০৬ মে ২০২১
`

স্বপ্নের বাড়ি মাত্র ৯৪ টাকায়!

স্বপ্নের বাড়ি মাত্র ৯৪ টাকায়! - ছবি : সংগৃহীত

ইতালির নেপলস শহর থেকে মাত্র দুই ঘণ্টার দূরত্বে অবস্থিত বিসাকিয়াতে মাত্র বাংলাদেশী মুদ্রায় ৯৪ টাকা দিলেই আস্ত একটি বাড়ি কিনতে পারবেন আপনি! ইতালির একটি গোষ্ঠী কেবলমাত্র এক ইউরো অর্থাৎ ৯৪ টাকা দিলেই এই ঘরগুলো বিক্রি করছেন। উদ্দেশ্য জনসংখ্যা বাড়ানো। আপনাদের জানিয়ে দিই এই গ্রামের জনসংখ্যা ভীষণই কম হয়ে গেছে। আর সেই কারণেই এই সংস্থা এক ইউরোতে বাড়ি বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ডেইলি মেইলের রিপোর্ট অনুযায়ী নীল, গোলাপি, সবুজ আর হলুদ রঙের এই বাড়িগুলো কেনার জন্য আপনাকে খুব একটা দৌড়োদৌড়ি করতে হবে না। কারণ এই বাড়িগুলো ওখানকার স্থানীয় মানুষই বিক্রি করছেন। এই বাড়ির পুরনো মালিকের সঙ্গেও দেখা করার কোনো দরকার নেই। সিএনএন-ট্রাভেল অনুসারে এখানে বসবাসকারী অনেকেই উন্নত ভবিষ্যতের জন্য এখানকার ঘরবাড়ি ছেড়ে চলে গিয়েছেন। আর সেই কারণেই এখানকার সমস্ত ঘরবাড়ির স্থানীয় লোকজনের কাছে রয়েছে।

এই শহরের ডেপুটি মেয়র ফ্রানসেস্কো টোর্টাগ্লিয়া জানিয়েছেন," আমরা এখানকার বিশেষ পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছি। এখানে যে বাড়িগুলো লোকজন ছেড়ে দিয়ে চলে গেছেন, সেগুলি সবই গ্রামের পুরনো অংশে অবস্থিত সেই ঘরগুলি প্রত্যেকটি একে অপরের সঙ্গে জুড়ে রয়েছে। বেশকিছু ঘরের দরজাও এক। আর এই কারণেই আমরা এখানে পরিবার, বন্ধু বান্ধবের গোষ্ঠী, আত্মীয়-স্বজন, এমন মানুষ যারা একে অপরকে জানেন তাদেরকেই স্বাগত জানাচ্ছি। যাতে এই ঘরগুলো বিক্রি হয় বা তারা ঘরগুলো কেনেন।"

এরপরে তিনি জানিয়েছেন, " আমরা তাদের উৎসাহ দেব, যাতে একের বেশি ঘর তারা কেনেন।" এখানে ওসকন ভাষীরা থাকতেন যারা ইম্পেরিয়াল রোমের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছিলেন। পরে তারা দক্ষিণ ইতালির বিভিন্ন অংশের দখল নেয় ।

বিসাকিয়াতে এক ইউরো দিয়ে বাড়ি বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয় সিসিলিকে দেখে ,আসলে ২০১৯ এ দক্ষিণ সিসিলির জনসংখ্যা ৩৮০০ হয়ে গিয়েছিল । আর তারপরেই সেখানকার মানুষজন জনসংখ্যা বাড়ানোর জন্য এক ইউরো দিয়ে বাড়ি বিক্রি শুরু করেন।
সূত্র : এনডিটিভি



আরো সংবাদ


মোদি বিরোধিতায় এখন জাতীয় মুখ মমতা, তৃণমূল সুপ্রিমোর স্তুতি কংগ্রেস নেতার সিসিইউতে যেমন আছেন খালেদা জিয়া ভারতের বাইরে হতে পারে আইপিএলের বাকি ম্যাচ, ৩টি বিকল্প ভেন্যু বিজেপির তারকা প্রার্থীদের 'নগরের নটী' বললেন তথাগত, বিতর্ক তুঙ্গে দুটি কিডনি নষ্ট, বাঁচতে চায় জসীম উদ্দীন নেতানিয়াহুর ব্যর্থতায় ইসরাইলে সরকার গঠনে মনোনয়ন পেলেন লাপিদ শিক্ষক নিবন্ধন, উত্তীর্ণদের নিয়োগে সুপারিশের নির্দেশ ভালো-মন্দের পার্থক্য বোঝা খুব গুরুত্বপূর্ণ : মিশা সওদাগর ইসরাইলের আয়ু খুব শিগগিরই ফুরিয়ে যাবে : সাইয়্যেদ নাসরুল্লাহ ট্রাকচাপায় শাবি শিক্ষার্থী নিহত অনিয়ন্ত্রিত গতিতে ভূপৃষ্ঠে আছড়ে পড়তে পারে চীনের বৃহত্তম রকেট

সকল

দূরপাল্লার বাসের অনুমতি না দিলে সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়বে (১০১১৮)আসামে মাওলানা আজমলের চমক (৮৭৯৯)গৃহকর্মীকে টানা ১ বছর ধর্ষণ : অভিযুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ছাত্র গ্রেফতার (৮৫২৪)বন্ধ হতে পারে বেসরকারি কলেজের অনার্স-মাস্টার্স (৮৪৫৩)বৃহস্পতিবার থেকে চলবে বাস, মানতে হবে যেসব নির্দেশনা (৬১৪৩)প্রথমবারের মতো হাজরে আসওয়াদ পাথরের ছবি উন্মোচন করল সৌদি (৫৮৫৪)করোনায় বিপর্যস্ত মোদীর আসন বারাণসী, ক্ষোভে ফুটছে মানুষ (৪৮৫৮)১৫ গুণ বেশি ভয়ঙ্কর! আতঙ্ক ছড়াচ্ছে অন্ধ্রের নয়া করোনা স্ট্রেন (৪৬৫৫)রামমন্দিরের শহরে পঞ্চায়েত ভোটে ধরাশায়ী বিজেপি, খারাপ ফল বারাণসীতেও (৪৬০৯)কেবল টুইটার নয়, এ বারে কাজের সুযোগ হারালেন কঙ্গনা (৪৫২২)