১৭ এপ্রিল ২০২১
`

ডিজিটাল ভ্যাকসিন সার্টিফিকেট প্রণয়ন করবে ইইউ

ডিজিটাল ভ্যাকসিন সার্টিফিকেট প্রণয়ন করবে ইইউ - ছবি : সংগৃহীত

যারা কভিড -১৯ মুক্ত তাদের জন্য বিনামূল্যে ডিজিটাল ভ্যাকসিন সর্টিফিকেট গ্রিন পাস তৈরির পরিকল্পনা প্রকাশ করেছেন ইউরোপীয় ইউনিয়ন কমিশনের প্রেসিডেন্ট উরসুলা ভন ডার লেন।

তিনি বৃহস্পতিবার এক টুইট বার্তায় ইউরোপের ব্যবসা ও পর্যটন ভ্রমণ পুনরুদ্ধারের জন্য এই পরিকল্পনার কথা জানান । তিনি বলেন, এই মাসেই আমরা এই বিষয়ে আইন প্রণয়নের প্রস্তাব করবো । সেই গ্রিন পাস কি ভ্যাকসিন পাসপোর্টের মতো হবে ? এমন রিপ্লাইয়ে তিনি আরেকটি টুইট করে জানান অবশ্যই ভ্রমণকারীর সম্পূর্ণ ডিটেইলস থাকবে সেখানে ।

ভ্রমণকারী কি কখনো কভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছিলেন, তিনি কি এর প্রতিকারে ভ্যাকসিন নিয়েছেন, যদি আক্রান্ত না হয়ে থাকেন কিংবা ভ্যাকসিন না নিয়ে থাকেন, তাহলে ভ্রমণের পূর্বে তিনি কভিড টেস্ট করিয়েছেন কি না ? টেস্টের রিজাল্ট কি এসেছে ইত্যাদি তথ্য সংযুক্ত থাকিবে এই ডিজিটাল গ্রিন পাসে ।

তিনি বলেন ডিজিটাল গ্রিন পাসের মাধ্যমে ইউরোপীয় নাগরিকদের জীবন যাত্রা স্বাভাবিক হবে । এর মূল লক্ষ্য হলো ,আস্তে আস্তে যাহাতে তারা ভ্রমন কিংবা কাজের জন্য ইউরোপের ভিতরে কিংবা বাহিরে নিরাপদে ভ্রমন করতে পারে । তবে তার টুইটে কবে নাগাদ এই ডিজিটাল গ্রিন পাস আসতে পারে তার কোন ব্যাখ্যা দেননি । তবে গত ২৫ শে ফেব্রুয়ারির সংবাদ সম্মেলনে তিনি ইঙ্গিত দিয়েছিলেন যে, আগামী তিন মাসের ভিতরে এই ডিজিটাল গ্রিন পাস তৈরি হবে ।

তবে ইউরোপীয় কমিশনের এই সিদ্ধান্তে অনেক নাগরিক-ই খুশি নন । অনেকেই কমেন্ট করে তাদের ক্ষোভের কথা জানিয়েছেন । একজন মন্তব্যকারি বলেন, ইউরোপের ভ্যাকসিন সার্টিফিকেট বা পাসপোর্টের কেনো প্রয়োজন, যেখানে ইউরোপীয় কাউন্সিল এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থ্যা বলেছে এটা হওয়ার দরকার নেই বা উচিত নয়। বিশ্বের সংখ্যাগরিষ্ঠ লোক ই ভ্যাকসিন পাচ্ছেনা, এটা তাদের জন্য বৈষম্য ছাড়া কিছুই নয় ।

উল্লেখ্য ইউরোপীয় কমিশন এমন সময় এই সিদ্ধান্ত নিলো যখন ইউরোপীয় ইউনিয়নের অনেক দেশই ভ্যাকসিন সার্টিফিকেট দেয়ার কথা ভাবছে, যেমন ডেনমার্ক, সুইডেন, স্পেন, পর্তুগাল, গ্রীস, সাইপ্রাস ,ইতালি, হাংগেরি, পোল্যান্ড,আইসল্যান্ড, স্লোভাকিয়া ইত্যাদি ।



আরো সংবাদ