০৮ আগস্ট ২০২০

ভারতে আক্রান্ত সাড়ে ৮ লাখ ছাড়াল

কুয়েত ছাড়তে হবে ১৫ লাখ প্রবাসীকে; ব্রিটেনে শনাক্তের ৭৮ শতাংশই উপসর্গহীন; যুক্তরাষ্ট্রে এক দিনে ৬৯ হাজার রোগী শনাক্ত; করোনা ঠেকাতে বিয়ে বন্ধ ইরানে; ব্রাজিলে মৃত্যু ৭১ হাজার ছাড়াল
-
24tkt

ভারতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা হু হু করে বাড়ছেই। এক দিনেই দেশটিতে নতুন করে প্রায় ২৯ হাজার মানুষ প্রাণঘাতী এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন আরো ২৮ হাজার ৬৩৭ জন। এটি দেশটিতে এক দিনে শনাক্তের সর্বোচ্চ রেকর্ড।
ফলে এখন পর্যন্ত দেশটিতে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ৮ লাখ ৫০ হাজার ৮২৭। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে মারা গেছেন ৫৫১ জন। এখন পর্যন্ত ভারতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন মোট ২২ হাজার ৬৯৬ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৯ হাজার ২৩৫ জন। ফলে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৫ লাখ ৩৬ হাজার ৩১৪ জন। অর্থাৎ সুস্থতার হার ৬২ দশমিক ৯৩ শতাংশ।
দেশটিতে করোনার অ্যাকটিভ কেস ২ লাখ ৯২ হাজার ২৫৮টি। মোট সংক্রমণ ও মৃত্যুর বেশির ভাগই মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, দিল্লি, কর্নাটক এবং অন্ধ্র প্রদেশে। মহারাষ্ট্র রাজ্যে ৮ হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছেন। ২ লাখ ৪৬ হাজার ৬০০ জনের করোনা পজিটিভ হয়েছে। ২২৩ জনের মৃত্যুতে রাজ্যটিতে প্রাণহানি ১০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। আক্রান্তের সংখ্যায় তাদের পরে আছে তামিলনাড়ু ও দিল্লি। শুক্রবার ভারতে কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা ৮ লাখ অতিক্রম করে। খবর ফক্স নিউজ, স্কাই নিউজ, বিবিসি, এনডিটিভি, সিএনএন, আরব নিউজ, ব্লুমবার্গ, আরব টাইমস, আল জাজিরা, রয়টার্স, দ্য ইকোনমিস্ট, ওয়াল্ডোমিটারস, ডন ও ওয়াশিংটন পোস্টের।
যুক্তরাষ্ট্রে এক দিনে ৬৯ হাজার রোগী শনাক্ত : গত পাঁচ দিনের মধ্যে চার দিনই যুক্তরাষ্ট্রে নতুন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছে ৬০ হাজারের বেশি। শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ৬৯ হাজার নতুন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এ দিন আলাস্কা, জর্জিয়া, আইডাহো, আইওয়া, লুইজিয়ানা, মনটেনা, ওহাইও, ইউটাহ ও উইসকনসিনÑ নয় রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণ শনাক্তের নতুন রেকর্ড হয়েছে। শনিবার পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৬৬ হাজার ৫২৮ জন। এক দিনে মৃত্যু হয়েছে ৭৬০ জনের। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩৩ লাখ ৫৫ হাজার ৬৪৬। মারা গেছেন ১ লাখ ৩৭ হাজার ৪০৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৬১ হাজার ৭১৯ জন এবং মারা গেছেন ৭৩২ জন। করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৪ লাখ ৯০ হাজার ৪৪৬ জন। করোনার অ্যাকটিভ কেস ১৭ লাখ ২৭ হাজার ৭৯৭টি। আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছেন ১৫ হাজার ৮১৯ জন। যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি অঙ্গরাজ্যের সবগুলোতেই করোনার প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে; তবে আক্রান্ত ও মৃত্যুতে শীর্ষ অবস্থানে নিউ ইয়র্ক। সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লাখ ২৬ হাজার ৮০৭, মারা গেছেন ৩২ হাজার ৩৯৩ জন এবং সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২ লাখ ২৭ হাজার ৩৯১ জন। কারাগারে কোভিড-১৯ এর বিস্তারের গতি হ্রাস করতে ক্যালিফোর্নিয়া আট হাজার বন্দীকে মুক্তি দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে। ফ্লোরিডার ৪৮টিরও বেশি হাসপাতাল তাদের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রের (আইসিইউ) সব শয্যা রোগীতে ভরে গেছে। দেশটির রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র (সিডিসি) জানিয়েছে, দেশের করোনা আক্রান্ত ৪০ শতাংশ মানুষের এখন কোনো উপসর্গ দেখা যাচ্ছে না।
করোনার বিস্তার ঠেকাতে ইরানে বিয়ে বন্ধ : করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে বিয়ে ও লোকসমাগম হয় এমন সব সামাজিক অনুষ্ঠান নিষিদ্ধ করেছে ইরান। শনিবার টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক ভাষণে এ ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজন বন্ধের আহ্বান জানান দেশটির প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। তার পরপরই এক পুলিশ কর্মকর্তা রাজধানী তেহরানে বিয়ের মতো সব ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজন পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করেন। রুহানি বলেন, ‘আমাদের অবশ্যই দেশজুড়ে অনুষ্ঠান আয়োজন এবং গণজমায়েত বন্ধ করতে হবে। হোক সেটা অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া, বিয়ে বা পার্টি। এটা উৎসব বা সেমিনার আয়োজনের সময় নয়। চলতি বছর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষাও স্থগিত হতে পারে।’ ইরানের সরকারি কর্মকর্তাদের বিশ্বাস, এ ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজন থেকেই দেশে দ্বিতীয়বারের মতো করোনাভাইরাস সংক্রমণ উদ্বেগজনক হারে ছড়িয়ে পড়ছে।
