১৫ জুলাই ২০২০

শনাক্ত ছাড়াল ৪২ হাজার, মৃত্যু ৫৮২

এক দিনে রেকর্ড আড়াই সহস্রাধিক শনাক্ত; ঈদের আগের দিন সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড; মোট সুস্থ ৯,০১৫ জন; শনাক্তের তালিকায় ২২ নম্বরে বাংলাদেশ; উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু ১৫ জন
-

চীনের উহান থেকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে বাংলাদেশে গত ছয় দিনে আরো ১৫০ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫৮২ জন। এ সময়ে করোনায় আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে ১২ হাজার ৬৩৯ জন। মোট শনাক্ত হয়েছে ৪২ হাজার ৮৪৪ জন। শনাক্তের সংখ্যার দিক থেকে বাংলাদেশের অবস্থান বিশ্বে ২২ নম্বরে। গতকাল এক দিনে বাংলাদেশে রেকর্ড শনাক্ত ছিল দুই হাজার ৫২৩ জন। এর আগের দিন গত বৃহস্পতিবার এই সংখ্যা ছিল দুই হাজার ২৯ জন। এটিও ছিল ওই দিন পর্যন্ত সর্বোচ্চ শনাক্ত। গতকাল সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ২৩ জন। সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড হয়েছে ঈদের আগের দিন গত ২৪ মে রোববার। ওই দিন মৃত্যু হয়েছে ২৮ ব্যক্তির। অন্যদিকে করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছে ১৫ ব্যক্তি।
এক দিনে রেকর্ড আড়াই সহ¯্রাধিক শনাক্ত : এক দিনে রেকর্ড দুই হাজার ৫২৩ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্তের মধ্য দিয়ে দেশে করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪২ হাজার ৮৪৪ জন। শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় এ রোগে আরো ২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। বাংলাদেশে নতুন করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৫৮২ জন। সারা দেশে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন আরো ৫৯০ জন। সব মিলে এ পর্যন্ত মোট ৯ হাজার ১৫ জন সুস্থ হয়ে উঠলেন।
অনলাইনে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত বুলেটিনে অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা: নাসিমা সুলতানা গতকাল শুক্রবার দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির এ সবশেষ তথ্য তুলে ধরেন। তিনি বলেন, গত এক দিনে যারা মারা গেছেন তাদের মধ্যে ১৯ জন পুরুষ ও চারজন নারী। এই ২৩ জনের মধ্যে একজনের বয়স ছিল ৮০ বছরের বেশি। এ ছাড়া দুইজনের বয়স ছিল ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে, ছয়জনের বয়স ছিল ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে, পাঁচজনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে, পাঁচজনের বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে, দুইজনের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে, একজনের বয়স ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে এবং একজনের বয়স ছিল ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে।
অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা বলেন, মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে মধ্যে ঢাকা বিভাগে সর্বোচ্চ ১০ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৯ জন, রংপুর বিভাগে দুইজন, বরিশাল বিভাগে একজন এবং সিলেট বিভাগে একজন রয়েছেন। তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১২ হাজার ৯৮২টি, পরীক্ষা করা হয়েছে ১১ হাজার ৩০১টি। এখন পর্যন্ত দুই লাখ ৮৭ হাজার ৬৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্তের হার ২২ দশমিক ৩৩ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ২১ দশমিক চার শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৩৬ শতাংশ।
গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে রাখা হয়েছে ৩২৮ জনকে। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন পাঁচ হাজার ১৪০ জন। ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশন থেকে ছাড়া পেয়েছেন ৭২ জন। এখন পর্যন্ত মোট ছাড়া পেয়েছেন দুই হাজার ৮১০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় প্রাতিষ্ঠানিক ও হোম কোয়ারেন্টিন মিলে কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে চার হাজার ৯০০ জনকে। এখন পর্যন্ত মোট দুই লাখ ৮০ হাজার পাঁচজনকে কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে। কোয়ারেন্টিন থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় ছাড়া পেয়েছেন দুই হাজার ৯১৮ জন। এখন পর্যন্ত মোট ছাড়া পেয়েছেন দুই লাখ ১৯ হাজার ৭৭০ জন। বর্তমানে মোট কোয়ারেন্টিনে আছেন ৬০ হাজার ২৭৫ জন।
ঈদের আগের দিন সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড : দেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়ার আড়াই মাসের মাথায় ঈদের আগের দিন গত ২৪ মে আসে সর্বোচ্চ মৃত্যুর খবর। ওই দিনে ২৮ জনের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয় ৪৮০ জন। একই দিন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয় এক হাজার ৫৩২ জন। এ ছাড়া গত ২৩ মে রোগী শনাক্ত হয়েছে এক হাজার ৮৭৩ জন। মৃত্যু হয়েছে ২০ জন। ২৫ মে ঈদের দিনে শনাক্ত হয়েছে এক হাজার ৯৭৫ জন। মৃত্যু হয়েছে ২১ জন। এ দিন মৃত্যুর সংখ্যা ৫০০ ছাড়িয়ে যায়। ওই দিন পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ৫০১ জন। ঈদের পরের দিন ২৬ মে শনাক্ত হয়েছে এক হাজার ১৬৬ জন। মারা গেছেন ২১ জন। গত ২৭ মে শনাক্ত হয়েছে এক হাজার ৫৪১ জন ও মৃত্যু হয়েছে ২২ জন। গত ২৮ মে দুই হাজার ২৯ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এ দিন মারা গেছেন ১৫ জন।
চট্টগ্রামে এক দিনের নবজাতকের শরীরে করোনা : চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নারীর জন্ম দেয়া এক দিন বয়সী নবজাতকের শরীরেও ওই ভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। জন্মের চার দিনের মাথায় নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদনে নবজাতকের করোনা পজিটিভ এসেছে। এ ছাড়া ২৪ ঘণ্টায় ডাক্তার, পুলিশসহ আরো ২২৯ জন করোনা পজিটিভ রোগী শনাক্ত হয়েছে বৃহস্পতিবার। নতুন করে শনাক্ত হওয়াদের ১৮৫ জন নগরের এবং জেলার সাতটি উপজেলা থেকে শনাক্ত হয়েছেন ৪৪ জন। চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র কনসালট্যান্ট ডা: আবদুর রব নয়া দিগন্তকে বলেন, গত ২৪ মে দুপুর দেড়টায় সিজারিয়ান অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে ৩২ বছর বয়সী এই নারী এক ছেলের জন্ম দেন। প্রসূতির বাসা নগরীর খুলশী এলাকায়। গত ২০ মে নমুনা পরীক্ষায় তার শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়। তিনি বাসায় আইসোলেশনে ছিলেন। প্রসব বেদনা শুরুর পর ২৪ মে তাকে জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়। জন্মের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই নবজাতকের শরীর থেকেও নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এর পর চমেকের ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় সংক্রমণ শনাক্ত হয়। মা ও নবজাতক ছেলে উভয়ই চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের করোনা বিভাগের আইসোলেশন ইউনিটে আছেন।
