১৫ আগস্ট ২০২০

অনাহারে প্রতিদিন মৃত্যু হতে পারে ১২ হাজার মানুষের

আফ্রিকায় দুর্ভিক্ষে পড়বে ৫ কোটি মানুষ; এক দিনে শনাক্ত দুই লাখ ১৪ হাজার; করোনার নতুন হটস্পট ভারত; স্কুলের বরাদ্দ বন্ধের হুমকি ট্রাম্পের
-
24tkt

করোনাভাইরাস মহামারীতে আক্রান্ত হয়ে যত মানুষ না মৃত্যুবরণ করবে, তার চেয়ে বেশি মানুষ মারা যাবে ক্ষুধার যন্ত্রণায়। কোভিড-১৯ এর কারণে চলতি বছরের শেষ নাগাদ প্রতিদিন ১২ হাজার মানুষ খাবার না পেয়ে মারা যেতে পারে। বিশ্বব্যাপী ক্ষুধা মহামারী সৃষ্টি হবে। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে দাতব্য সংস্থা অক্সফাম ইন্টারন্যাশনাল।
বিবৃতিতে বলা হয়েছে, খাদ্যসঙ্কটে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে এমন দশটি দেশ হচ্ছেÑ ইয়েমেন, কঙ্গো, আফগানিস্তান, ভেনিজুয়েলা, পশ্চিম আফ্রিকান সাহেল, ইথিওপিয়া, দক্ষিণ সুদান, সিরিয়া, সুদান এবং হাইতি। বিশ্বের দশটি ক্ষুধার হটস্পট দেশগুলোর মধ্যে ভেনিজুয়েলা এবং দক্ষিণ সুদানে খাদ্যসমস্যা সবচেয়ে মারাত্মক এবং মহামারীর ফলে আরো খারাপ হচ্ছে।
এর কারণ হিসেবে অক্সফাম জানিয়েছে, করোনার প্রাদুর্ভাবের জেরে গণহারে চাকরি হারানো, খাবার উৎপাদন কমে যাওয়া, ত্রাণসহায়তা হ্রাস পাওয়া এবং পরিবহনে বাধা এই সমস্যাটিতে নেতিবাচক ভূমিকা নিয়ে আসবে; সামাজিক ও অর্থনৈতিক অবক্ষয় তৈরি হবে। চলতি বছরের শেষে প্রায় ১২ কোটি ২০ লাখ মানুষ নিদারুণ খাদ্যাভাবে ভুগতে পারে। ‘ক্ষুধা ভাইরাস’ এর আক্রমণে ক্ষুধার জ্বালায় ভুগবে মাানুষ। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রতিদিন ১০ হাজার মানুষের মৃত্যু ঘটে ২০২০ সালের এপ্রিলে। বিশ্ব খাদ্য সংস্থা জানিয়েছে, চলতি বছর শেষের আগেই খাদ্যসঙ্কটে ভোগা মানুষের সংখ্যা বেড়ে ২৭ কোটিতে পৌঁছাতে পারে। গত বছর এ সংখ্যা ছিল ১৪ কোটি ৯০ লাখ।
অক্সফামের অন্তর্বর্তীকালীন এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ছেমা ভেরা বলেন, সঙ্ঘাত, জলবায়ু পরিবর্তন, বৈষম্য এবং একটি ভাঙা খাদ্যব্যবস্থার প্রভাবের সাথে লড়াই করা লাখ লাখ খাদ্য উৎপাদনকারী ও শ্রমিককে করোনাভাইরাস ইতোমধ্যে দরিদ্র করে তুলেছে। মধ্য আয়ের দেশ যেমন ভারত, সাউথ আফ্রিকা, ব্রাজিলেও অনেকেই ভঙ্গুর পরিস্থিতির মধ্যে পড়ে গেছে।
অক্সফাম জিবির প্রধান নির্বাহী ড্যানি শ্রীস্কান্দারাজাহ বলেন, করোনার প্রভাবে বিশ্বের লাখো দরিদ্র মানুষকে ক্ষুধা ও দারিদ্র্যের গভীরে ঠেলে দিয়েছে। সরকারগুলো এখন জাতিসঙ্ঘ করোনা আবেদন তহবিলে অর্থায়ন করে এবং মহামারী মোকাবেলায় সঙ্ঘাতের অবসান ঘটাতে জীবন বাঁচাতে পারে।
এর আগে গত এপ্রিলে অক্সফাম জানায়, করোনা মহামারী বিশ্বজুড়ে ৫০ কোটি মানুষকে দারিদ্র্যের মুখে ঠেলে দিতে পারে। অক্সফামের দৃষ্টিতে করোনার কারণে বিশ্বব্যাপী চলমান অর্থনৈতিক সঙ্কট ২০০৮ সালের বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সঙ্কটের চেয়েও গভীর। খবর এএফপি, সিএনএন, ব্লুমবার্গ, আল জাজিরা, রয়টার্স, আনন্দবাজার, বিবিসি, সিনহুয়া, সিএনএ, মিডল ইস্ট মনিটর, সায়েন্স অ্যালার্ট, টিআরটি ওয়ার্ল্ড, ওয়ার্ল্ডোমিটারস, এনডিটিভি, ভয়েস অব আমেরিকা, টাইমস অব ইন্ডিয়া ও ওয়াশিংটন পোস্টের।
