১৪ আগস্ট ২০২০

নিজ দেশ স্লোভেনিয়াতেই পুড়িয়ে দেয়া হলো মেলানিয়া ট্রাম্পের মূর্তি

24tkt

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্পের নিজ দেশ স্লোভেনিয়া। সেখানেই গতবছর তার একটি কাঠের ভাস্কর্য তৈরি করা হয়েছিল। পরে তা সাড়ম্বরে উদ্বোধনও করা হয়। কিন্তু উদ্বোধনের পর বছর পার না হতেই এবার সেটি পুড়িযে দেয়া হয়েছে। এটি ছিল স্লোভেনিয়ার প্রথম কোনো নারীর কাঠের তৈরি ভাস্কর্য।

আগুনে পুড়িয়ে দেয়ার পর মূর্তিটির মুখ এতোটাই কালো হয়ে গিয়েছে যে সেই মুখ দেখে কিছুই চেনা যাচ্ছে না। তবে মূর্তির পরনের পোশাকটি থেকে স্পষ্ট মেলানিয়া ট্রাম্পকে চিহ্নিত করা যাচ্ছে। মূর্তির পরনে হালকা নীল রঙের র‍্যাপরাউন্ড কোট। এই পোশাকটিই মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ডোনাল্ড ট্রাম্পের শপথগ্রহণের অনুষ্ঠানে মার্কিন ফার্স্টলেডির পরনে ছিল। গত বছর স্লোভেনিয়ার মোরাভকে শহরে একইভাবে পোড়ানো হয়েছিল মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের একটি মূর্তি।

জার্মানীর রাজধানী বার্লিনে বসবাসকারী ব্র্যাড ডোনিয়ে নামে এক আমেরিকান শিল্পী মূর্তিটি তৈরি করেছিলেন। গত ৪ জুলাই আমেরিকার স্বাধীনতা দিবসে মূর্তিটিতে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়।

এ বিষয়ে ভাস্কর্যটির স্থপতি ব্র্যাড বলেন, ভাস্কর্যটিকে পুড়িযে নষ্ট করে দেয়ার পর গত ৫ জুলাই এটি সরিয়ে ফেলা হয়েছে। ৩৯ বছর বয়সী ডোনিয়ে এ ঘটনায় পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

তবে দেশটির পুলিশের মুখপাত্র আলেঙ্কা ড্রেনিক বলেছেন, মামলার তদন্ত এখনো শেষ হয়নি। তাই আমরা এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করছি না।

অবশ্য ওয়াশিংটনে মেলানিয়া ট্রাম্পের কার্যালয় থেকে এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করা হয়নি।

উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক সময়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ঐতিহাসিক স্মৃতিস্তম্ভগুলো ধ্বংস বা ভাঙচুরের ঘটনা ঘটছে। সূত্রঃ দ্যা গার্ডিয়ান


আরো সংবাদ

সকল