বরিশাল বিভাগে ৪০৫ জনের করোনা শনাক্ত, মোট ৯ জনের মৃত্যু : বরিশাল ব্যুরো জানায়, বরিশাল বিভাগের ছয় জেলায় করোনাভাইরাসে মোট ৪০৫ জন আক্রান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। এ ছাড়া সুস্থ হয়েছেন ১৩১ জন ও মৃত্যু হয়েছে মোট ৯ জনের। বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগের মধ্যে ভোলা ও বরগুনা ছাড়া চার জেলায় ২১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা: বাসুদেব কুমার দাস জানিয়েছেন, বিভাগের মধ্যে এ পর্যন্ত বরিশাল জেলায় ১৮১ জন, পটুয়াখালীতে ৪৩, ভোলায় ২৩, পিরোজপুরে ৬৩, বরগুনায় ৫৪ ও ঝালকাঠিতে ৪১ জনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে গোটা বিভাগে ১৩১ জন করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়েছেন। এ ছাড়া সর্বশেষ গত ২৪ ঘণ্টায় ঝালকাঠি জেলার কাঁঠালিয়া উপজেলায় একজন ও পিরোজপুর জেলার নাজিরপুর উপজেলায় একজন করোনা রোগীর মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এ নিয়ে বিভাগে এ পর্যন্ত মোট ৯ ব্যক্তির করোনায় মৃত্যু হয়েছে বলে জানান তিনি। মোট মৃত্যুর মধ্যে পটুয়াখালী জেলার সদর উপজেলা, মির্জাগঞ্জ ও দুমকীতে একজন করে মোট তিনজন, বরগুনা জেলার আমতলী ও বেতাগীতে একজন করে মোট দুইজন, ঝালকাঠির নলছিটি ও কাঠালিয়াতে একজন করে মোট দুইজন, বরিশালের মুলাদিতে একজন এবং পিরোজপুরের নাজিরপুরে রয়েছেন একজন।
কিশোরগঞ্জে মোট ৯ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ৩০০ : কিশোরগঞ্জ সংবাদদাতা জানান, কিশোরগঞ্জে সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় এ পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ৯ জনের। এ ছাড়া নতুন করে আরো ১০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে পাওয়া নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে নতুন ১০ জনের করোনা পজিটিভ আসে। এ নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে মোট ৩০০ জন। জেলায় সর্বশেষ মারা যাওয়া ব্যক্তির নাম মোহাম্মদ সামছুদ্দিন (৬৫)। তার বাড়ি করিমগঞ্জ উপজেলার গুজাদিযা ইউনিয়নের টামনী ইসলামপুর গ্রামে। নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে থাকা অবস্থায় বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে তিনি মারা যান। সামছুদ্দীন পেশায় স্থানীয় মসজিদের মুয়াজ্জিন ছিলেন।
কুড়িগ্রামে উপসর্গ নিয়ে শিক্ষকের মৃত্যু : কুড়িগ্রাম সংবাদদাতা জানান, কুড়িগ্রামে করোনা উপসর্গ নিয়ে রফিকুল ইসলাম রঞ্জু (৪৬) নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে। তিনি কুড়িগ্রাম আলিয়া কামিল মাদরাসার ইংরেজি বিভাগে সহকারী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। নিহতের বাড়ি সদর উপজেলার বেলগাছা ইউনিয়নের পলাশবাড়ি এলাকায়। বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টায় রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। গত ১৫ মে থেকে বাড়িসংলগ্ন মসজিদে তিনি ১০ দিনের এতেকাফে অবস্থান করছিলেন তিনি। ২২ মে সর্দি, জ¦র ও পাতলা পায়খানায় আক্রান্ত হন। ২৫ মে তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার তার মৃত্যু হয়।
ময়মনসিংহে এক দিনে ৫২ জন আক্রান্ত : ময়মনসিংহ অফিস জানায়, ময়মনসিংহে এক দিনে সর্বোচ্চ সংখ্যক ৫২ জনের করোনা পজিটিভ হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের এক চিকিৎসকসহ আটজন স্বাস্থ্যকর্মী, ময়মনসিংহ সদরে ৯ জন, ধোবাউড়ায় ১২ জন, ভালুকায় এক চিকিৎসক ও ছয়জন ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশসহ ১৩ জন, ফুলপুরে এক চিকিৎসকসহ ছয়জন, গফয়গাঁওয়ে সেনাবাহিনীর একজন অবসরপ্রাপ্ত সার্জেন্ট ও একজন গার্মেন্ট ব্যবসায়ী, গৌরীপুরে একজন ও ঈশ্বরগঞ্জে একজনে করোনা শনাক্ত হয়। এ নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৪৫৭ জনে। এ পর্যন্ত ছয়জন মারা গেছেন এবং ১৬৭ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।
লাকসামে করোনা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু : লাকসাম (কুমিল্লা) সংবাদদাতা জানান, প্রথমবারের মতো কুমিল্লার লাকসামে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে তার মৃত্যু হয়। উপজেলা করোনা রেপিড রেন্সপন্স টিম প্রধান ডা: আবদুল আলী জানান, ওই রোগীর পূর্ব থেকেই হার্টের সমস্যা ছিল। তাছাড়া তার ডায়াবেটিকস ছিল নিয়ন্ত্রণের বাইরে। বৃহস্পতিবার বিকেলে তাকে কুমিল্লা স্থানান্তর করা হয়।
