২৫ জানুয়ারি ২০২১
`

হুমকির মুখে জার্মান গণতন্ত্র


জার্মানিতে গণতন্ত্র বিকাশের জন্য আবার একটি নতুন আইন প্রণয়নের আহ্বান জানিয়েছে ম্যার্কেল সরকারের অংশীদার সোশ্যাল ডেমোক্র্যাট দল৷

যুবভিত্তিক কাজকর্মে উদার, উন্মুক্ত ও গণতান্ত্রিক সংস্কৃতির চর্চা আক্রমণের মুখে পড়ছে জানিয়েছে জার্মানির নাগরিক গোষ্ঠীগুলো৷

চরম দক্ষিণপন্থিদের বিরুদ্ধে প্রকল্পগুলোর জন্য স্থিতিশীল তহবিলের দাবি ৬০টি নাগরিক গোষ্ঠীর৷ জার্মান সমাজকে দুর্বল করার জন্য জার্মানিতে চরম দক্ষিণপন্থিদেরপ্রচেষ্টা ব্যর্থ করার লক্ষ্যে জার্মানির ফেডারেল সংসদ বুন্ডেসটাগ একটা আইন পাস করেছে ৷

আইনটি যথেষ্ট নয় বলে মনে করেন এসপিডি দলের প্রধান জাসকিয়া এসকেন৷ তিনি বলেন,‘উগ্র দক্ষিণপন্থিরা প্রকাশ্যে কিভাবে আমাদের গণতন্ত্রের ওপর আক্রমণ চালাচ্ছে, আমরা তা দেখছি৷’

এসপিডি বা সামাজিক গণতন্ত্রী দলের সদস্য পরিবার কল্যাণ বিষয়ক মন্ত্রী ফ্রান্সিসকা গিফে এবং আইনমন্ত্রী ক্রিস্টিনে লামব্রেক্ট গণতন্ত্র বিকাশের জন্য একটি বিল মন্ত্রিসভায় উপস্থাপন করেন৷ তবে ম্যার্কেলের মন্ত্রীসভার রক্ষণশীল সদস্যরা সে বিলটি পাসের বিরোধিতা করছেন৷ বুধবার মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকের আগে বার্লিনভিত্তিক সংবাদপত্র তাজকে এসকেন বলেন,‘এই বিরোধিতা আমাদের বোধগম্য নয়, তবে তা বিপজ্জনক।’

গত ফেব্রুয়ারিতে হানাউ শহরে সন্ত্রাসী হত্যাকাণ্ডের পর বর্ণবাদবিরোধী একটি খসড়া আইন প্রণয়নের জন্য এই কমিটি গঠন করা হয়৷ এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন,‘গণতন্ত্রের শত্রুদের মোকাবেলা করতে আমাদের দৃঢ়সংকল্পবদ্ধ থাকতে হবে৷’

সেপ্টেম্বর মাসে পার্লামেন্টে, জার্মানির গণতন্ত্রের বিকাশে বর্তমান এসপিডি দলের মতো একই ধরনের উদ্যোগ নিয়ে বিরোধী সবুজদল ব্যর্থ হয়৷

প্রায় ৬০টি নাগরিক গোষ্ঠী সাম্প্রতিক এক চিঠিতে তাজ পত্রিকার উদ্ধৃতি দিয়ে মার্কেলের মহাজোট সরকারকে সতর্ক করে দেয়৷ নাগরিক গোষ্ঠীগুলোর মতে, তাদের যুবভিত্তিক কাজকর্মে উদার, উন্মুক্ত ও গণতান্ত্রিক সংস্কৃতির চর্চা আক্রমণের মুখে পড়ছে৷

২০২১ সালের প্রথম কোর্য়াটারে মন্ত্রিসভা কমিটির ফলাফল প্রকাশ করা হবে বলে জানান ম্যার্কেল সরকারের মুখপাত্র  স্টেফেন জাইবার্ট গত শুক্রবার৷ সূত্র : ডয়চে ভেলে



আরো সংবাদ