২২ জুন ২০২১
`

করোনা সংক্রমণ বাড়ায় ফ্রান্স ও ইতালিতে লকডাউন

লকডাউনে প্যারিসে বন্ধ ক্যাফে - ছবি : বিবিসি/রয়টার্স

করোনাভাইরাস সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় আবার লকডাউনের পথে গিয়েছে ইউরোপের দেশ ফ্রান্স ও ইতালি। রোববার থেকে ভাইরাস সংক্রমণ রোধে দুই দেশে লকডাউন চালু করা হয়েছে।

এর আগে গত বুধবার ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইম্যানুয়েল ম্যাক্রো টেলিভিশনে প্রচারিত এক ভাষণে রোববার থেকে চালু হওয়া ফ্রান্সের তৃতীয় দফার লকডাউনের ঘোষণা দেন। ওই ভাষণে ভাইরাস সংক্রমণ বাড়ার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, 'আমরা যদি কিছুই না করি, তবে নিয়ন্ত্রণ হারাবো।'

ভাষণে ম্যাক্রো তিন সপ্তাহের জন্য সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার এবং এক মাসের জন্য অভ্যন্তরীণ যাতায়াত নিষেধাজ্ঞার আরোপের ঘোষণা দেন। পাশাপাশি প্রকাশ্যে ছয়জন বা তার বেশি লোকের একত্রিত হওয়ার নিষেধাজ্ঞার পাশাপাশি সন্ধ্যা ৭টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত কারফিউ থাকার ঘোষণা দেন তিনি।

লকডাউনের আওতায় কোনো ব্যক্তিকে ১০ কিলোমিটারের বেশি দূরত্বে ভ্রমণ করতে হলে তার জন্য কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিতে হবে।

লকডাউন কার্যকরের আগেই রাজধানী প্যারিসের অনেক বাসিন্দাই ফরাসি রাজধানী ছেড়েছেন।

পুলিশ জানিয়েছে, প্যারিসে নতুন নিষেধাজ্ঞা কার্যকরে পুলিশের ছয় হাজার ছয় শ' কর্মীকে নিয়োজিত করা হয়েছে।

অপরদিকে ইস্টার সানডের উৎসবের শুরুতে তিনদিনের কঠোর লকডাউন দেয়া হয়েছে ইতালিতে। পাশাপাশি দেশটিতে অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

তবে রোববার ইস্টার সানডের উৎসবে খোলা রয়েছে গির্জাগুলো। তবে গির্জায় এসে প্রার্থনার জন্য নিরুৎসাহিত করা হয়েছে।

জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুসারে, রোববার বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত ফ্রান্সে করোনাভাইরাস সংক্রমণে আক্রান্ত হয়েছে মোট ৪৭ লাখ ৪১ হাজার ৭৫৯ জন। ভাইরাস সংক্রমণে দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৯৬ হাজার ৪৯৩ জন। অন্যদিকে ইতালিতে ভাইরাস সংক্রমণে আক্রান্ত হয়েছে ৩৬ লাখ ৫০ হাজার ২৪৭ জন। ভাইরাস সংক্রমিত হয়ে মৃত্যু হয়েছে এক লাখ ১০ হাজার ৭০৪ জনের।

সূত্র : আলজাজিরা



আরো সংবাদ