আফ্রিকায় ৫ কোটি মানুষ দুর্ভিক্ষে পড়বে : করোনাভাইরাসের কারণে আফ্রিকা মহাদেশের প্রায় পাঁচ কোটি মানুষ মারাত্মক রকমের দুর্ভিক্ষে পড়তে পারেন। আফ্রিকান উন্নয়ন ব্যাংক বা এএফডিবি এ তথ্য প্রকাশ করেছে। ব্যাংকের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আফ্রিকা মহাদেশের প্রায় এক-তৃতীয়াংশ মানুষ এরই মধ্যে আন্তর্জাতিক মানদণ্ডের চেয়ে কম আয়ের মধ্যে রয়েছে এবং এ পরিস্থিতি আরো মারাত্মক আকার ধারণ করতে পারে। ওশেনিয়া অঞ্চলের পরেই আফ্রিকা মহাদেশ হচ্ছে করোনাভাইরাসের মহামারীতে সবচেয়ে কম ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চল। এ মহাদেশে এখন পর্যন্ত পাঁচ ৫ লাখ মানুষ সংক্রমিত হয়েছেন এবং ১১ হাজার ৭০০ মানুষ মারা গেছেন।
করোনার নতুন হটস্পট ভারত : ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ২৪ হাজার ৮৭৯। ফলে ভারতে এখন পর্যন্ত মোট ৭ লাখ ৬৭ হাজার ২৯৬ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। ইতোমধ্যেই ৪ লাখ ৭৬ হাজার করোনারোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। ভারতে করোনার প্রাদুর্ভাব শুরুর পর থেকে এখন পর্যন্ত ২১ হাজার ১২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে মারা গেছেন ৪৮৭ জন। এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যু সবচেয়ে বেশি দেখেছে মহারাষ্ট্র। সেখানে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ২৩ হাজার ৭২৪ জন। অপর দিকে মৃত্যু হয়েছে ৯ হাজার ৪৪৮ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় ওই রাজ্যে নতুন সংক্রমণ ধরা পড়েছে ৬ হাজার ৬০৩। অপর দিকে এক দিনে মৃত্যু হয়েছে ১৯৮ জনের। মহারাষ্ট্রে কোভিড-১৯ সংক্রমণের বেশির ভাগই মুম্বাইতে। সেখানে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৮০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। দিল্লিতে কোভিড পজিটিভ রোগীর সংখ্যা ১ লাখ ৪ হাজার ৮৬৪। দিল্লিতে করোনার অ্যাকটিভ কেস ২৩ হাজারের বেশি। গুজরাটে আক্রান্তের সংখ্যা ৩৮ হাজার ৩৩৩। তামিলনাড়–তে ইতোমধ্যেই করোনায় আক্রান্ত লাখ ছাড়িয়েছে।
ডব্লিউএইচও নিয়ে ট্রাম্পের সিদ্ধান্ত বাতিলের ঘোষণা : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে সরিয়ে নেয়ার ট্রাম্পের সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন দেশটির আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রার্থী জো বাইডেন। মঙ্গলবার টুইটারে দেয়া পোস্টে তিনি বলেছেন, ভোটে জিতলে দায়িত্ব গ্রহণের ‘প্রথম দিনই’ ট্রাম্পের এ সিদ্ধান্ত বাতিল করবেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্র ফের ডব্লিউএইচও-তে যোগ দেবে। টুইটে জো বাইডেন বলেন, ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সুরক্ষা জোরদারে যুক্তরাষ্ট্র নিয়োজিত থাকলে আমেরিকানরা অপেক্ষাকৃত বেশি নিরাপদ থাকবে। প্রেসিডেন্ট হিসেবে আমার প্রথম দিনই ফের ডব্লিউএইচও-তে যোগ দেবো এবং বিশ্বমঞ্চে আমাদের নেতৃত্ব পুনঃপ্রতিষ্ঠিত করব।’
