলবোর্নসহ ভিক্টোরিয়া রাজ্যে কয়েক সপ্তাহ ধরে করোনার সংক্রমণ বেড়েছে। সোমবার এক দিনেই ভিক্টোরিয়া রাজ্যে আক্রান্ত হয়েছে ৪৩৯ জন আর প্রাণহানি ঘটেছে ১১ জনের। এমন পরিস্থিতিতে রাজ্যের প্রধানমন্ত্রী ড্যানিয়েল অ্যান্ড্রুজ জানান, করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে ভিক্টোরিয়াকে ‘দুর্যোগের রাজ্য’ ঘোষণা করা হয়েছে। রাজ্যের রাজধানী মেলবোর্নে রাত্রিকালীন কারফিউ জারি করা হয়েছে। বাসিন্দাদের নতুন বিধিনিষেধ মেনে চলাচল করতে বলা হয়েছে।
করোনা ক্ষতি করে হার্টেরও : করোনাভাইরাস শুধু শ্বাসযন্ত্রের নয়, ক্ষতি করে অন্যান্য অঙ্গেরও। তার মধ্যে অন্যতম হৃদযন্ত্র- সাম্প্রতিক দু’টি সমীক্ষা তেমনই বলছে। ‘জেএএমএ কার্ডিওলজি’তে প্রকাশিত দু’টি সমীক্ষায় দাবি করা হয়েছে, কোভিড-১৯ থেকে সেরে ওঠার পরও হৃদযন্ত্রে এর প্রভাব দীর্ঘদিন থেকে যেতে পারে। নিউ ইয়র্ক: করোনাভাইরাস শুধু শ্বাসযন্ত্রের নয়, ক্ষতি করে হৃদযন্ত্রেরও। করোনায় যত মানুষ মারা যান, তাদের অনেকেরই মৃত্যুর কারণ কার্ডিয়াক সংক্রমণ। নিউ ইয়র্কের ‘ওমেন্স হার্ট প্রোগ্রামে’র মেডিক্যাল ডিরেক্টর নিয়েকা গোল্ডবার্গ বলেন, ‘করোনার প্রভাবে হৃদযন্ত্রে প্রদাহ, রক্ত জমাট বাঁধার মতো সমস্যা হতে পারে। সংক্রমণের কারণে হৃদযন্ত্রের পেশি দুর্বল হয়ে যাওয়া এবং প্রদাহ কার্ডিয়াক অ্যারেস্টের পরিস্থিতি তৈরি করতে পারে। তা ছাড়া, রক্ত জমাট বেঁধে ধমনীতে সংবহনের সমস্যাও হতে পারে।’
ভারতে ৬ দিন ধরে শনাক্ত ৫০ সহস্রাধিক : ভারতে টানা ৬ দিন ধরেই ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমণের সংখ্যা ৫০ হাজারের ওপরে থাকছে। মঙ্গলবারও তার ব্যতিক্রম হলো না। দেশটিতে করোনায় আক্রান্তের মোট সংখ্যা ১৮,৫৫,৭৪৬ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন আরো ৫২৯৭২ জন। এক দিনে মৃত্যু হয়েছে আরো ৮০৩ জনের। এখনো চিকিৎসাধীন ৫,৮৬,২৯৮ জন। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১২,৩০,৫১০ জন। দেশে সুস্থতার হার ৬৫.৭৭ শতাংশ। মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩৮,৯৩৮। মৃতের হার ২.১১ শতাংশ। এ দিকে ভারতে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সবচেয়ে সংক্রামক ধরন ‘এ২এ’ হ্যাপ্লোটাইপ। ভারতের বিজ্ঞানীরা করোনার ১,০০০টি জিনোম সিকোয়েন্স করে এ চিত্র পেয়েছেন। করোনার ‘এ২এ’ হ্যাপ্লোটাইপ সবচেয়ে বেশি ছড়িয়ে পড়েছে। তা ভারতে এসেছে মূলত ইউরোপ থেকে, করোনার উৎস চীন থেকে সরাসরি নয়।
