০২ অক্টোবর ২০২২, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯, ৫ রবিউল আওয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

খেরসনকে বিচ্ছিন্ন করলো ইউক্রেন

খেরসনকে বিচ্ছিন্ন করলো ইউক্রেন - ছবি : সংগৃহীত

পূর্ব ইউক্রেনের খেরসন অঞ্চল যুদ্ধের একেবারে গোড়াতেই দখল করে নিয়েছিল রাশিয়া। এই অঞ্চলে প্রায় ৩০ লাখ মানুষ থাকেন। ইউক্রেন এই অঞ্চলটিকে অত্যন্ত গুরুত্ব দেয় এবং নিজেদের অঞ্চল বলে মনে করে। দীর্ঘ যুদ্ধের পর সেই খেরসনে কৌশলগত সুবিধা পাওয়ার রাস্তা তৈরি করল ইউক্রেন। অন্তত, ইউক্রেনের সেনার দাবি তেমনই।

ইউক্রেন জানিয়েছে, রাশিয়ার মূল ভূখণ্ড থেকে খেরসন প্রবেশের অন্যতম রাস্তা নিপ্রো নদী। ওই নদীর উপর গুরুত্বপূর্ণ একটি সেতু ছিল। এতদিন সেই সেতুর ব্যবহার করেই খেরসনে সেনা এবং রসদ পাঠিয়েছে রাশিয়া।

ইউক্রেন কয়েক দিন আগে দাবি করেছিল, সেতুর সেই রাস্তা তারা বন্ধ করে দিতে পেরেছে। সেতুটি নষ্ট করে দেয়া গেছে। সোমবার তারা জানিয়েছে, রাতভর ওই সেতুতে শেলিং করে সেটি সম্পূর্ণ ধ্বংস করে দেয়া হয়েছে। এর ফলে ওই সেতু পার করে রাশিয়া খেরসনে নতুন করে সেনা বা রসদ পাঠাতে পারবে না। খেরসনে অবস্থিত রাশিয়ার সেনাও বাইরে যেতে পারবে না। তারা কার্যত অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে।

রাশিয়ার মদতপুষ্ট বিচ্ছিন্নতাবাদী যোদ্ধারাও একথা স্বীকার করেছে। তবে তারা জানিয়েছে, ইউক্রেনের আক্রমণে সেতুটি বিপুলভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে সম্পূর্ণ ভেঙে গেছে, একথা তারা স্বীকার করেনি। বরং তাদের বক্তব্য, রাশিয়া ইতোমধ্যেই সেতুটি সংস্কারের কাজ শুরু করেছে।

নৌকার মাধ্যমেও তারা জিনিসপত্র আদানপ্রদান করতে পারবে বলে বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতারা জানিয়েছেন। যদিও ইউক্রেন সেই কথায় আমল দেয়নি। তাদের বক্তব্য, এবার খেরসনে পুনর্দখলের কাজ শুরু হবে।


আরো সংবাদ


premium cement
সংখ্যালঘুদের ওপর হামলাকারীরা কোনো দলের নয়, তারা দুর্বৃত্ত : কাদের দীপ্তির পাশে দাঁড়ালেন জ্যোতি বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পাস সরানোর দাবিতে মানারাতে মানববন্ধন খুলনায় ট্রলির ধাক্কায় কলেজ-অধ্যক্ষ নিহত সবার মাঝে ইসলামের সৌন্দর্য ছড়িয়ে দিতে যুক্তরাষ্ট্রে বিশেষ কর্মশালা ইউরোজোনে মূল্যস্ফীতি রেকর্ড বিমানবন্দর সড়কে তীব্র যানজট, ভোগান্তিতে যাত্রীরা মেসির বিশ্বসেরা ফ্রি কিক টেকারদের একজন হয়ে উঠার গল্প ধরা পড়ছে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ, জেলেদের মুখে হাসি ইন্দোনেশিয়ায় ট্রাজেডির পর ফুটবলের নিরাপত্তা পর্যালোচনার নির্দেশ প্রেসিডেন্টের তাদের সকল অপকর্ম দেশে বিদেশে মানুষের মুখে মুখে : রিজভী

সকল