ইইউর বাইরের নাগরিকদের জন্য কঠোর ব্যবস্থা ইতালিতে : ইউরোপীয় ইউনিয়নের বাইরের দেশের নাগরিকদের ইউরোপ ভ্রমণে আরো কঠোর সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানিয়েছে ইতালি। করোনাভাইরাস মহামারীর ধাক্কা সামলে ওঠা ইতালিতে যাওয়া দুই ডজনের বেশি বিদেশীর শরীরে করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হওয়ার পর বুধবার ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতি এই আহ্বান জানিয়েছে রোম। ইউরোপীয় ইউনিয়নের স্বাস্থ্য কমিশনার স্টেলা কিরিয়াকাইডস ও জার্মানির স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেন্স স্প্যানের কাছে লেখা এক চিঠিতে ইতালির স্বাস্থ্যমন্ত্রী রবার্তো স্পেরানজা বলেছেন, আমি শেনজেন এবং ইউরোপীয় অঞ্চলের বাইরে থেকে ইউরোপে আগতদের জন্য নতুন কঠোর সতর্কতামূলক যথাযথ ব্যবস্থা বিবেচনার আহ্বান জানাচ্ছি।
করোনায় ভুগলেও দম্ভ যায়নি বোলসোনারোর : শুরু থেকেই করোনাভাইরাসকে ‘একটা সামান্য ফ্লু’ বলে হেলাফেলা করা ব্রাজিলিয়ান প্রেসিডেন্ট জেইর বোলসোনারো নিজেই এতে আক্রান্ত হয়েছেন। যে ভাইরাস তার দেশে মাত্র পাঁচ মাসেই ৬৭ হাজার মানুষের প্রাণ কেড়েছে, সেটিকে এখনো পাত্তা দিতে নারাজ এই নেতা। টেলিভিশনে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, তিনি নাকি এরই মধ্যেই বেশ ভালো অনুভব করছেন এবং হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইনের তৃতীয় ডোজ নিয়েছেন। মঙ্গলবার করোনা পজিটিভ শনাক্ত হন প্রেসিডেন্ট বোলসোনারো। অবশ্য স্থানীয় সংবাদমাধ্যম আগেই জানিয়েছিল, বোলসোনারোর শরীরে করোনার উপসর্গ রয়েছে। প্রবল জ্বরে ভুগছেন ৬৫ বছর বয়সী এ নেতা।
আক্রান্ত বাড়ছে ওমানে : প্রথম দিকে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা কম থাকলেও সাম্প্রতিক সময়ে সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে। এ দিকে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ওমানে এর মধ্যেই করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৫০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ২১০ জন। অপর দিকে, নতুন করে মৃত্যু হয়েছে ৯ জনের। ওমানে এখন পর্যন্ত মোট করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৫০ হাজার ২০৭। এর মধ্যে মারা গেছেন ২৩৩ জন। গত ছয় সপ্তাহে ওমানে সংক্রমণের হার ব্যাপকভাবে বেড়ে গেছে। লোকজনকে স্বাস্থ্যবিধি সঠিকভাবে মেনে চলার আহ্বান জানানো হয়েছে।
কিরগিজস্তানে সংক্রমণ বাড়ছে : মধ্য এশিয়ার দেশ কিরগিজস্তানের রাজধানী বিশকেকে হটলাইন নম্বরের কলসেন্টারগুলো ইদানীং অনেক ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। অনেকেই ফোন করে করোনা উপসর্গের কথা বলছেন। সেখানে এখন বাড়ছে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা। কলসেন্টারের পরিচালক আশকাত আবদিকারিমভ বলেন, তিনি ও তার ৬০ সদস্যের চিকিৎসক ও শিক্ষার্থীর দল প্রতি সপ্তাহে তিন হাজারের বেশি কলের জবাব দিচ্ছেন। অর্ধেকের বেশি কল আসছে করোনাবিষয়ক। কিরগিজস্তানে এ মাসের মধ্যেই দুইবার দৈনিক সংক্রমণ পাঁচ শ’র ওপরে গেছে। গত মে মাসে দেশটিতে লকডাউন শিথিল করার আগে মোট সংক্রমিত রোগীর সংখ্যার চেয়েও যা বেশি। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৮ হাজারের বেশি সংক্রমিত রোগী রয়েছেন। তবে প্রকৃত সংখ্যা এর চেয়ে অনেক বেশি হতে পারে।