ব্রাজিলে মৃত্যু ৭১ হাজার ছাড়াল : নতুন করোনাভাইরাস সংক্রমণে বিশ্বে যুক্তরাষ্ট্রের পর দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলে মৃত্যুর সংখ্যা ৭১ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। শনিবার দেশটিতে এক হাজার ৭১টি নতুন মৃত্যু রেকর্ড হয়েছে বলে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে। এই নিয়ে দেশটিতে করোনাভাইরাস সংক্রমণে সৃষ্ট রোগ কোভিড-১৯ এ মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৭১ হাজার ৪৬৯ জনে দাঁড়িয়েছে। এ দিন দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ছিল ১৮ লাখ ৩৯ হাজার ৮৫০ জন। ২১ কোটি জনসংখ্যার এ দেশটির প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারোও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।
প্রবাসীদের ভিসার মেয়াদ বাড়াবে না আমিরাত : করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে ভিসা জটিলতায় পড়া প্রবাসীদের সুবিধার্থে নেয়া বেশকিছু পূর্ব সিদ্ধান্ত বাতিল করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। যাদের ভিসার মেয়াদ মার্চের ১ তারিখ থেকে ৩১ তারিখে শেষ হয়েছে, তারা ডিসেম্বর পর্যন্ত বৈধ হিসেবে বসবাস করার সুযোগ পাচ্ছেন না। তিন মাসের মধ্যে তাদেরকে ভিসা নবায়ন করতে হবে। করোনাভাইরাসের কারণে গত ১ মার্চ থেকে ৩১ মার্চের মধ্যে যাদের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়েছে, তাদের মেয়াদ ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছিল। তবে আমিরাতের মন্ত্রিসভার নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এখন তিন মাসের মধ্যে তাদের ভিসা নবায়ন করতে হবে। পূর্ববর্তী সিদ্ধান্ত ছিল, যাদের ৩১ মার্চের আগে আইডি কার্ডের মেয়াদ ফুরিয়েছে তারা ৩১ ডিসেম্বর ২০২০ পর্যন্ত সুযোগ পাবেন। সেই সিদ্ধান্তও বাতিল করেছে মন্ত্রিসভা।
ব্রিটেনে শনাক্তের ৭৮ শতাংশই উপসর্গহীন : করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে যত জন বিশ্বে শনাক্ত হয়েছেন, সংক্রমিতের সংখ্যা তার চেয়ে অনেক বেশি বলে অনেক গবেষকের দাবিকে ভিত্তি দিচ্ছে যুক্তরাজ্যের তথ্য। দেশটির অফিস ফর ন্যাশনাল স্ট্যাটিসটিকসের (ওএনএস) বলছে, যত জনের দেহে নতুন করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব ধরা পড়েছে, তার ৭৮ শতাংশেরই নমুনা পরীক্ষার সময় কোনো উপসর্গ ছিল না। যার অর্থ উপসর্গহীন এমন অনেকে থাকতে পারেন, যারা ভাইরাস সংক্রমিত হলেও অসুস্থ না হওয়ায় নমুনা পরীক্ষা না করে স্বাভাবিক জীবনযাপনে রয়েছেন। অশনাক্ত এই ব্যক্তিরা আবার রোগ বহনের ঝুঁকিও তৈরি করছেন। শনাক্ত রোগীদের মধ্যে নমুনা পরীক্ষার সময় মাত্র ২২ শতাংশের রোগের লক্ষণ ছিল। নমুনা পরীক্ষার সময় ৭৮ শতাংশের কোনো উপসর্গ ছিল না।
ভিয়েতনামের সবচেয়ে গুরুতর রোগীও সুস্থ : ভিয়েতনামে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সবচেয়ে গুরুতর রোগীটিও সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরছেন। যুক্তরাজ্যের নাগরিক স্টেফেন ক্যামেরন পেশায় পাইলট। ৪৩ বছরের ক্যামেরন গত মার্চের শুরুর দিকে ভিয়েতনাম এয়ারলাইন্সের হয়ে যুক্তরাজ্য থেকে নিজের প্রথম ফ্লাইট নিয়ে দেশটিতে যান। তার তিন দিন পর জ্বরাক্রান্ত