ব্রিটেনে ৯০ মিনিটে ভাইরাস পরীক্ষা : যুক্তরাজ্যে দ্রুত করোনাভাইরাস পরীক্ষার ফল পেতে ৯০ মিনিটেই ভাইরাস এবং ফ্লু শনাক্ত করার নতুন পরীক্ষা আগামী সপ্তাহ থেকে শুরু হচ্ছে হাসপাতাল এবং কেয়ার হোমগুলোতে। বর্তমানে যুক্তরাজ্যে ভাইরাস পরীক্ষার এক-তৃতীয়াংশেরই ফল আসতে ২৪ ঘণ্টার বেশি সময় লেগে যায়। হোম কিট দিয়ে পরীক্ষার ক্ষেত্রে ফল আসতে আরো দেরি লাগে। সেদিক থেকে নতুন পরীক্ষায় ফল মিলবে ৯০ মিনিটেই। এই ‘অন-দ্য-স্পট’ সোয়াব ও ডিএনএ পরীক্ষা কোভিড-১৯ এবং ঋতু পরিবর্তনকালীন অন্যান্য ফ্লু আলাদা করে শনাক্ত করার কাজে সহায়ক হবে। ল্যাম্পোর নামক নতুন র্যাপিড সোয়াব টেস্ট আগামী সপ্তাহ থেকেই শুরু হবে।
মহামারীর সবচেয়ে ভয়াবহ মাস ছিল জুলাই : করোনাভাইরাস মহামারীতে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে খারাপ মাস ছিল জুলাই। জুলাই মাসে বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৮০ লাখের বেশি। যা মহামারী শুরুর প্রথম ছয় মাসের প্রায় সমান। যুক্তরাষ্ট্রে জুলাই মাসে রেকর্ড সংখ্যা ১৮ লাখ ৭০ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। এর আগে এপ্রিলে দেশটিতে আক্রান্তের রেকর্ড ছিল ৮ লাখ ৬০ হাজার। জুলাইয়ে তা প্রায় দ্বিগুণ হয়েছে। মে মাসে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৬ লাখ ৯০ হাজার ২০০, জুনে ছিল ৮ লাখ ২০ হাজার। করোনায় আক্রান্তের নিরিখে তৃতীয় সর্বোচ্চ সংক্রমিত ভারতে। জুলাইয়ে দেশটিতেও আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে। ভারতের মোট আক্রান্তের মধ্যে ১১ লাখ গত চার সপ্তাহে শনাক্ত হয়েছেন। ব্রাজিলের মোট আক্রান্ত ২৭ লাখের মধ্যে ১২ লাখ শনাক্ত হয়েছেন জুলাই মাসে। দক্ষিণ আফ্রিকায় জুলাই মাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ। জুন মাসে এই সংখ্যা ছিল ১ লাখ ১৬ হাজার।
করোনার চিকিৎসায় আশাবাদী ড. ফাউচি : করোনা মোকাবেলায় প্রযুক্তিনির্ভর অ্যান্টিবডি-থেরাপিভিত্তিক এক নতুন চিকিৎসা পদ্ধতির কার্যকারিতা নিয়ে আশাবাদী হয়ে উঠেছেন বিজ্ঞানীরা। করোনা প্রতিরোধে মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি থেরাপির সাফল্যের ব্যাপারে ‘অনেকটাই নিশ্চিত’ যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রমণ রোগ বিশেষজ্ঞ ও হোয়াইট হাউজের করোনা টাস্কফোর্সের সদস্য ড. অ্যান্থনি ফাউচি। যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ বিজ্ঞানীরা এই মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি উন্নয়নে কাজ করছেন। ড. ফাউচি বলেছেন, এই অ্যান্টিবডি যে কোভিড-১৯ প্রতিরোধে সক্ষম হবে সে ব্যাপারে তিনি ‘অনেকটাই নিশ্চিত’। যখন ভাইরাস শরীরে আক্রমণ করে তখন কিছু লক্ষণ দেখা দেয়। শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হলে এই ভাইরাসকে প্রতিরোধ করতে পারে। অ্যান্টিবডি ভাইরাস না ছড়াতে পারে সে বিষয়টি প্রতিরোধ করে। মার্কিন বিজ্ঞানীরা করোনা মোকাবেলায় যে মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডির উন্নয়ন ঘটাচ্ছেন, তা আসলে প্রাকৃতিক প্রতিরক্ষামূলক প্রোটিনেরই অনুলিপি হবে।
