০৭ এপ্রিল ২০২০

চোখে ট্যাটু করে অন্ধ হয়ে গেলেন জনপ্রিয় এই মডেল

বর্তমানে ‘ট্যাটু’ বিষয়টি তথাকথিত স্টাইল দেখানোর বা স্টাইলিশ হওয়ার ক্ষেত্রে ‘ভীষণ ভাবে জনপ্রিয়’। একাধিক জনপ্রিয় মডেল, তারকা নিজেদের আরো সুন্দর দেখানোর জন্য নিজেদের শরীরের বিভিন্ন অংশে ট্যাটু করে থাকেন। কিন্তু সম্প্রতি এই ট্যাটু করেই অন্ধ হয়ে গেছেন পোল্যান্ডের জনপ্রিয় মডেল আলেক্সান্দ্রা সাদোয়াস্কা।

পোল্যান্ডের এই বিখ্যাত মডেল নিজেকে আরো মোহময়ী করে তোলার জন্য নিজের চোখে করেছিলেন ট্যাটু। এমনিতেই ট্যাটু বিষয়টি বেশ যন্ত্রণাদায়ক। একাধিক সূচের সাহায্যে এই ট্যাটু করা হয়ে থাকে। সব কষ্ট সহ্য করেও তিনি নিজের চোখে করেছিলেন এই ট্যাটু। বিখ্যাত র‍্যাপার পপেক কে দেখে তিনি এই স্টাইলটি অনুকরণ করেছিলেন।

চোখের ট্যাটুকে স্কেলেরাল ট্যাটুও বলা হয়ে থাকে। আর এই ক্ষেত্রে চোখের মণির চারপাশে সূঁচ দিয়ে ডিজাইন করা হয়ে থাকে। সূঁচ দিয়ে চোখের ভেতরে রং প্রবেশ করানো হয়। তবে এর ফলে অনেক সমস্যা দেখা দিতে পারে তা অনেক বিশেষজ্ঞরাই জানিয়েছেন।

চোখে ট্যাটু করানোর পর থেকেই ২৫ বছর বয়সী জনপ্রিয় এই মডেলের বাম চোখে ব্যাথা হতে শুরু করে। আর এই ব্যাথার কথা তিনি তার ট্যাটু আর্টিস্টকে জানালে তিনি বলেন- বিষয়টি অতীব সাধারণ। পাশপাশি তিনি আলেক্সান্দ্রাকে ব্যাথা কমানোর ওষুধ খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন। ব্যাথা তো কমেইনি বরং ট্যাটু করার নামে সেই মডেলকে অন্ধ করে দেয়ায় বর্তমানে তিনি তিন বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হয়েছেন। যদিও ওই মডেল নিজের চোখের দৃষ্টি ফিরে পাওয়ার জন্য ডাক্তারের শরণাপন্ন হয়েছেন। তবে কোনো আশানুরূপ মন্তব্য তিনি শুনতে পাননি বিশেষজ্ঞ সেই সব ডাক্তারের নিকট থেকে।

তবে তিনি এই মুহূর্তে আতঙ্কিত হয়ে রয়েছেন সম্পূর্ণ অন্ধ হয়ে যাওয়ার বিষয় নিয়ে। তবে বিষয়টি নিয়ে সকল ট্যাটু প্রেমীরা সাবধান হন। কারণ সাময়িক আকর্ষণের বশবর্তী হয়ে নিজের ভবিষ্যৎ নষ্ট করার কোনো মানে দেখছেন না ডাক্তাররা। সূত্র : কলকাতা২৪


আরো সংবাদ

দীর্ঘদিন জেলখাটা আসামিদের মুক্তির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর (২৭৯১৩)করোনা ছড়ানোয় চীনকে যে ভয়ঙ্কর শাস্তি দেয়ার দাবি উঠল জাতিসংঘে (১৭৬৭৩)গাদ্দাফিকে উৎখাতকারী জিবরিলের করোনায় মৃত্যু (১৫৭৯০)রমজান মাসে অফিসের সময়সূচি নির্ধারণ (১৪৩১৪)উকুন মারার ওষুধে ৪৮ ঘণ্টায় খতম করোনা (১৩৯১৮)করোনায় মৃতদের জানাজা-দাফনে প্রস্তুত এক ঝাঁক আলেম (১২৯১২)এবার করোনায় আক্রান্ত বাঘ (১০৬৬১)৩ ঘণ্টার রাস্তা পাড়ি দিয়েছেন ২ দিন, খরচ হয়েছে ৪ হাজার টাকা! (১০৫১৮)'মেয়েকে কোলেও নিতে পারছি না!' দূর থেকে ভেজা চোখে তাকিয়ে পুলিশ অফিসার (১০০৭২)করোনার চিকিৎসায় তুরস্কের অভূতপূর্ব পদক্ষেপ, পাল্টে যাচ্ছে চিকিৎসা পদ্ধতি (৯৭০৬)