ক্যামেরন ভর্তি হন হাসপাতালে। ‘রোগী ৯১’ নামে পরিচিত ক্যামেরন এক পর্যায়ে এতটাই অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন যে তার ফুসফুস মাত্র ১০ শতাংশ কার্যক্ষম ছিল। শেষ পর্যন্ত চিকিৎসকদের দিন-রাত এক করে করা সেবায় সুস্থ হয়ে উঠতে শুরু করেন ক্যামেরন। জুনে তার লাইফ সাপোর্ট খুলে নেয়া হয়। শনিবার তিনি হাসপাতাল থেকে ছাড়া পান। ক্যামেরনের চিকিৎসায় দুই লাখ মার্কিন ডলারেরও বেশি অর্থ ব্যয় করেছে দেশটি।
অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে আদর্শ হতে পারে উহান : অর্থনৈতিক কার্যক্রম ফের চালুর তিন মাস পর উহানের বর্তমান অবস্থা আশা দেখাচ্ছে সারা বিশ্বকে। গত ৩১ ডিসেম্বর প্রথম করোনারোগী শনাক্তের পর ৮ এপ্রিল লকডাউন তুলে নেয়া ছিল শহরটির জন্য বেশ কঠিন সিদ্ধান্ত। লকডাউন তোলার পর থেকেই উহানে সামাজিক দূরত্বের কড়াকড়ি এবং শরীরের তাপমাত্রা মাপা হয়ে উঠেছে অনেকটাই নিয়মিত কার্যক্রম। তবে, গত মে মাসে সেখানে হঠাৎ করে আবারো সংক্রমণ বাড়তে শুরু করলে চাপে পড়ে কর্তৃপক্ষ। ফলে ফিরিয়ে আনা হয় নিষেধাজ্ঞা, মাত্র দুই সপ্তাহের মধ্যে নমুনা পরীক্ষা করা হয় শহরটির গোটা ১ কোটি ১০ লাখ বাসিন্দার। এরপর থেকে সেখানে আর করোনাভাইরাস সংক্রমণের খবর পাওয়া যায়নি। ৭৬ দিনের লকডাউনের পর বাইরে খাওয়া-দাওয়া বা শপিংয়ের অভ্যাস বদলে গেছে অনেকেরই। অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে উহান কর্তৃপক্ষ বেশ কিছু প্রণোদনা প্যাকেজ চালু করেছে। ৫০০ মিলিয়ন ইউয়ান শপিং ভাউচার ছাড়া হয়েছে, অনেক বাড়িতেই নগদ অর্থ সরবরাহ করা হয়েছে, ট্যাক্স ছাড় দেয়া হয়েছে চলতি বছরের শেষ নাগাদ। বিনিয়োগ টানতে উহান যে প্রদেশের রাজধানী সেই হুবেইতে মুক্ত-বাণিজ্য অঞ্চল বৃদ্ধির ঘোষণা দিয়েছে চীন সরকার।
কুয়েত ছাড়তে হবে ১৫ লাখ প্রবাসীকে : করোনাভাইরাস মহামারীতে সৃষ্ট অর্থনৈতিক সঙ্কটের কারণে এ বছর শেষ হওয়ার আগেই কুয়েত ছাড়তে হতে পারে ১৫ লাখ প্রবাসীকে। নতুন আবাসন আইন এবং সরকারি চাকরিতে কুয়েতিদের অগ্রাধিকার প্রক্রিয়ার কারণে এ বিপুলসংখ্যক প্রবাসী কুয়েতছাড়া হওয়ার শঙ্কায় পড়েছেন। ইতোমধ্যেই কুয়েত ছেড়ে গেছেন অন্তত ১ লাখ ৫৮ হাজার প্রবাসী। আর এত লোক ফিরেছেন মাত্র ১১৬ দিনের মধ্যে; গত ১৬ মার্চ থেকে ৯ জুলাইয়ের মধ্যে। কুয়েতে বসবাসকারী মিসর এবং ভারতের নাগরিকরাই সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। কুয়েতের মোট জনসংখ্যা ৪৩ লাখ, এর মধ্যে ৩০ লাখই অভিবাসী। অর্থাৎ, মোট জনসংখ্যার প্রায় ৭০ শতাংশই ভিন দেশের নাগরিক। কুয়েত সরকার জনসংখ্যাভিত্তিক ভারসাম্য রক্ষায় অভিবাসীর সংখ্যা পর্যায়ক্রমে ৩০ শতাংশে নামিয়ে আনবে।