ব্রাজিলের প্রেসিডেন্টের চিফ অব স্টাফ আক্রান্ত : লাতিন আমেরিকার দেশগুলোর মধ্যে এখন পর্যন্ত ব্রাজিলেই আক্রান্ত ও মৃত্যু সবচেয়ে বেশি। ব্রাজিলের প্রেসিডেন্টের চিফ অব স্টাফ ওয়াল্টার ব্রাগা নেটো করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তার কার্যালয় থেকে জানানো হয়েছে যে, সোমবার তার দেহে-পরীক্ষা নিরীক্ষার পর করোনা পজিটিভ ধরা পড়েছে। করোনা মহামারী শুরুর পর এ নিয়ে ব্রাজিলের সাতজন মন্ত্রী করোনায় আক্রান্ত হলেন। ওয়াল্টারের কার্যালয় থেকে জানানো হয়েছে যে, তার দেহে করোনার তেমন কোনো উপসর্গ ধরা পড়েনি এবং তিনি ভালো আছেন।
বহু বিমানের ঠাঁই হয়েছে মরুভূমিতে : করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে কোনো কোনো এয়ারলাইন তাদের অনেক উড়োজাহাজ বিশ্বের একেবারে প্রত্যন্ত এলাকায় উড়িয়ে নিয়ে গিয়ে সেখানে অনির্দিষ্টকালের জন্য বসিয়ে রেখেছে। গত মাসে অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় এয়ারলাইন্স কোয়ান্টাস তাদের সর্বশেষ বোয়িং ৭৪৭ বিমানটিকেও সিডনি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় মোহাভি মরুভূমিতে পাঠিয়ে দিয়েছে। বিমানটি আকাশে উড়ছিল প্রায় অর্ধ শতাব্দীকাল ধরে আর এতে চড়েছে ২৫ কোটিরও বেশি মানুষ। কোয়ান্টাস তাদের এ-৩৮০ সুপার জাম্বো বিমানগুলোকেও অন্তত ২০২৩ সাল পর্যন্ত মোহাভি মরুভূমিতে ফেলে রাখার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে। এভিয়েশনবিষয়ক লন্ডনভিত্তিক একটি কোম্পানি সিরিয়ামের হিসেবে এপ্রিল মাসে সারা বিশ্বে ১৪ হাজারেরও বেশি যাত্রীবাহী বিমান বসিয়ে রাখা হয়েছিল। সারা বিশ্বে যত বিমান চলাচল করে এই সংখ্যা তার দুই- তৃতীয়াংশ।
নরওয়ের এক প্রমোদতরীর ৪১ জন আক্রান্ত : নরওয়ের একটি প্রমোদতরীর কমপক্ষে ৪১ জন যাত্রীর দেহে করোনার উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে। এমএস রোল্ড আমান্ডসেন নামে ওই প্রমোদতরীটির আরো শত শত যাত্রী কোয়ারেন্টিনে আছেন। করোনা পরীক্ষার ফলাফলের জন্য অপেক্ষা করছেন তারা। নরওয়েজিয়ান ফার্ম হার্টিগ্রুটেন নামের কোম্পানির মালিকানাধীন ওই প্রমোদতরীটি শুক্রবার নরওয়ের উত্তরাঞ্চলের ট্রোমসো নামক বন্দরে নোঙর করে। প্রাদুর্ভাবের শঙ্কায় এরপর কোম্পানিটি তাদের সব প্রমোদতরীর চলাচল বন্ধ করে রেখেছে। হার্টিগ্রুটেনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড্যানিয়েল স্কেলডাম সোমবার এক বিবৃতিতে বলেন, এর সাথে জড়িত সবার জন্য এটা একটা ভয়ানক পরিস্থিতি। নরওয়ের সরকার ঘোষণা করেছে যে, শতাধিক যাত্রী বহনকারী প্রমোদতরীগুলো যেন কমপক্ষে ১৪ দিনের জন্য যাত্রীদের নামানো বন্ধ করে দেয়া হবে।
