২০ জুন ২০২১
`

লকডাউন তুলে নেয়ায় পর্তুগালে কমছে বেকারত্ব

লকডাউন তুলে নেয়ায় পর্তুগালে কমছে বেকারত্ব - ছবি : সংগৃহীত

মহামারী করোনাভাইরাস রোধে পর্তুগাল সরকারের জারি করা জরুরি অবস্থা ও লকডাউনের ফলে সব ধরনের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে হয়েছিল। তবে এ সময় খোলা ছিল জরুরি প্রয়োজনীয় কিছু দোকানপাট। ফলে বেড়ে যায় বেকারত্ব। বিশেষ করে এ সংখ্যা বেড়েছে এ বছরের জানুয়ারি থেকে মার্চের মাঝামাঝি সময়। মার্চের শেষের দিকে লকডাইন তুলে নেয়ায় পাল্টাতে শুরু করে বেকারত্বের চিত্র। এপ্রিলের প্রথমদিকে খুলে দেয়া হয় অনেক ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান। যেখানে মার্চে নিয়োগ ও পেশাগত প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে (আইইএফপি) বেকারের সংখ্যা ছিল চার লাখ পাঁচ হাজার ৩৭৪ জনে। সেখানে এপ্রিলে তা কমে দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৯৬ হাজার ৭০৭ জনে।

২০১৯-২০ সালে আয় কমেছে ২৫ ভাগ। এ সময় সরকারের পক্ষ থেকে তাদের অর্থ সহায়তা দেয়া হয়।

এ ছাড়া বন্ধ থাকা ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের মালিককে আর্থিক প্রণোদনা দেয়া হয়। তবে প্রণোদনা দেয়ার ক্ষেত্রে সরকার বেঁধে দেয় বিভিন্ন শর্ত। যা অনেক বাংলাদেশী ব্যবসায়ীর পক্ষে মানা সম্ভব ছিল না।

এ দিকে এপ্রিল মাসে আইইএফপিতে নিবন্ধিত বেকার হয়েছেন ৩৫ হাজার ৪৭৮ জন। যা গত এক বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন। যেখানে চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে ছিল সর্বোচ্চ ৪৬ হাজার ৮৬৮ জন।



আরো সংবাদ