০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ৭ জিলহজ ১৪৪৩
`

সিনেমা প্রদর্শনের সাথে কানে চলছে প্রতিবাদও

-

রেড কার্পেট, নতুন সিনেমার পাশাপাশি ৭৫তম কান চলচ্চিত্র উৎসবে চলছে ইউক্রেন যুদ্ধের প্রতিবাদ। করোনা পরবর্তি সময়ের কান উৎসবে এবার প্রকৃতি রক্ষার আন্দোলনকে সবচেয়ে গুরুত্ব দেয়ার কথা থাকলেও সে জায়াগ দখল করে নিচ্ছে ইউক্রেনে সাধারণ মানুষের হাহাকারের কথা। এরমধ্যেই গত শুক্রবার সন্ধ্যায় অনাকাক্সিক্ষত ঘটনার সাক্ষী হলো দক্ষিণ ফরাসি উপকূলের শহর। এদিন লালগালিচায় অভিনব কায়দায় প্রতিবাদ করে তোলপাড় সৃষ্টি করেছেন একজন নারী। তার বুক থেকে পেট পর্যন্ত দেখা গেছে ইউক্রেনের জাতীয় পতাকার নীল ও হলুদ রঙ। তাতে লেখা ছিল, ‘স্টপ রেপিং আস (আমাদের ধর্ষণ বন্ধ করুন)।’ পালে দে ফেস্টিভাল ভবনের গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়েরে ছিল অস্ট্রেলিয়ান পরিচালক জর্জ মিলারের ‘থ্রি থাউজেন্ড ইয়ারস অব লংগিং’ ছবির উদ্বোধনী প্রদর্শনী। এতে প্রধান দু’টি চরিত্রে অভিনয় করেছেন টিল্ডা সুইন্টন ও ইদ্রিস অ্যালবা। আচমকা ঘটে যাওয়া বিক্ষোভের কারণে লালগালিচায় ছবিটির কলাকুশলীসহ অতিথিদের পায়চারিতে বিঘœ ঘটে। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি গত মাসে দাবি করেন, রুশ সৈন্যরা যেসব এলাকা দখল করেছিল সেসব জায়গায় শিশুদের যৌন নিপীড়নসহ শত শত ধর্ষণ ঘটনার রিপোর্ট পেয়েছেন তদন্তকারীরা। ৭৫তম কান উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্যাটেলাইটের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে নিজ দেশের জন্য সারা বিশ্বের সহায়তা চেয়েছেন তিনি। সব মিলিয়ে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের হাওয়া বয়ে যাচ্ছে কানসৈকতে।
এ দিকে কান চলচ্চিত্র উৎসবের ধ্রুপদি বিভাগ কান ক্ল্যাসিকসে দেখানো হলো ভারতের দু’টি কালজয়ী ছবি। গত ১৯ মে দুপুর ২টায় সত্যজিৎ রায়ের ‘প্রতিদ্বন্দ্বী’ এবং শনিবার (২১ মে) দেখানো হয় অরবিন্দ গোবিন্দ পরিচালিত ‘থাম্প’। বিভিন্ন দেশের সংবাদকর্মীরা এগুলো উপভোগ করেছেন। সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের উপন্যাস অবলম্বনে বাংলা ছবি ‘প্রতিদ্বন্দ্বী’ মুক্তি পায় ১৯৭০ সালে। এটি ছিল সত্যজিৎ রায়ের কলকাতা ট্রিলজির প্রথম ছবি। ষাটের দশকের শেষের দিক এবং সত্তর দশকের শুরুর প্রেক্ষাপটে ছবিটির গল্প। শনিবার সন্ধ্যা ৬টা ৪৫ মিনিটে কান ক্ল্যাসিকসে ছিল আমেরিকান তারকা দম্পতি জোয়ান উডওয়ার্ড ও পল নিউম্যানের ওপর অভিনেতা-নির্মাতা ইথান হকের প্রামাণ্যচিত্র ‘দ্য লাস্ট মুভি স্টারস’-এর তৃতীয় ও চতুর্থ পর্ব। এরপর রাত ৯টায় প্রদর্শিত হয়েছে চিত্রকর গয়াকে নিয়ে প্রয়াত ফরাসি ঔপন্যাসিক জ্যঁ-ক্লদ ক্যারিয়েরের গবেষণার ওপর প্রামাণ্যচিত্র ‘গয়া, ক্যারিয়ের অ্যান্ড দ্য গোস্ট অব বুনুয়েল’। এটি পরিচালনা করেছেন হোসে লুই লোপেজ-লিনারেস। কান ক্ল্যাসিকসে গত ১৮ মে বেলা ২টায় ব্রাজিলের গ্লবার রোশা পরিচালিত ‘ব্ল্যাক গড, হোয়াইট ডেভিল’ (১৯৬৪) এবং সন্ধ্যা ৭টা ১৫ মিনিটে দেখানো হয় ফরাসি অভিনেত্রী রোমি শ্নাইডারকে কেন্দ্র করে নির্মিত লুসি ক্যারিসের প্রামাণ্যচিত্র ‘রোমি, অ্যা ফ্রি ওম্যান’। গত ১৯ মে বিকেল ৪টা ৩০ মিনিটে ফিলিপাইনের মাইক ডি লিয়নের ‘ইতিম’ (১৯৭৬)। এরপর সন্ধ্যা ৭টা ১৫ মিনিটে প্রদর্শিত হয়েছে আলেকসন্দ মোয়া পরিচালিত প্রামাণ্যচিত্র ‘প্যাট্রিক দ্যুবেয়ার, মাই হিরো’। সবশেষে রাত ৭টা ৪৫ মিনিটে প্রদর্শিত হয়েছে কানের ইতিহাসে নারী হিসেবে প্রথম স্বর্ণপাম জয়ী কিউই পরিচালক জেন ক্যাম্পিয়নের ওপর ইতালির জুলি বের্তোচেল্লির প্রামাণ্যচিত্র ‘জেন ক্যাম্পিয়ন, সিনেমা ওম্যান’। কান ক্ল্যাসিকস শাখার প্রদর্শনী হয়েছে পালে দে ফেস্টিভাল ভবনের সাল বুনুয়েল প্রেক্ষাগৃহে।


আরো সংবাদ


premium cement