করোনাকালে অর্থকষ্টে তরুণরা : করোনাকালে সবচেয়ে বেশি অর্থকষ্টে পড়েছেন তরুণরা। জার্মানিতে ত্রিশের কাছাকাছি বয়সের মানুষই করোনাকালে বেশি আর্থিক সঙ্কটে ভুগছেন। আর্থিক সঙ্কটে পড়া মানুষদের শতকরা ৩৮ ভাগই এই বয়স শ্রেণীর। তবে মহামারীর কারণে মানসিক চাপে বেশি রয়েছেন নারীরা। জার্মানিতে করোনা সঙ্কটের প্রভাব নিয়ে করা এক সমীক্ষায় এ তথ্য উঠে এসেছে। সমীক্ষা থেকে উঠে আসা নানা দিক এক প্রতিবেদনের মাধ্যমে তুলে ধরেছে জার্মানির ওষুধ উৎপাদকদের সংস্থা বিএএইচ। বিএএইচ-এর হয়ে সমীক্ষাটি করেছে বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান নিয়েলসেন।
করোনা নিয়ে উদ্বেগে নির্বাচন পেছাল হংকং : করোনাভাইরাস সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় এর বিস্তার নিয়ে উদ্বেগের মধ্যে ৬ সেপ্টেম্বরের পার্লামেন্ট নির্বাচন এক বছরের জন্য পিছিয়ে দিয়েছে হংকং সরকার। হংকং জানুয়ারির পর থেকে মহামারীর ‘সবচেয়ে খারাপ সময়’ পাড়ি দিচ্ছে জানিয়ে নেতা ক্যারি লাম বলেছেন, জনস্বাস্থ্য সুরক্ষার স্বার্থে নির্বাচন পেছানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। নির্বাচনে বড় ধরনের লোকসমাগম থেকে সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতেই এটি প্রয়োজন। হংকংয়ে সম্প্রতি কোভিড-১৯ সংক্রমণ বেড়ে গেছে। সেপ্টেম্বরের নির্বাচনে হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থী শিবিরের বড় ধরনের জয়লাভের আশা ছিল। সরকারের নির্বাচন পেছানোর সিদ্ধান্ত তাদের জন্য একটি বড় ধাক্কা।
কসোভোর প্রধানমন্ত্রী আবদুল্লাহ হোটি আক্রান্ত : পূর্ব ইউরোপের দেশ কসোভোর প্রধানমন্ত্রী আবদুল্লাহ হোটির দেহে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। ফেসবুক পেজে দেয়া এক পোস্টে মধ্য ডানপন্থী এ নেতা নিজেই নিজের কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেছেন। ‘হালকা কাশি ছাড়া আমার আর কোনো উপসর্গ নেই,’ বলেছেন তিনি। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় আগামী দুই সপ্তাহ নিজের বাসভবনে আইসোলেশনে থাকবেন বলেও হোটি জানিয়েছেন। সাম্প্রতিক দিনগুলোতে কসোভোয় সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি দেখা যাচ্ছে।


আরো সংবাদ

সৌদি রাজতন্ত্রকে চ্যালেঞ্জ করে সৌদি আরবে বিরোধী দল গঠন (১৫৮৮২)ধর্ষণ মামলা : ফেসবুকে যা বললেন হাসান আল মামুন (১২০৭৮)সীমান্তে মাইন, মুংডুতে ৩৪ ট্যাংক (৯৩৩৪)কেন বন্ধু প্রতিবেশীরা ভারতকে ছেড়ে যাচ্ছে? (৯২১৬)শিক্ষার্থীদের অটো প্রমোশন হবে না : শিক্ষা বোর্ড (৯১৩৮)মালয় রাজনীতিতে নতুন ঝড় : প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন আনোয়ার? (৮০৭২)শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পূর্বপ্রস্তুতি নিতে পরিপত্র জারি (৭৬৮৬)এরদোগান কেন বারবার নানা মঞ্চে কাশ্মির প্রশ্ন তুলছেন? (৭৪৯৬)ঢাকা-দিল্লি সম্পর্কের অবনতি, মোদিকে দুষলেন রাহুল (৭৩১৫)দেশের জন্য আমি জীবন উৎসর্গ করলেও আমার বাবার আরো দুটি ছেলে থাকবে : ভিপি নূর (৭০৬৬)