২৪ নভেম্বর ২০২০

মিশন এক্সট্রিমের নেপথ্যে একজন মেগাস্টার

-

তখন আমি পুরান ঢাকার বিউটি বোর্ডিংয়ে। আরিফিন শুভর সাথে গল্পটা জমে উঠে সেখানকার এক বারান্দায় বসেই। যদিও বা প্রসঙ্গটা শুরু হওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের চরিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে কিন্তু শুরুতেই এই চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ পাওয়ার গল্প নিয়ে আপাতত কিছুই জানাননি নায়ক। কথা ছিল ১৭ মার্চ সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে সিনেমার পুরো টিম সব কিছুর জানান দেয়া হবে। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে সিনেমার শুটিংই যেহেতু পিছিয়ে গেল তাই আপাতত জাতির জনককে নিয়ে নির্মিতব্য সিনেমা সম্পর্কে বিশদ জানানোর সুযোগ থাকল না। অভিনয়শিল্পীদের বিভিন্ন ধরনের চরিত্রে অভিনয় করার তীব্র বাসনা থাকে। যখন থেকে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে সিনেমা নির্মাণের ঘোষণা আসে তখন থেকে এই দেশের অনেক অভিনেতাই নিজেকে বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে অভিনয় করার স্বপ্ন দেখেছিলেন। অডিশন দিয়ে কেউ কেউ তা প্রকাশ করেছেন, আবার কেউ কেউ তা আড়ালেই রেখেছেন। আবার এমন অনেকেই আছেন যারা জানেন যে, শেষ পর্যন্ত তিনি বঙ্গবন্ধুর সিনেমায় বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ পাচ্ছেন না, তারা নিজের তৃপ্তির জন্য অন্যকোনো সিনেমায় কিংবা নাটকে, স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে বঙ্গবন্ধু চরিত্রে অভিনয় করেছেন। কিন্তু রাষ্ট্রীয়ভাবে শ্যাম ভ্যানেগালের নির্দেশনায় বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে যে সিনেমা নির্মিত হতে যাচ্ছে, তাতে বঙ্গবন্ধু চরিত্রে অভিনয়ের জন্য চূড়ান্ত হয়েছেন আরিফিন শুভ। একজন নায়কের এরপর আর হয়তো কোনো স্বপ্নের চরিত্র থাকতে পারে না। একজন নায়ক যদি এরপর আর কোনো সিনেমায় অভিনয় নাও করেন, তার অতৃপ্তি থাকে না। এরপর যদি সেই নায়ক আর কোনো সিনেমায় অভিনয় না করেন তারপরও বাংলাদেশে যতদিন পৃথিবীর বুকে বেঁচে থাকবে ততদিন সেই নায়কের নামটিও বেশ শ্রদ্ধার সাথেই উচ্চারিত হবে। তাই আরিফিন শুভ এখন সেই নায়কের নাম স্বপ্নের চরিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে হয়তো তার মধ্যে থাকবে না অতৃপ্তি, স্বপ্ন কিংবা নতুন কোনো আশা। যার জন্য আমরা পেয়েছি একটি স্বাধীন দেশ বাংলাদেশ সেই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের চরিত্রে অভিনয় করতে পারাটাই যেন একজন আরিফিন শুভর অভিনয় জীবনের সর্বশ্রেষ্ঠ অর্জন তার অভিনয় জীবনের।
শুভ এ ব্যাপারে তার অনুভূতি প্রকাশের কোনোরকম বক্তব্য না দিলেও তার পরিবার, তার শুভাকাক্সক্ষী, তার ভক্তরা যে ভীষণ রকম খুশি তা নানাভাবেই প্রকাশিত। তবে আপাতত আরিফিন শুভর ভাবনায় একটু বেশিই স্থান পাচ্ছে বিগত ১১ মাস যে সিনেমাটির জন্য তিনি আর কোনো সিনেমায়ই অভিনয় করেননি।
বিগত ১১ মাস নিজের বডির ফিটনেসের জন্য নিয়ম মেনে জিম করেছেন, রুটিন অনুযায়ী খাবার খেয়েছেন, সময় মেনে ঘুমিয়েছেন।

 


আরো সংবাদ