৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

পালকির জন্য নিবেদিত রূপতনু রূপু

-

উপমহাদেশের প্রখ্যাত গীতিকবি একুশে পদকপ্রাপ্ত, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত পরিচালক গাজী মাজহারুল আনোয়ারের লেখা গান নিয়ে বিগত বেশ কয়েক বছর যাবত চ্যানেল আইতে নিয়মিত প্রচার হয়ে আসছে সঙ্গীত বিষয়ক অনুষ্ঠান ‘পালকি’। অনুষ্ঠানটি নিয়মিত উপস্থাপনা করেন গাজী মাজহারুল আনোয়ারেরই মেয়ে দিঠি আনোয়ার। মূলত বিভিন্ন সঙ্গীতশিল্পীদের কণ্ঠে গাজী মাজহারুল লেখা জনপ্রিয় গানগুলোই ‘পালকি’ অনুষ্ঠানে শ্রোতা দর্শক উপভোগ করেন। এই অনুষ্ঠানের জন্যই একজন নিবেদিত যন্ত্রশিল্পী হয়ে শুরু থেকেই কাজ করে আসছেন দেশের প্রথিতযশা কি-বোর্ডিস্ট রূপতনু রূপু। তার যত ব্যস্ততাই থাকুক না কেন সিডিউল পড়ে গেলে তিনি অন্যান্য কাজ বাদ দিয়ে হলেও পালকির রেকর্ডিংয়ে উপস্থিত থাকেন। যদি কখনো কোনো কারণে অন্যান্য মিউজিশিয়ানও উপস্থিতি না থাকে কিন্তু রূপতনু ঠিকই থেকেছেন। কারণ রূপতনুর কাছে ‘পালকি’ অনুষ্ঠানটি অনেক মর্যাদার, ভালোলাগার। যারা অনুষ্ঠানে গান গাইতে আসেন তাদের কাছেও রূপতনু ভীষণ ভালোলাগার একজন মিউজিশিয়ান। তাই শিল্পীদের প্রতিও রূপতনুর শ্রদ্ধা ভালোবাসা রয়েছে সব সময়। একজন নিবেদিত যন্ত্রশিল্পী হিসেবে রূপতনুর বেশ সুনাম রয়েছে। তার বিনয়েই তাকে দেশের শীর্ষস্থানীয় একজন যন্ত্রশিল্পীতে পরিণত করেছে। গাজী মাজহারুল আনোয়ার বলেন, ‘পালকি আর রূপতনু যেন এক পারস্পরিক আত্মারই বন্ধন। সেটে রূপতনুকে দেখলে ভীষণ ভালোলাগে আমার। ভীষণ পরিশ্রমী একজন মিউজিশিয়ান। সব সময়ই তার জন্য দোয়া করি, সে যেন সুস্থ থাকে, ভালো থাকে।’ দিঠি আনোয়ার বলেন, ‘রূপতনু দাদা আমাদের সবার কাছে একজন নির্ভরযোগ্য মিউজিশিয়ান। বাবার আগের জনপ্রিয় গানগুলোর মিউজিকের আবহ ঠিক আগেরই মতো রেখে তাতে আধুনিকতার ছাপ রাখার চেষ্টা করেন। যে কারণে পুরনো দর্শক যেমন প্রত্যেকটি গানের সাথে নিজেদের একটা যোগসূত্র তৈরি করতে পারেন, ঠিক তেমনি এই সময়ের দর্শকের কাছেও ভালো লাগে। এদেশে যে’কজন কি-বোর্ডিস্ট আছেন তাদের মধ্যে শীর্ষস্থানীয় একজন তিনি। তার প্রতি অনেক শ্রদ্ধা, ভালোবাসা।’ রূপতনু রূপু বলেন, ‘পালকি অনুষ্ঠানটি আমার কাছে ভালোলাগার অন্যতম কারণ হচ্ছেÑ এই অনুষ্ঠানের প্রতিটি পর্বে আমাদের শ্রদ্ধেয় গাজী মাজহারুল আনোয়ার স্যার উপস্থিত থাকেন। সেই সাথে কিংবন্তি সঙ্গীতশিল্পী থেকে শুরু করে এই প্রজন্মের শিল্পীরাও এতে উপস্থিত থেকে গান পরিবেশন করেন। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পারাটা আমার কাছে ভীষণ সৌভাগ্যের মনে হয়। আমি পালকি পরিবারের কাছে কৃতজ্ঞ। কৃতজ্ঞ চ্যানেল আই পরিবারের কাছেও। কারণ তারা আমার ওপর আস্থা রাখে সব সময়ই। আর আজ আমার জন্মদিন। সবার কাছে দোয়া চাই যেন সুস্থ থাকতে পারি, ভালো থাকতে পারি।’ রূপতনু রূপেুর গ্রামের বাড়ি চট্টগ্রামে। কি-বোর্ডে তার ওস্তাদ ভারতের দেবাশীষ সাহা। ১৯৯৩ সাল থেকে তিনি নিয়মিত একজন কি-বোর্ডিস্ট হিসেবে কাজ করছেন। এক জীবনে সবচেয়ে বেশি তিনি কি-বোর্ড বাজিয়েছেন সুবীর নন্দী, অ্যান্ড্র্রু কিশোর, রুনা লায়লা ও সাবিনা ইয়াসমিনের সাথে। তার স্ত্রী শম্পা ও মেয়ে ঐশী কলকাতায় থাকেন।
ছবি : আলিফ রিফাত

 


আরো সংবাদ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি নিয়ে নতুন সিদ্ধান্ত মন্ত্রণালয়ের (১২৯৪২)ড. কামাল ও আসিফ নজরুল ঢাবি এলাকায় অবা‌ঞ্ছিত : সন‌জিত (১১৭২৬)‘সনজিতকে ক্যাম্পাসে দেখতে চায় না ঢাবি শিক্ষার্থীরা’ (১০৩২০)এমসি কলেজে গণধর্ষণ : সাইফুরের যত অপকর্ম (৯০২০)আজারবাইজান ৬টি গ্রাম আর্মেনিয়ার দখল মুক্ত করেছে (৮৩৪১)নতুন বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র সামনে আনলো ইরান (৫৭১১)যে কারণে এই শীতেই ভারত-চীন মারাত্মক যুদ্ধের আশঙ্কা রয়েছে (৫৬৫০)অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের জানাজা অনুষ্ঠিত (৫২২৯)আজারবাইজান-আর্মেনিয়ার মধ্যে সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৯ (৫১৬৭)ছাত্রলীগের ঢাবি সভাপতি বক্তব্য স্পষ্টত সন্ত্রাসবাদের বহিঃপ্রকাশ (৫১৫০)