ইরানে এক দিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড : করোনাভাইরাস এক দিনে মৃত্যুর সর্বোচ্চ রেকর্ড করেছে ইরান। দেশটিতে এক দিনে ২০০ জনের মৃত্যু হয়েছে। সেখানে করোনার প্রাদুর্ভাব শুরুর পর থেকে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড এটি। দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৪৮ হাজার ৩৭৯ জন। মৃত্যু হয়েছে ১২ হাজার ৮৪ জনের। এ ছাড়া সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২ লাখ ৯ হাজার ৪৬৩ জন। ইরানে মৃত্যুর হার বৃদ্ধির জন্য দেশটিতে চলমান নিষেধাজ্ঞা অনুসরণ না করাকে দায়ী করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। গত সপ্তাহে, নতুন করে সংক্রমণ বৃদ্ধির পরে আবার কিছু ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ আরোপ করতে শুরু করে ইরান।
দুর্নীতির অভিযোগে জিম্বাবুয়ের স্বাস্থ্যমন্ত্রী বরখাস্ত : দুর্নীতির অভিযোগে জিম্বাবুয়ের স্বাস্থ্যমন্ত্রী বরখাস্ত করোনাভাইরাস মোকাবেলায় কেনা চিকিৎসাসামগ্রীর একটি চুক্তির কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে গ্রেফতার হওয়া জিম্বাবুয়ের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ওবাদিয়াহ মোয়োকে বরখাস্ত করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট এমারসন ন্যানগ্যাগওয়া। কোভিড-১৯ এর চিকিৎসাসামগ্রী কেনার একটি কোম্পানির কয়েক বিলিয়ন ডলারের চুক্তিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী দুর্নীতি করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। চুক্তি অনুযায়ী ওই কোম্পানি সরকারের কাছে মাস্ক ও অন্যান্য চিকিৎসাসামগ্রী বিক্রি করেছে। এই কেনাকাটায় দুর্নীতির অভিযোগ ওঠার পর গত মাসে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোয়োকে গ্রেফতার করা হয়। পরে জামিনে মুক্তি পান তিনি। তবে বরখাস্ত হওয়া নিয়ে এখন পর্যন্ত কোনো ধরনের মন্তব্য করেননি তিনি।
যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্ত ৩১ লাখ ছাড়াল : যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩১ লাখ ছাড়াল। এ পর্যন্ত মোট করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩১ লাখ ২০ হাজার ৪৮১ জন। আর মারা গেছেন ১ লাখ ৩৪ হাজার ৩০৯ জন। এ ছাড়া সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৩ লাখ ৭২ হাজার ৮০৬ মানুষ। মার্কিন অঙ্গরাজ্যগুলোর মধ্যে করোনায় সবচেয়ে বেশি প্রাণহানি হয়েছে নিউ ইয়র্কে। সেখানে অন্তত ৩২ হাজার ২৪৩ জনের প্রাণ কেড়েছে এই ভাইরাস। এরপর নিউজার্সিতে ১৫ হাজার ২৮১ জন, ম্যাসাচুসেটসে ৮ হাজার ২১৩ জন, ইলিনয়েসে ৭ হাজার ২৭৩ জন মারা গেছেন করোনায়। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে ৬০ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। একই সময় প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত ১ হাজার ১১৪ জন। এর আগে দেশটিতে এক দিনে সর্বোচ্চ ৫৫ হাজার ২২০ জন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছিলেন গত ২ জুলাই। যুক্তরাষ্ট্রে নতুন করে করোনা সংক্রমণের কেন্দ্রস্থল হয়ে উঠেছে ক্যালিফোর্নিয়া এবং টেক্সাস। এ দু’টি অঙ্গরাজ্যের প্রতিটিতে দৈনিক ১০ হাজারের বেশি মানুষ করোনা পজিটিভ শনাক্ত হচ্ছেন।
