০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ন ১৪২৮, ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিজরি
`

১০ তলা বিল্ডিং নয়, গবেষণাই বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্জন : ইবি ভিসি

১০ তলা বিল্ডিং নয়, গবেষণাই বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্জন : ইবি ভিসি - ছবি : নয়া দিগন্ত

দশতলা বিল্ডিং নয়, গবেষণাই একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্জন। আমাদের বিল্ডিং দশ না পাঁচ তলা হবে, নাকি কুঁড়ে ঘরে ক্লাস করবো তা কোনো বিষয় না। কিন্তু বিশ্ব সেরা গবেষকের তালিকায় নাম লেখানো বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য বড় অর্জন, বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ভিসি অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম।

বুধবার দপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুটি আবাসিক হলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

সম্প্রতি বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় নাম লেখানো বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭ শিক্ষককে অভিনন্দন জানিয়ে তিনি আরো বলেন, ‘এই বিশ্ববিদ্যালয়ের মাটি কতটা শক্ত তা প্রমাণ হবে আপনাদের গবেষণার দ্বারা। আপনি কতবার জিন্দাবাদ বা মুর্দাবাদ দিয়েছেন তা কোথাও লেখা থাকবে না। লেখা থাকবে আপনি গবেষণায় কতটা অবদান রেখেছেন। আমাদের ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ইমেজ সঙ্কটে রয়েছে। বিশ্ব সেরা গবেষণার তালিকায় নাম লিখিয়ে এই সঙ্কট কাটাতে হবে।’

বুধবার বেলা ১১টায় হল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভিসি অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া-৩ আসনের সঙসদ সদস্য মাহবুবউল আলম হানিফ। বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রো-ভিসি অধ্যাপক ড. মাহবুবুর রহমান ও ট্রেজারার অধ্যাপক ড. আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া।

এ ছাড়া সাবেক ট্রেজারার অধ্যাপক ড. সেলিম তোহা, কুষ্টিয়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম আলতাফ জর্জ, কুষ্টিয়া সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাধন কুমার বিশ্বাস, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক, কর্মকর্তাসহ শাখা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন, সহকারী অধ্যাপক ড. মোস্তাফিজুর রহমান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংসদ সদস্য হানিফ বলেন, ‘গোজামিল শিক্ষার ফলে দেশ ও জাতি ক্ষতির সম্মুখীন হবে। প্রকৃত শিক্ষা না থাকলে ধর্মীয় বক্তা বা আলেম বা ধর্মীয় নেতাদের দ্বারা মানবাধিকার লঙ্ঘন হবে। যেটা আমরা বাংলাদেশে প্রায়ই দেখি। ধর্মের নামে মিথ্যাচারে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বাঁধানোর জন্য এই বাংলাদেশই মনে হয় সবচেয়ে উৎকৃষ্ট উদাহরণ।’

অনুষ্ঠান শেষে ১০৬ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণাধীন বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র-ছাত্রী দুটি আবাসিক হলের ভিত্তি প্রস্থর উদ্বোধন করেন হানিফ। এর আগে সকালে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করে ‘মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব’ ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও ফুটবল মাঠের পাশে বৃক্ষ রোপন করেন তিনি।



আরো সংবাদ