ধামইরহাটে উপসর্গ নিয়ে গার্মেন্টকর্মীর মৃত্যু : ধামইরহাট (নওগাঁ) সংবাদদাতা জানান, নওগাঁর ধামইরহাটে করোনা উপসর্গ নিয়ে এক গার্মেন্টকর্মীর মৃত্যু হয়েছে। উপজেলার ধামইরহাট ইউনিয়নের অন্তর্গত রুপনারায়ণপুর খাঠাপাড়া গ্রামের আইনুল হয় (৪৯) প্রায় ১৮ দিন আগে সে বাড়িতে আসেন। এর পর থেকে তার শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। গত ২৬ মে করোনা পরীক্ষার জন্য তার দেহ থেকে নমুনা নেয়া হয়। কিন্তু রিপোর্ট আসার আগেই গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নিজ বাড়িতে তিনি মারা যান।
নীলফামারীতে র্যাবের আরো ১০ সদস্য আক্রান্ত : নীলফামারী সংবাদদাতা জানান, নীলফামারীতে র্যাবের আরো ১০ সদস্যের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে নীলফামারীতে র্যাবের ১৯ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হলেন। তারা সবাই র্যাব-১৩ নীলফামারী সিপিসি-২ ক্যাম্পের সদস্য। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নীলফামারী সিভিল সার্জন রনজিৎ কুমার বর্মন র্যাবের দেহে নতুন করোনা শনাক্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এ নিয়ে নীলফামারী জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ১০৮ জনে।
মুন্সীগঞ্জে বেদেপল্লীতে উপসর্গ নিয়ে দুইজনের মৃত্যু : মুন্সীগঞ্জ সংবাদদাতা জানান, মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের গোয়ালী মান্দ্রা বেদেপল্লীতে করোনা উপসর্গ নিয়ে দুই ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। লৌহজং থানার ওসি আলমগীর হোসাইন জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শনের পর বেদেপল্লীর তিনটি পরিবারকে লকডাউন করা হয়েছে। মৃত দুই ব্যক্তির শরীরে করোনার উপসর্গ ছিল। এর বাইরেও করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি থাকতে পারে। লৌহজং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাবিরুল ইসলাম খান জানান, স্বাস্থ্যকর্মীরা এরই মধ্যে বেদেপল্লীতে বসবাসরতদের শরীর থেকে করোনার সোয়াব সংগ্রহ শুরু করেছে। মৃত ব্যক্তিদের একজন আলতাফ হোসেন (৭০) গত বুধবার মারা যান। তিনি গোয়ালী মান্দ্রা বেদেপল্লীতে বসবাস করতেন। অন্যজন সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যায়নি।
ঝালকাঠি সংবাদদাতা জানান, ঝালকাঠিতে নতুন করে তিনজনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় এ পর্যন্ত ৪৪ জন আক্রান্ত হলেন। সর্বশেষ আক্রান্তরা হলেন ঝালকাঠি শহরের বান্দাঘাটা এলাকার ঢাকা থেকে আগত সাইফুল ইসলাম ও সদর উপজেলার পোনাবালিয়া গ্রামের মাহামুদুল ইসলাম এবং কাঁঠালিয়া উপজেলার সোনাউঠা গ্রামের মোহাম্মদ ইমরান।
গাজীপুরে উপসর্গ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীসহ দুইজনের মৃত্যু : গাজীপুর সংবাদদাতা জানান, গাজীপুরে করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে গত বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীসহ দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। এ দিকে জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৬১ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে এপর্যন্ত জেলায় মোট এক হাজার ২৯ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ছাদেকুর রহমান আকন্দ জানান, গাজীপুরে কালীগঞ্জ উপজেলার বড়নগর এলাকার মৃত রফিকুল ইসলামের স্ত্রী সাহিদা আক্তার (৭০) গত কয়েক দিন ধরে জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। বৃহস্পতিবার ভোররাতে তিনি বাড়িতে মারা যান। এ দিকে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের টঙ্গী পূর্ব থানাধীন মধ্যআরিচপুর এলাকায় স্বপরিবারে বাস করেন শামসুল হক। তাদের গ্রামের বাড়ি মুন্সীগঞ্জের লৌহজং থানার বুড়িগা এলাকায়। তার মেয়ে সুমাইয়া আক্তার (২৯) রাজধানীর একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী। সুমাইয়া গত কয়েক দিন ধরে জ্বর, সর্দি, কাশি ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। গুরুতর অবস্থায় তাকে ঈদের দিন ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার ভোররাতে তিনি মারা যান।