করোনার টিকা দৌড়ে এগিয়ে চীন : বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের টিকা তৈরির পথে আরো এগোল চীন। চীনের সিনোভাক বায়োটেক উদ্ভাবিত একটি টিকা পরীক্ষামূলক প্রয়োগের চূড়ান্ত পর্যায়ে প্রবেশ করেছে। চীনের মধ্যে দ্বিতীয় এবং আন্তর্জাতিকভাবে তৃতীয় হিসেবে টিকাটি এ পর্যায়ে পৌঁছলো। যখন সারা বিশ্বেই টিকা আবিষ্কারের পথে সে রকম কোনো অগ্রগতির খবর নেই, তখন চীনের সরকারি, বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও সেনাবাহিনী সমন্বিতভাবে টিকা উদ্ভাবনের প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছে।
এক দিনে শনাক্ত দুই লাখ ১৪ হাজার : বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছেই। গত ২৪ ঘণ্টায় প্রায় দুই লাখ ১৪ হাজার মানুষের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে, যা রেকর্ড সংক্রমণ। এ দিকে মৃত্যুর তালিকাও দীর্ঘ হচ্ছে। গত এক দিনে এ তালিকায় আরো যোগ হলো পাঁচ হাজার ৫১৮ জন। বিশ্বজুড়ে করোনায় এ পর্যন্ত মোট মৃতের সংখ্যা ৫ লাখ ৫২ হাজার ২৯ জন। আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ২১ লাখ ৬৪ হাজার ১৭৩ জন। এরই মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৭০ লাখ ৩০ হাজার ৬ জন।
শিশুদের মধ্যে করোনার মতো রোগ : করোনাভাইরাস বা কোভিড-১৯ মহামারী নিয়ে হিমশিম খাচ্ছে গোটা বিশ্ব। এমন পরিস্থিতির মধ্যে এবার ভারতে শিশুদের মধ্যে পাওয়া গেছে করোনার উপসর্গের মতো অন্য রোগ। চিকিৎসকরা নতুন এই রোগের নাম বলছেন, ‘পেডিয়াট্রিক মাল্টিসিস্টেম ইনফ্লেমেটরি সিনড্রোম বা ‘মাল্টি সিস্টেম ইনফ্লেমেটরি সিনড্রোম’। গত দু’সপ্তাহে পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুরে পাঁচজন শিশু এই রোগে আক্রান্ত হয়েছে। উপসর্গ করোনার কাছাকাছি হওয়ায় শিশুদের করোনা পরীক্ষাও হচ্ছে। রিপোর্ট আসছে নেগেটিভ বা অমীমাংসিত। কাওয়াসাকি রোগের মূল উপসর্গ হলোÑ তীব্র জ্বর, জিব ও ঠোঁট লাল হয়ে যাওয়া, শরীরের শিরা-উপশিরা ফুলে যাওয়া এবং র্যাশ বের হওয়া।
প্লেগ আতঙ্কে টেস্ট শুরু রাশিয়ায় : চীন, মঙ্গোলিয়ার পর এবার বুবোনিক প্লেগ আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে রাশিয়ায়। বুধবার দেশটির মঙ্গোলিয়া লাগোয়া দুর্গম পূর্বাঞ্চলে ইঁদুর জাতীয় প্রাণীদের ওপরে টেস্ট শুরু করেছে স্থানীয় প্রশাসন। এই সব প্রাণী বুবোনিক প্লেগের ব্যাকটেরিয়া বহন করছে কি না সেই বিষয়ে তথ্য সংগ্রহের জন্য এই তৎপরতা চালাচ্ছে রাশিয়া। গত সপ্তাহে মঙ্গোলিয়ায় দু’টি বুবোনিক প্লেগের ঘটনা ধরা পড়ার পরে ইঁদুর জাতীয় প্রাণী (মারমোট) শিকার বা এর মাংস না খাওয়ার জন্য সাইবেরিয়া অঞ্চলর বাসিন্দাদের কাছে আবেদন করেছে প্রশাসন।
পাওয়া গেল করোনার আরো তিন লক্ষণ : জ্বর-সর্দি-মাথাব্যথা, শ্বাসকষ্ট এসব লক্ষণ ছাড়াও এ কয়েক দিনে আরো কয়েকটি নতুন লক্ষণের দেখা মিলেছে। বিশ্বজুড়ে অনেক করোনারোগীর মধ্যেই নতুন এ লক্ষণগুলো দেখা যাচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ন্যাশনাল ডিজিজ (সিডিসি) করোনাভাইরাসের লক্ষণগুলোর তালিকায় তিনটি নতুন লক্ষণ যুক্ত করেছে। লক্ষণগুলো হচ্ছেÑ বুকে চাপ ধরা ও নাক দিয়ে পানি পড়া, বমি বমি ভাব ও ডায়েরিয়া। শুকনো কাশি, দীর্ঘস্থায়ী জ্বর, শ্বাসকষ্টÑ এগুলো করোনাভাইরাসের সবেচেয়ে পরিচিত লক্ষণ। ভাইরাসের কিছু কম পরিচিত লক্ষণগুলোর মধ্যে রয়েছে মাথাব্যথা, গন্ধ বা স্বাদের অনুভূতি হ্রাস, বিভ্রান্তি, মাথা ঘোরা, চোখের ফ্লু, নীল ঠোঁট, তীব্র সর্দি, পেশি ব্যথা, ক্লান্তি ইত্যাদি।


আরো সংবাদ