০৩ জুন ২০২০

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় গ্রিন ইউনিভার্সিটিতে সেমিনার

-

বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ১০০ মাইল। হাঁচি-কাশি ছাড়াও নানাভাবে ছড়াচ্ছে এই রোগ। এক্ষেত্রে একজন মানুষের একটি হাঁচি থেকেই সর্বোচ্চ ১ লাখ পর্যন্ত ড্রপলেট হয়ে থাকে, যা থেকে আক্রান্ত হতে পারে শত শত মানুষ। তাই আপাতদৃষ্টিতে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখেই এই রোগ থেকে বাঁচতে হবে।
রাজধানীর গ্রিন ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশে ‘সেন্সিং, কম্পিউটিং এ্যান্ড কমিউনিকেশন টু কন্ট্রোল কোভিড-১৯’ শীর্ষক এক অনলাইন সেমিনারের মূল প্রবন্ধে শুক্রবার এসব তথ্য তুলে ধরা হয়। সেন্টার ফর রিচার্চ ইনোভেশন এ্যান্ড ট্রান্সফরমেশন এই সেমিনারের আয়োজন করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. গোলাম সামদানী ফকির এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক।
সেমিনারে অধ্যাপক ড. মো. গোলাম সামদানী ফকির বলেন, কোভিড-১৯ মোকাবিলায় গোটা বিশ্ব আজ বিজ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে সক্রিয় ভূমিকা পালন করছে। এক্ষেত্রে বাংলাদেশও ভিন্ন নয়। সেমিনারে উপস্থিত সবাইকে যার যার অবস্থান থেকে করোনার বিস্তৃতি রোধে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।

মূল প্রবন্ধে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, করোনাভাইরাস ইতোমধ্যেই ২১২টি দেশে ছড়িয়েছে, আক্রান্ত হয়েছে সাড়ে ৪২ লাখেরও বেশি মানুষ। এ ছাড়াও প্রায় দুই লাখ ৮৮ হাজার মানুষ এই ভাইরাসে মৃত্যুবরণ করেছে। তিনি বলেন, উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থার সুযোগ নিয়ে ভাইরাসটি কয়েক মাসের ব্যবধানে যেমন বিশ্বব্যাপী ছড়িয়েছে, তেমনি বিজ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে অতি দ্রুত এটা দমনের চেষ্টাও চলছে।

ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, আধুনিক প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে কোভিড-১৯ এর ভয়াবহতা থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব। গত কয়েক মাস বিজ্ঞানীরা সেই চেষ্টাই চালিয়ে যাচ্ছেন। এ সময় তিনি পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে করোনা মোকাবিলায় মানব শরীরে ডিভাইস লাগিয়ে আক্রান্ত ব্যক্তির শরীরের তাপমাত্রাসহ অন্যান্য গতিবিধি পরিমাপ নিয়ে আলোচনা করেন। এর বাইরেও ‘ফিজিক্যাল সেন্সিং অ্যাপলিকেশন,’ ‘সোশ্যাল সেন্সিং অ্যাপলিকেশন,’ ‘হিউম্যান সাইবার-ফিজিক্যাল সেন্সিং’সহ কোভিড-১৯ এর বিস্তার রোধ ও আধুনিক চিকিৎসা বিজ্ঞানের নানা উপায় তুলে ধরেন।
সেমিনারে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক ড. মো. ফায়জুর রহমান, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগীয় চেয়ারপার্সন ও শিক্ষক-কর্মকর্তারা অংশ নেন।
প্রেস বিজ্ঞপ্তি

 


আরো সংবাদ