চীনের ভ্যাকসিনের চূড়ান্ত পরীক্ষা চার দেশে : করোনার ভ্যাকসিন তৈরির দৌঁড়ে এগিয়ে থাকা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে অন্যতম চীনা কোম্পানি ক্যানসিনো বায়োলোজিসের সহ-প্রতিষ্ঠাতা শনিবার জানিয়েছেন, তাদের তৈরি করোনাভাইরাসের সম্ভাব্য ভ্যাকসিনটির তৃতীয় ধাপের অর্থাৎ চূড়ান্ত পর্যায়ের পরীক্ষা চালানোর জন্য চারটি দেশের সাথে আলোচনা চলছে। এটি এখনও আলোচনার পর্যায়ে রয়েছে। দেশ চারটি হলোÑ রাশিয়া, ব্রাজিল, চিলি এবং সৌদি আরব। করোনা সংক্রমণ রোধে চীনের সাফল্যের কারণে বৃহৎ পরিসরে ভ্যাকসিনের ট্রায়াল পরিচালনায় মনোযোগ দিতে পারছে দেশটি। ভ্যাকসিনের দৌড়ে এগিয়ে থাকা দশটির বেশি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে চারটিই চীনের।
নাগরিকদের কর্মক্ষেত্রে ফিরতে বললেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী : করোনাভীতি কাটিয়ে জনগণকে কর্মক্ষেত্রে ফিরতে বলেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। একইসাথে বাইরে এবং জনবহুল স্থানে সবার মাস্ক পরিধান করার বিষয়ে সরকারের কঠোর পদক্ষেপের কথাও বলেছেন। বরিস জনসন বলেন, তিনি চান মানুষ এখন তাদের নিজ নিজ কর্মক্ষেত্রে ফিরতে শুরু করুক। সবাই ধীরে ধীরে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসুক এবং আত্মবিশ্বাস নিয়েই তারা রেস্টুরেন্ট কিংবা বাজারে যাতায়াত শুরু করুক। তবে এ ক্ষেত্রে তাদের সরকারি নির্দেশনা মানতে হবে। ‘প্রধানমন্ত্রীর কাছে জনগণের প্রশ্ন’ নামের একটি প্রি-রেকর্ডেড অনলাইন বিবৃতিতে বরিস জনসন আরো বলেন, ‘আমি সেই বিশ্বে আবারো ফিরে যেতে চাই যেখানে ব্রিটিশ জনগণ আবারো হ্যান্ডশেক করতে শুরু করবে। যে কারণে গণপরিবহনে ফেস মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। আমরা এটা নিশ্চিত করতে চাই যে, মানুষ গণপরিবহন, বাজার-ঘাটের মতো করোনা ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় মাস্ক পরিধান করবে।’
করোনা নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নতুন নির্দেশিকা : করোনাভাইরাসকে বায়ুবাহিত বলে মেনে নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা নতুন গাইডলাইন দিয়েছে। সংস্থাটি জানিয়েছে, মানুষের জানা উচিত, হাওয়ায় ভেসে ছড়ায় করোনাভাইরাস। কিছু বিশেষ এলাকায় বিশেষ পরিস্থিতিতে হাওয়ায় ভেসে ছড়ায় করোনাভাইরাস। কোনো ভিড়ে পরিপূর্ণ জায়গায় অ্যারোসল ট্রান্সমিশনের পাশাপাশি হাওয়ায় ভেসেও ট্রান্সমিশন হয়। এই জায়গাগুলো হলোÑ জিমনেশিয়াম, রেস্টুরেন্ট। যেখানে একই হাওয়া চলে, সেখানেই এই সংক্রমণ ছড়ায়। কোনো বদ্ধ জায়গায় করোনা সংক্রমিত ব্যক্তি যদি দীর্ঘক্ষণ থাকেন, তাহলে সে একই হাওয়ায় যদি অন্য মানুষ নিঃশ্বাস নেয়, তাহলে তাদের মধ্যেও সংক্রমণ ছড়ায়। তাই মানুষ যদি এ ধরনের জায়গা এ সময় এড়িয়ে চলে, তাহলে করোনা থেকে বাঁচতে পারে। এ ধরনের জায়গাগুলোর সাথে সামঞ্জস্য রাখে এ রকম জায়গায়ও না যাওয়াই ভালো।