কাপাসিয়ায় দিনমজুরের মৃত্যু : গাজীপুরে মঙ্গলবার করোনা উপসর্গ নিয়ে এক দিনমজুরের মৃত্যু হয়েছে। তার নাম আমজাদ হোসেন (৩৮)। তিনি কাপাসিয়ায় উপজেলার সদর ইউনিয়নের বানার হাওলা গ্রামের বাসিন্দা। গত কয়েক দিন ধরে তিনি সর্দি, কাশি ও জ্বরে ভুগছিল। মঙ্গলবার সকাল থেকে তার জ্বর কাশি বেড়ে যায়। দুপরের দিকে কাশির সাথে তার গলা দিয়ে রক্ত বের হয়। এর কিছুক্ষণ পরই সে মারা যান।
গাইবান্ধা সংবাদদাতা জানান, গাইবান্ধায় গত বৃহস্পতিবার করোনাভাইরাসে নতুন করে আরো চারজন আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে সর্বমোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩৭ জন। তাদের মধ্যে তিনজন মারা গেছেন।
করোনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের পিতার মৃত্যু : কুমিল্লা সংবাদদাতা জানান, কুমিল্লার চান্দিনায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে একজন অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের পিতা মুক্তিযোদ্ধা আবদুল মান্নান খান মুনাফের মৃত্যু হয়েছে। তিনি উপজেলার ভোমরকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে অবসরপ্রাপ্ত একজন সহকারী শিক্ষক। চান্দিনায় এ নিয়ে করোনায় মোট পাঁচজনের মৃত্যু হলো। পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিন রাত ৭টা ৪৫ মিনিটে চান্দিনা উপজেলা সদরের পৌর এলাকার মহারং নিজ বাসভবনে তিনি মারা যান। এর আগে ২৪ মে আইইডিসিআর থেকে তার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। ওই দিনই মৃত ব্যক্তির পরিবারের আরো পাঁচ সদস্যের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছিল। এ দিকে বুড়িচংয়ে ২০ জনসহ কুমিল্লা জেলায় বৃহস্পতিবার নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৭০ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৭৮১ জনে।
চৌদ্দগ্রামের উপসর্গ নিয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু : চৌদ্দগ্রাম (কুমিল্লা) সংবাদদাতা জানান, কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন জাফর আহাম্মেদ মজুমদার সুমন (৩৫) নামের এক ব্যক্তি। তিনি বায়োফার্মা ফ্যাক্টরির প্রডাক্টশন ইনচার্জ এবং চৌদ্দগ্রাম উপজেলার আলকরা ইউনিয়নের কুলাসার গ্রামের মজুমদার বাড়ির মরহুম আবুল কাশেম মজুমদারের ছেলে। গত বুধবার রাতে ১১টায় তিনি ফেনী সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।
কচুয়ায় করোনাক্রান্ত ছেলের মৃত্যুর আট দিন পর উপসর্গ নিয়ে পিতার মৃত্যু : চাঁদপুর সংবাদদাতা জানান, চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলায় করোনা আক্রান্তে ছেলের মৃত্যুর পর উপসর্গ নিয়ে পিতার মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার নিজ গৃহে লকডাউনে থেকে করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করেন মজিবুর রহমান বাচ্ছু সরকার (৮০)। এর এক সপ্তাহ আগে ১৯ মে মঙ্গলবার মৃত মজিবুর রহমানের ছেলে শাহাদাত হোসেন মানিক সরকার করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। এ দিকে চাঁদপুরে আরো ১২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে চাঁদপুর সদরে চারজন, হাজীগঞ্জে তিনজন, ফরিদগঞ্জে তিনজন ও শাহরাস্তিতে দুইজন রয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট কেরোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ১৫৯ জন। এর মধ্যে মৃতের সংখ্য ১৩ জন। বৃহস্পতিবার দুপুরে সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
