০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ৪ জিলহজ ১৪৪৩
`

রুশ হামলা থেকে বাঁচতে ৫০০ বাঙ্কার ফিনল্যান্ডে

রুশ হামলা থেকে বাঁচতে ৫০০ বাঙ্কার ফিনল্যান্ডে - ছবি : সংগৃহীত

ন্যাটোয় যোগ দেয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিল ইউক্রেন। ওই কারণে ইউক্রেনে হামলা চালায় রাশিয়া। এখন রাশিয়ার নিকটতম প্রতিবেশী ফিনল্যান্ডের ন্যাটোয় যোগদানের সিদ্ধান্তের পর কী হতে চলেছে তা সময় বলবে। তবে আগে থেকেই নিরাপত্তা জোরদার করতে শুরু করেছে ফিনল্যান্ড।

রাশিয়ার হামলা থেকে জনগণকে রক্ষার উপায় কী হবে তা এখনই ভাবতে হচ্ছে ফিনিশ প্রধানমন্ত্রী সানা মারিন ও তার প্রশাসকে। রুশ হামলা শুরু হলে তারা ভূ-পৃষ্ঠের হেলসিঙ্কি ছেড়ে ভূগর্ভের হেলসিঙ্কিতে চলে যাবেন। মানে ৭৫ বছর আগে যেসব বাঙ্কার তৈরি হয়েছিল হেলসিঙ্কিতে, সেগুলোই এখন কাজে লাগানো হবে।

ইতিহাস থেকে জানা যায়, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালে ফিনল্যান্ড আক্রমণ করেছিল রাশিয়া। ১৯৩৯-৪০ সালে সাড়ে তিন মাস ধরে চলা সেই যুদ্ধে বড় ধরনের ক্ষতির মুখে পড়ে ফিনল্যান্ড। বিমান হামলায় ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয় রাজধানী হেলসিঙ্কি। সেই অভিজ্ঞতা থেকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ শেষ হওয়ার পর ১৯৪৫ সালে শুরু হয় মাটির নিচে বাঙ্কার বানানো। ফিনিশ ইঞ্জিনিয়ারদের তৈরি ২০০ মাইল বিস্তৃত মাটির নিচের এই এলাকাটিতে রয়েছে অন্তত ৫০০ বাঙ্কার। নির্মাণশৈলী অনুসারে অন্তত ৯ লাখ মানুষের স্থান হবে বাঙ্কারগুলোতে। এমনিতে রাজধানী হেলসিঙ্কির জনসংখ্যা সাড়ে ছয় লাখ। ফলে পুরো রাজধানীই আন্ডারগ্রাউন্ডে আশ্রয়ই নিতে পারবে খুব সহজেই। ফলে ধারণা করা হচ্ছে ইউক্রেনের মতো অসহায় নয় বরং বেশ প্রস্তুতি নিয়েই ন্যাটোর কড়া নাড়ছে ফিনল্যান্ড।

সূত্র : পুবের কলম


আরো সংবাদ


premium cement