শিশুদের জন্য টিকা তৈরি করছে রাশিয়া : শিশুদের জন্য নোভেল করোনাভাইরাস প্রতিরোধী বিশেষ টিকা তৈরির কথা জানিয়েছে রাশিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রক প্রতিষ্ঠান রসপোট্রেবেনজর। শনিবার প্রতিষ্ঠানটির প্রধান আনা পোপোভা বলেন, শিশুদের জন্য বিশেষ ভ্যাকসিন দরকার, যাতে অবশ্যই বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকতে হবে। আমরা কেবল কাজ শুরু করেছি। চলতি বছরে ভ্যাকসিনটির ট্রায়াল শেষ হওয়ার সম্ভাবনা কম। শিশুদের জন্য আলাদা ভ্যাকসিন তৈরির আহ্বান অনেক দেশের গবেষকরা কয়েক মাস ধরে জানাচ্ছেন। রাশিয়া প্রথম এ বিষয়ে ঘোষণা দিলো। এর আগে দেশটি প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য আরেকটি ভ্যাকসিন তৈরির কথা জানায়। প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় তৈরি হতে থাকা ভ্যাকসিনটি দুই বছরের বেশি সময় মানুষকে করোনা থেকে সুরক্ষা দেবে বলে প্রমাণ পাওয়ার দাবি করেছেন সে দেশের কর্মকর্তারা।
‘করোনার খবর গোপন করেছিল চীন’: বিশ্বজুড়ে করোনার এ সঙ্কটকালে সরাসরি বেইজিংয়ের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন লি- মেং ইয়ান। তিনি হংকংয়ের স্কুল অব পাবলিক হেলথের ভাইরোলজি ও ইমিউনোলজি বিষয়ক বিশেষজ্ঞ। প্রাণনাশের হুমকিতে হংকংয়ের এ ভাইরাস বিশেষজ্ঞ এখন নিজের দেশ ছেড়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রয় নিয়েছেন। ইয়ানের অভিযোগ, ‘বেইজিং প্রাণঘাতী ভাইরাস বিষয়ে অনেক আগেই জেনেছিল। কিন্তু বেমালুম চেপে গেছে।’ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার উপদেষ্টা অধ্যাপক মালিক পেইরিসকেও অভিযুক্ত করেন হংকংয়ের এ ভাইরোলজিস্ট। ইয়ানের বক্তব্য, পেইরিসেরও কিছু অজানা ছিল না। কিন্তু তিনিও সব জেনেশুনে অদ্ভুত রকম নিস্পৃহ ভূমিকা নেন। যে মালিক পেইরিসের দিকে হংকংয়ের ভাইরোলজিস্ট আঙুল তুলেছেন, তিনি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অনুমোদিত ল্যাবটির উপপরিচালকও। সেখানেই ইয়ান গবেষণা করতেন।
ভ্যাকসিনের নিয়ন্ত্রণ বাজারের হাতে দেয়া যাবে না : করোনা বৈশ্বিক স্বাস্থ্যসেবা সরবরাহ শৃঙ্খলে বাধা সৃষ্টি করতে শুরু করেছে বলে সতর্ক করেছেন মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস। তার মতে, এইডসহ অন্য সব রোগের বিরুদ্ধে লড়াই কমিয়ে দিয়েছে এই মহামারী। শনিবার আন্তর্জাতিক এইডস সম্মেলনের বক্তব্যে গেটস বলেন, জাতিসঙ্ঘ ও বৈশ্বিক ফান্ডের অনুমান অনুযায়ী কেবল সাব-সাহারান আফ্রিকাতে হাজার হাজার লোকের চিকিৎসায় বাধা তৈরি করছে এই মহামারী। গবেষকরা আক্রান্তদের চিহ্নিত করতে সহায়তার পাশাপাশি উন্নত ডায়াগনস্টিক সরঞ্জাম এবং টিকার অগ্রগতিতে ভূমিকা রেখেছে। আমি আশাবাদী আমরা কোভিড-১৯ কে পরাস্ত করব এবং এইচআইভি-এইডসের বাধাও পেরিয়ে যাবো। যদি ওষুধ ও টিকা সর্বোচ্চ দরদাতার কাছে পৌঁছায় তাহলে প্রাণঘাতী এই মহামারী আরো দীর্ঘস্থায়ী হবে। যেসব দেশ ও মানুষের সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন তাদের কাছে ওষুধ ও টিকা পৌঁছে দিতে হবে। ভ্যাকসিনের নিয়ন্ত্রণ বাজারের হাতে দেয়া যাবে না, সমতার ভিত্তিতে বণ্টনের কঠিন সিদ্ধান্তগুলো নিতে হবে বিশ্ব নেতাদের।
