২৬ জানুয়ারি ২০২২, ১২ মাঘ ১৪২৮, ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩
`

গানে ৪ জন, উপস্থাপনায় ১ জন মুগ্ধতা ছড়ালেন সবাই

গানে ৪ জন, উপস্থাপনায় ১ জন মুগ্ধতা ছড়ালেন সবাই -

একই মঞ্চে চারজন শ্রোতাপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী গান গাইছেন, এমন দৃশ্য সচরাচর খুব কমই দেখা যায়। তারপরও এই সময়ের নন্দিত শ্রোতাপ্রিয় চার সঙ্গীতশিল্পী- অনুপমা মুক্তি, অপু আমান, মোহাম্মদ রাশেদ ও সানজিদা মাহমুদ নন্দিতাকে একই মঞ্চে একসাথে একটি অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করতে দেখা যায়। রাজধানীর গুলশানের একটি অভিজাত রেস্তোরাঁয় দর্শকনন্দিত উপস্থাপিকা অধরা জাহানের নান্দনিক উপস্থাপনায় এই চারজন শিল্পী এরই মধ্যে গত শুক্রবার অনুষ্ঠানটিতে সঙ্গীত পরিবেশন করেছেন। অনুষ্ঠান শুরু হয় সন্ধ্যা ৭টায়। অনুষ্ঠানের শুরুতেই আমাদের সংস্কৃতি অঙ্গনের বিভিন্ন বিশিষ্ট ব্যক্তিদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। অনুষ্ঠানে সাংস্কৃতিক পর্বের শুরুতেই নন্দিতা দেশাত্মবোধক গান ‘সব কটা জানালা খুলে দাও না’ গানটি পরিবেশন করেন। শুরুতেই অনুষ্ঠানে মুগ্ধতা ছড়ান তিনি। এরপর বাংলাদেশের সঙ্গীতাঙ্গনের জীবন্ত কিংবদন্তি সৈয়দ আবদুল হাদীর গানে সফলতার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে অধরা জাহানের আহ্বানে রাশেদ ও নন্দিতা পরিবেশন করেন ‘কেউ কোনো দিন আমারে তো কথা দিলো না’ এবং মুক্তি ও অপু পরিবেশন করেন ‘একবার যদি কেউ ভালোবাসত’ গান দু’টি। এরপর মূল অনুষ্ঠানে মুক্তি, রাশেদ, অপু ও নন্দিতা পরিবেশন করেন একে একে ‘এক নদী রক্ত পেরিয়ে’, ‘আজ আবার সেই পথে’, ‘ও মোর ময়না গো’, ‘ওরে নীল দরিয়া’, ‘বড় সাধ জাগে’, ‘মোর স্বপ্নের সাথী’, ‘সেই রেললাইনের ধারে’, ‘কত যে তোমাকে বেসেছি ভালো’, ‘আমার বুকের মধ্যিখানে’, ‘আমার বলার কিছু ছিল না’, ‘মন শুধু মন ছুঁয়েছে’, ‘তখন তোমার একুশ বছর বোধহয়’, ‘একটা ছিল সোনার কন্যা’ ,‘চঞ্চলা হাওয়ারে’, ‘একদিন স্বপ্নের দিন’, ‘দেখেছ কী তাকে’ ইত্যাদি। প্রতিটি গানই শিল্পীদের পরিবেশনায় এতটাই শ্রুতিমধুর হয়ে উঠে যেন শ্রোতারা এমনই চাইছিলেন যেন শেষ না হয়ে যায় অনুষ্ঠান। শিল্পীদের পরিবেশনা যেমন ছিল মনোমুগ্ধকর, উপস্থাপিকার তথ্যসমৃদ্ধ উপস্থাপনাও অনুষ্ঠানটির সৌন্দর্যতা বাড়িয়ে দেয়। অনুষ্ঠানটির গ্রন্থনা ও পরিকল্পনায় ছিলেন ইফতেখাইরুল ইসলাম টিটন। মুক্তি বলেন, ‘এ ধরনের অনুষ্ঠানেই গান গাইতে বেশি আগ্রহী আমি’। রাশেদ বলেন, ‘শ্রোতাদের আগ্রহের কারণেও অনেক সময় অনুষ্ঠান বেশি উপভোগ্য হয়ে উঠে’। অপু বলেন, ‘সার্বিক দিক ভালো থাকলে পারফর্ম করতেও ভালোলাগে। ধন্যবাদ টিটন ভাইকে।’ নন্দিতা বলেন, ‘শ্রোতাদের প্রবল আগ্রহ থাকলে এবং ভালো গানের সিলেকশন থাকলে গাইতেও ভীষণ ভালো লাগে’। অধরা বলেন, ‘এ বছরের সবচেয়ে ভালো লাগার এবং আমার দর্শক থেকে শ্রদ্ধা, ভালোবাসা প্রাপ্তির অনুষ্ঠান ছিল এটি। ধন্যবাদ টিটন ভাইকে।’ অনুষ্ঠানে যন্ত্রশিল্পী ছিলেন তবলায় পল্লব স্যানাল, কি-বোর্ডে পার্থ প্রতীম বাপ্পী, অক্টোপ্যাডে শাকিব, গিটারে সামু ও বাঁশিতে মামুন।


আরো সংবাদ


premium cement
ভারতে লাফিয়ে বাড়ল করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু, ঊর্ধ্বমুখী পজিটিভিটি রেটও ওমিক্রনের ঝুঁকি এখনও অনেক বেশি : ডব্লিওএইচও মার্চ মাসে গার্লস স্কুল খুলে দেয়া হবে : অসলোয় তালেবান পররাষ্ট্রমন্ত্রী দুই বাসের মাঝে পিষ্ট হয়ে কিশোরের মৃত্যু : ২ চালক গ্রেফতার শৈত্যপ্রবাহ আর কুয়াশায় দেবীগঞ্জে জেঁকে বসেছে শীত সংযুক্ত আরব আমিরাতে প্রথম রাষ্ট্রীয় সফরে যাচ্ছেন ইসরাইলের প্রেসিডেন্ট অনশন ভাঙলেন শাবি শিক্ষার্থীরা বাবা হলেন যুবরাজ সিং বৈশ্বিক প্রবৃদ্ধির পূর্বাভাস আরো হ্রাস করলো আইএমএফ বাংলাদেশ-রাশিয়া অংশীদারিত্ব দুই দেশের অভিন্ন স্বার্থ পূরণ করে : সের্গেই লাভরভ কূটনৈতিক সম্পর্কের সুবর্ণজয়ন্তী : রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা পুতিনের

সকল