২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭ আশ্বিন ১৪২৮, ১৪ সফর ১৪৪৩ হিজরি
`

নতুনদের মৌলিক গান বাড়াতে হবে : রুনা লায়লা

-

উপমহাদেশের প্রখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী রুনা লায়লা। পাঁচ দশকের বেশি সঙ্গীতজীবনে তিনি গেয়েছেন ১৮ ভাষায় গান। গুণী এই মানুষটি জীবনকে কখনো কঠিন করে ভাবতে চান না। যতটা সম্ভব চার পাশের পরিবেশের সাথে মিশে থাকতে চান প্রাণ খোলা হাসি দিয়ে। সমালোচকরা বলেন, এই স্বভাবের কারণেই তার সুর, গায়কী শ্রোতাদের মনের গহীনে আলোড়ন তুলতে পেরেছে। পুরো উপমহাদেশকে এক সুরের মালায় গাথা সম্ভব হয়েছে। তবে করোনা মহামারী তার স্বাভাবিক অবস্থাকে কিছুটা নড়বড়ে করেছে। মহামারীর প্রকোপ শুরু হওয়ার পর থেকে জরুরি প্রয়োজন না হলে একদম বাসা থেকে বের হচ্ছেন না তিনি। এর মধ্যে শুধু টিকা নেয়ার জন্য এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করার জন্য বাসা থেকে বের হয়েছিলেন।
মাঝে অবশ্য তার স্বামী নায়ক, প্রযোজক, পরিচালক আলমগীরের করোনা হওয়ায় বেশ উদ্বিগ্ন ছিলেন তিনি। ঘরে বসে নানান ধরনের কাজ নিয়েই ব্যস্ত থাকেন তিনি। কখনো গানের সুর করেন, কখনো গান শোনেন, কখনো টিভি দেখেন আবার কখনো বই পড়েন তিনি। সিনেমা দেখারও অভ্যাস রয়েছে তার। মাঝে মাঝে মেয়ে তানির সাথে কথা বলেন। তবে দীর্ঘদিন মেয়ে ও নাতীদের কাছে থেকে না দেখায় মনটা ভীষণ খারাপ হয় তার। মন খারাপ অবস্থা থেকে বের হতে নতুন প্রজন্মের সঙ্গীতশিল্পীদের সাথে কথা বলেন কিংবদন্তি এই শিল্পী। গান নিয়ে নতুনদের ভাবনা, ভবিষৎ পরিকল্পনা শোনেন রুনা লায়লা। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশে অনেক মেধাবী শিল্পী আছে। তাদেরকে যথাযথভাবে কাজে লাগানো হচ্ছে না। সুযোগের অভাবে তাদের মেধার বিকাশ ঘটছে না। তারপরও কেউ কেউ আছেন নিজেদের মেধা বিকাশের জন্য নিজের মতো করেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে, তাদের সাধুবাদ জানাতেই হয়। তবে আমি বিশ^াস করি যেসব মেধাবী শিল্পী আছে তারা ভালো সুযোগ পেলে নিজেদের মেধা প্রকাশ করতে পারবে। একজন ভালো ইনভেস্টর প্রয়োজন। আবার এটাও সত্যি যে, এই প্রজন্মের শিল্পীদের মৌলিক গানের খুব অভাব। যে কারণে তাদের নির্দিষ্ট কয়েকটি গানের বাইরে আমাদের গানগুলোই সাধারণত গেয়ে থাকে। এটা খারাপ বলছি না আমি। তবে নিজেদের মৌলিক গানের সংখ্যা বাড়াতে হবে। নিজেদেরকে যথাযথভাবে তৈরি করেই মৌলিক গানের সংখ্যা বাড়াতে হবে। বাংলাদেশের সঙ্গীতাঙ্গন আরো সমৃদ্ধ হবে, আমাদের এই প্রজন্মের শিল্পীদেরও নিজেদের আলাদা স্পেশাল আইডেন্টিটি হবে, তারা দেশকে রিপ্রেজেন্ট করবে এটাই আমি প্রত্যাশা করি। বর্তমান প্রজন্মের মধ্যে ন্যান্সি, কনা, ইউসুফ, ইমরান, লুইপা, হৈমন্তী, ঝিলিক, কোনাল ভালো করছে। তারা সত্যিই খুব ভালো গায়। নিজেদের প্রতি আরো যতœশীল হলে তারা আরো ভালো করবে বলে আমার বিশ^াস।’