দিনে ১ লাখ টেস্ট করা যাবে ১ মেশিনে : পশ্চিমবাংলায় করোনা সংক্রমণ রোধে কনটেনমেন্ট জোনে লকডাউন ঘোষণা করার পরও বেড়ে চলেছে সংক্রমণ। এ পরিস্থিতিতে সংক্রমণ কমাতে ইউরোপ থেকে মেশিন আনা হচ্ছে। যন্ত্রটি সম্পূর্ণ অটোমেটিক, নাম ঈড়নধং ৬৮০০। সুইজারল্যান্ডভিত্তিক ফার্মাসিউটিক্যাল সংস্থা থেকে এই মেশিন আনা হচ্ছে যা ব্যবহার করে প্রতিদিন ১ লাখ করোনা টেস্ট করা যাবে। মেশিনটি মে মাসে অর্ডার দেয়া হয়েছিল, ধারণা করা হচ্ছে আগস্টের মাঝামাঝি সময় সেটি পৌঁছে যাবে। ৬ হাজার ৮ শ’টি টেস্টিং মেশিন কিনছে সরকার। বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গে গড়ে প্রতিদিন ১০ হাজারের বেশি করোনা টেস্ট করানো হচ্ছে। নতুন মেশিন আসার পরে খরচও অনেকাংশে কমে যাবে।
মৃত্যুদণ্ড ঠেকিয়ে দিলো করোনা : করোনার কারণে ড্যানিয়েল লুইস লি নামে এক ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ড স্থগিত করেছে যুক্তরাষ্ট্রের আদালত। দেশটিতে গত ১৭ বছরের মধ্যে এই প্রথম কারো মৃত্যুদণ্ড কার্যকর স্থগিত হলো। যুক্তরাষ্ট্রের ওকলাহোমা রাজ্যের ইউকোনের বাসিন্দা ডানিয়েল লি ১৯৯৬ সালে আরকানসাসে একই পরিবারের তিনজনকে খুন করেন। তার হাতে খুন হন আরকানসাসের অস্ত্র বিক্রেতা উইলিয়াম মুয়েলার, তার স্ত্রী ন্যান্সি ও তাদের একমাত্র মেয়ে অষ্টাদশী সারাহ পাওয়েল। এই খুনের দায়ে লির মৃত্যুদণ্ড হয়। সোমবার ইন্ডিয়ানার টেরে হাউতি কারাগারে লির মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের দিনক্ষণ ঠিক করা ছিল। রায় ছিল, বিষাক্ত ইনজেকশন দিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হবে ৪৭ বছরের লির। তবে তার স্বজনরা আদালতকে জানিয়েছেন, করোনা মহামারীর কারণে লিকে শেষ দেখার জন্য তারা আসতে পারছেন না। স্বজনদের আবেদন বিবেচনায় নিয়ে মৃত্যুদণ্ড আপাতত স্থগিত করেছেন ইন্ডিয়ানার ফেডারেল জজ।

 


আরো সংবাদ

প্রদীপের অপকর্ম জেনে যাওয়ায় জীবন দিতে হয়েছে সিনহাকে? (২৯৬২৮)মেজর সিনহা হত্যা : ওসি প্রদীপ, ইন্সপেক্টর লিয়াকত আলীসহ ৭ পুলিশ বরখাস্ত (৮২৪৭)পাকিস্তানের বোলিং তোপে লন্ডভন্ড ইংল্যান্ড (৬৬৩৩)জাহাজ ভর্তি ভয়াবহ বিস্ফোরক বৈরুতে পৌঁছল যেভাবে (৬২৩৭)আয়া সোফিয়ায় জুমার নমাজ শেষে যা বললেন এরদোগান (৫৯২২)অযোধ্যায় রামমন্দির নির্মাণ নিয়ে কড়া বিবৃতি পাকিস্তানের, যা বলছে ভারত (৫৬৪৪)নতুন রাজনৈতিক দলের ঘোষণা দিলেন মাহাথির (৫৫৬১)সাগরের ইলিশে সয়লাব খুলনার বাজার (৫০৩২)কানাডায়ও ঘাতক বাহিনী পাঠিয়েছিলেন মোহাম্মাদ বিন সালমান! (৫০২২)এসএসসির স্কোরের ভিত্তিতে কলেজে ভর্তি হবে শিক্ষার্থীরা (৪৯৭৩)