রাজশাহী বিভাগে এক দিনে বেড়েছে ৪৩ রোগী : রাজশাহী ব্যুরো জানান, রাজশাহী বিভাগের আটটি জেলায় এক দিনে ৪৩ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। নতুন এসব আক্রান্ত ব্যক্তিরা বৃহস্পতিবার শনাক্ত হয়েছেন। গতকাল শুক্রবার দুপুরে বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা: গোপেন্দ্রনাথ আচার্য্য সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, রাজশাহী বিভাগের আট জেলায় এখন করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৭৬৬ জন। বৃহস্পতিবার সংখ্যাটি ছিল ৭২৩। গত ১২ এপ্রিল রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলায় প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার পর থেকে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছেই। গোটা বিভাগে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৯৭ জন। আর মারা গেছেন পাঁচজন।
ফরিদপুরে আক্রান্ত ২৩০, মৃত ৫ : ফরিদপুর সংবাদদাতা জানান, ফরিদপুরে গতকাল শুক্রবার পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৩০ জন। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় ২৬ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ ছাড়া বৃহস্পতিবার বিকেলে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে জুয়েল মাতুব্বর (৫০) নামে এক ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে করোনায় ফরিদপুরের পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে দুইজন বোয়ালমারীর, দুইজন ভাঙ্গার ও একজন আলফাডাঙ্গা উপজেলার।
রংপুর করোনা হাসপাতালে আরো একজনের মৃত্যু : রংপুর অফিস জানায়, রংপুর ডেডিকেডেট করোনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেলেন সামছুল হুদা নামের আরো এক বৃদ্ধ। এ নিয়ে এই হাসপাতালে তিনজন এবং জেলায় সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। আর পুরো বিভাগে মারা গেলেন ১৪ জন। মৃত সামসুল হুদা নগরীর গোমস্তাপাড়ার বাসিন্দা। তার বয়স ৬৯ বছর। তিনি দীর্ঘদিন ধরে ডায়াবেটিস, হাইপার টেনশন ও হৃদরোগে ভুগছিলেন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে তিনি গত ২২ মে করোনা আইসোলেশন হাসপাতালে ভর্তি করা হন।
চট্টগ্রামে করোনায় দুইজনের মৃত্যু : চট্টগ্রাম ব্যুরো আরো জানায়, চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় করোনায় আক্রান্ত এবং করোনার উপসর্গ নিয়ে দুই রোগীর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার তারা দুইজন মারা যান। হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে, গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টায় করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যান ৬৫ বছর বয়সী এক পুরুষ রোগী। তার ৩ ঘণ্টা পর দুপুর সাড়ে ১২টায় মারা যান করোনা আক্রান্ত ৫৩ বছর বয়সী আরেক পুরুষ রোগী।
সোনাগাজীতে শ্বাসকষ্ট নিয়ে রাজমিস্ত্রির মৃত্যু : সোনাগাজী (ফেনী) সংবাদদাতা জানান, ফেনীর সোনাগাজীতে জ¦র ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে সবুজ (৩৫) নামে এক কাঠমিস্ত্রির মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলার বগাদানা ইউনিয়নের পাইকপাড়া গ্রামের নিজ বাড়িতে তার মৃত্যু হয়। দীর্ঘদিন তিনি শ^াসকষ্টে ভুগছিলেন। গত দুই সপ্তাহ আগে তাকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে কিছুটা সুস্থ হলে সোনাগাজীর বাড়িতে ফিরে আসেন। গত বৃহস্পতিবার বিকেলে তিনি মারা যান।
