১৯ জুন ২০২১
`

জার্মানিতে ১ বছরে ৯০১ মুসলিম বিদ্বেষী হামলা

জার্মানিতে হামলার শিকার মসজিদ - ছবি : সংগৃহীত

ইউরোপের দেশ জার্মানিতে ইসলামোফোবিক ও মুসলিম বিদ্বেষী হামলা দিন দিন বাড়ছে। ২০২০ সালে দেশটিতে এমন অন্তত নয় শ’ একটি হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে সোমবার জার্মান এক সংবাদপত্রে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

নয়ার অজনাব্রুকার জাইটুংয়ে প্রকাশিত এই প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০২০ সালে নয় শ’ একটি মুসলিম বিদ্বেষী হামলার ঘটনা নথিভুক্ত করা হয়েছে, যা আগের বছরের তুলনায় দুই ভাগ বেশি। ২০১৯ সালে জার্মান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আট শ’ ৮৪টি মুসলিম বিদ্বেষ সংশ্লিষ্ট অপরাধের কথা জানিয়েছিল।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে জনসমাগম নিয়ন্ত্রিত হলেও স্থাপনার দেয়ালে নাৎসি চিহ্ন আঁকা, লিখিত হুমকি দেয়া, মুসলিম নারীদের স্কার্ফ টেনে খোলাসহ জার্মানিতে বাস করা মুসলমানদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন আক্রমণাত্বক অপরাধ বেড়েছে।

জার্মান লেফট পার্টির সদস্য উলা জেলপকে হামলার এই তথ্যকে ‘হিমশৈলের চূড়া’ হিসেবে উল্লেখ করেন।

জেলপকে বলেন, বেশিরভাগ ভুক্তভোগীই ভয় বা লজ্জা থেকে নিরাপত্তা বাহিনীর কাছে অভিযোগ করেন না।

তিনি বলেন, এই বৈষম্য কার্যকর পন্থায় মোকাবেলা করতে হবে।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে জার্মানিতে বর্ণবাদ ও মুসলিমবিরোধী ঘৃণার বিস্তার ঘটছে। নিও-নাৎসি গোষ্ঠীগুলো ও উগ্র জাতীয়তাবাদী বিরোধী রাজনৈতিক দল অল্টারনেটিভ অব জার্মানি (এএফডি) এই ঘৃণা ছড়িয়ে দিতে প্রচারণা-প্রপাগান্ডা চালাচ্ছে।

আট কোটির বেশি জনসংখ্যার দেশ জার্মানিতে পশ্চিম ইউরোপের দ্বিতীয় বৃহত্তম মুসলিম জনগোষ্ঠীর বাস। দেশটিতে প্রায় ৪৭ লাখ মুসলমান বাস করছেন।

সোমবারের জার্মান সংবাদপত্রের প্রতিবেদনে বলা হয়, অপরাধকারীরা বেশিরভাগই উগ্র জাতীয়তাবাদী। ২০২০ সালে জার্মানিতে মুসলিম বিদ্বেষী এই সকল অপরাধে দুইজন নিহত ও ৪৮ জন শারীরিকভাবে আহত হয়েছেন।

গত বছর জার্মান লেফট পার্টির পরিচালিত এক তদন্তে দেখানো হয়, ২০১৯ সালে জার্মানিতে বছরের প্রতি দ্বিতীয়দিন কোনো না কোনো মসজিদ, মুসলিম সংস্থা বা ধর্মীয় প্রতিনিধিত্বকারী স্থাপনা ইসলামোফোবিক হামলার শিকার হয়েছে।

সূত্র : ডেইলি সাবাহ



আরো সংবাদ