ইদানীং শিল্পীরা অনেক বেশি প্রযুক্তিনির্ভর হয়ে গেছে। এ বিষয়টি শিল্পীদের অলস বানিয়ে দিচ্ছে বলে মনে করেন রুনা লায়লা। অনেকে কপি পেস্ট করে গান করেন এটাও এই শিল্পের জন্য অসনি সঙ্কেত বলে মনে করেন তিনি। দামা দাম মাস্ত কালন্দর গানের এই শিল্পী বলেন, ‘বিভিন্ন চ্যানেলে যখন গান প্রচার হয়, শুনে মনে হয়, আমরা অনেক বেশি প্রযুক্তিনির্ভর হয়ে গেছি। আগে যেমন মিউজিশিয়ানরা বাজাত আর আমরা এক টেকে পুরো গান গেয়ে ফেলতাম। এখন দেখি মেশিনই বেশির ভাগ কাজ করছে, ক্ষেত্র বিশেষে সবই করছে। গানের আবেগটা কমে যাচ্ছে। তা ছাড়া আমরা একটু অলস হয়ে যাচ্ছি। এখন এমনো হয়, একবার গেয়ে দিলাম, ১০ বার কপি পেস্ট করে জোড়া লাগিয়ে গান বানিয়ে ফেললাম। শিল্পীদের কণ্ঠের আবেগ হারিয়ে যায় তাতে। আগে শিল্পীদের গাওয়া গানে অনুভূতি অন্যভাবে আসত, অন্যরকম লাগত। আমি ব্যক্তিগতভাবে চাচ্ছি, এখন যারা গান করছে, তাদের অবশ্যই নিজের কণ্ঠের ওপর নিয়ন্ত্রণ রাখতে হবে। সবাইকে সুরে গাইতে হবে, শিখে গাইতে হবে, তাহলেই ভালো গান হবে।’
রুনা লায়লা বলেন, ‘আমাদের অনেক ভালো ভালো শিল্পী আছে। তাদের সুযোগ করে দিতে হবে। এখন কিন্তু আমরা দেখি, প্রত্যেকটা শিল্পী নিজের একটা করে ইউটিউব চ্যানেল খুলেছে। আমার তো মনে হয়, বাধ্য হয়েই শিল্পীরা ইউটিউব চ্যানেল চালু করছে। গান বানিয়ে তারা নিজেদের প্রচার নিজেরাই করছে। এতে আবার একটা অসুবিধা হচ্ছে। যাদের চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার কম, তারা ভালো গান তৈরি করলেও সেই গান বেশি শ্রোতার কাছে পৌঁছায় না। প্রতিষ্ঠিত একটা প্রতিষ্ঠান যদি কোনো গান প্রকাশ করে, সেটা অনেক বেশি শ্রোতার কাছে পৌঁছাত।’
গান গাওয়ার পাশাপাশি রুনা লায়লা এখন সুরও করেন। তিনি প্রথম সুর করেন আলমগীর পরিচালিত ‘একটি সিনেমার গল্প’তে। প্রথম সিনেমাতে সুর করেই তিনি সুরকার হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন। নতুনদের মধ্যে তার সুরে গান গেয়েছেন লুইপা, হৈমন্তী।

 



আরো সংবাদ


খেলাপিদের বিশেষ সুবিধা আরো এক বছর চায় বিজিএমইএ মুস্তাফিজদের দারুণ বোলিংয়ে রোমাঞ্চকর লড়াই জিতল রাজস্থান সাবমেরিন ইস্যু : ‘ক্রুদ্ধ’ ম্যাক্রঁ কি বেশি ঝুঁকি নিয়ে ফেললেন? গাড়িচালক মালেকের বিরুদ্ধে চার্জশিট অনুমোদন দুদকের আফগানিস্তানে আইপিএলের সম্প্রচার নিষিদ্ধ হার এড়ালো বার্সেলোনা অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলায় নিজেকে নির্দোষ দাবি সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর স্বাস্থ্যের ২৮৩৯ পদে নিয়োগপ্রক্রিয়া বাতিল দুয়েকটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া নির্বাচন শান্তিপূর্ণ হয়েছে : ওবায়দুল কাদের মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা শিথিল খালেদা জিয়ার মুক্তি ইস্যুতে আপস করা যাবে না: বিএনপি

সকল