শরীয়তপুরে উপসর্গ নিয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু : শরীয়তপুর সংবাদদাতা জানান, শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে করোনা উপসর্গ নিয়ে গত বৃহস্পতিবার একজনের মৃত্যু হয়েছে। করোনা পরীক্ষার জন্য মৃত ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। এ দিকে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের করোনা কন্ট্রোল রুমের সমন্বয়ক ডা: আবদুর রশিদ গত বৃহস্পতিবার বিকেলে জানান, গত ৩৬ ঘণ্টায় ৩৬টি নমুনা পরীক্ষার ফলাফল পজিটিভ এসেছে। এ পর্যন্ত দুই হাজার ৫২১টি নমুনা পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছিল। যার মধ্যে দুই হাজার ৩৭৬টি পরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়া গেছে। এতে ১২১টি রিপোর্ট করো পজিটিভ আসে। তাদের মধ্যে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।
নবাবগঞ্জে করোনায় একজনের মৃত্যু : দোহার (ঢাকা) সংবাদদাতা জানান, ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে গোরাঙ্গ বণিক (৫২) নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় ঢাকার কুর্মিটোলা হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। গত ২১ মে তার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। পরের দিন তাকে ঢাকায় নেয়া হয়।
পঞ্চগড়ে আক্রান্ত বৃদ্ধের মৃত্যু : পঞ্চগড় সংবাদদাতা জানান, পঞ্চগড়ে করোনা আক্রান্ত হয়ে ৮৫ বছর বয়সের এক বৃদ্ধ মারা গেছেন। গতকাল শুক্রবার ভোর রাতে দেবীগঞ্জ উপজেলার চিলাহাটি ইউনিয়নের সুরুজ আলী নামের ওই বৃদ্ধ মারা যান। গত ১২ মে তিনি ঢাকা থেকে বাড়ি ফিরেন। এ নিয়ে জেলায় দুইজন কভিড ১৯ রোগীর মৃত্যু হলো। শুক্রবার সকালে সিভিল সার্জন ডা: ফজলুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
পটুয়াখালী সংবাদদাতা জানান, পটুয়াখালীতে গত দুই দিনে পৌর কাউন্সিলর, সাংবাদিক, পৌর মেয়রের ড্রাইভারসহ সাতজনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৪৭ জন। আক্রান্তদের দুইজন প্রতিষ্ঠানিকসহ ১৯ জন আইসোলেশনে রয়েছেন। সুস্থ হয়েছে বাড়ি ফিরেছেন ২৫ জন। মারা গেছেন তিনজন।
করোনা পজেটিভ হওয়ার খবরে হার্টঅ্যাটাক ফতুল্লা আ’লীগ নেতার মৃত্যু : নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা জানান, নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় গিয়াস উদ্দিন নামে এক আওয়ামী লীগ নেতা করোনাভাইরাস পজেটিভ আসার খবরে হার্টঅ্যাটাকে মারা গেছেন। সিদ্ধিরগঞ্জে অবস্থিত সাজেদা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাত ১২টায় তিনি মারা যান।
নিহতের পরিবার বলছেন করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবরে নার্ভাস হয়ে পড়েন তিনি। তবে ডাক্তার বলছেন, গিয়াস উদ্দিনের মৃত্যুর আগে হার্টঅ্যাটাক হয়েছিল। গিয়াস উদ্দিন ফতুল্লার কুতুব আইল এলাকার মৃত কালু ড্রাইভারের ছেলে এবং ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সদ্য বিলুপ্ত কমিটির সদস্য ছিলেন।
নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নাহিদা বারিক জানান, শুক্রবার সকালে স্থানীয়ভাবে গিয়াস উদ্দিনের লাশ দাফন করা। এর আগে হাসপাতাল থেকে তার পরিবারের লোকজন লাশ নিয়ে গেছেন।


আরো সংবাদ

এবার আল-আকসা উদ্ধারের ঘোষণা এরদোগানের(ভিডিও) (৬৮৫০)ডিজির অনুরোধে রিজেন্টের সাথে চুক্তির অনুষ্ঠানে গিয়ে ছিলাম : স্বাস্থ্যমন্ত্রী (৪৭৩৩)তুরস্ক-মিশরের পাল্টাপাল্টি হুঙ্কারে ভয়াবহ সংঘাতের পথে লিবিয়া (৪৭৩৩)ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরে সেব্রেনিৎসা স্টাইলে গণহত্যার আশঙ্কা! (৪৪৬৯)রাম ভারতীয়ই নন, অযোধ্যা নেপালে (৪৪১২)বাংলাদেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৯০ হাজার ছাড়ালো (৪১৭২)রামকে নিয়ে নেপালের প্রধানমন্ত্রীর দাবিতে ভারতীয়দের প্রতিক্রিয়া (৩৭৩৮)রাম ভারতীয়ই নন, অযোধ্য নেপালে (৩৬৬০)মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক মন্ত্রী শাহজাহান সিরাজ আর নেই (৩৬০২)ইরানের চাবাহার রেলপ্রকল্প : ভারত আউট, চীন ইন (৩৫৩৪)