০৫ এপ্রিল ২০২০

মারামারিতে না যাওয়ায় ইবি শিক্ষার্থীদের কক্ষে ছাত্রলীগের ভাঙচুর

মারামারিতে অংশগ্রহণ না করায় ইসলামী বিশ^বিদ্যালয় (ইবি) শিক্ষার্থীদের কক্ষে ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগ কর্মীদের বিরুদ্ধে। গতকাল সোমবার বিশ^বিদ্যালয় প্রক্টর বরাবর এ অভিযোগ দেয় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের ১১২ নম্বর কক্ষের আবাসিক শিক্ষার্থীরা। এ ছাড়া ক্ষতিপূরণ ও নিরাপত্তার দাবি জানান তারা।

লিখিত অভিযোগে ভুক্তভোগীরা জানান, ২২ ফেব্রুয়ারি রাতে ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ওই হলের ১১২ নম্বর কক্ষের আবাসিক শিক্ষার্থী রতন রায়, ওশান, রাকিব, তানভীরকে সংঘর্ষে জড়াতে বলে হামজা ও কাব্য। কিন্তু কথা না শোনায় তাদের দফায় দফায় হুমকি দিতে থাকে ছাত্রলীগ কর্মী উন্নয়ন অধ্যয়ন বিভাগের শিক্ষার্থী হামজা নুর, অমিও সাহা, আইন বিভাগের শিক্ষার্থী রেজওয়ানুল সিদ্দিকী কাব্য, উদয় ও লোকপ্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থী জামিল আহমেদ। পরে রাত ১১টার দিকে রতন ও তার বন্ধুদের মারার জন্য প্রায় ২০ জন ছাত্রলীগ কর্মীসহ তাদের রুমে যায় হামজারা। এ সময় তাদের না পেয়ে কক্ষে ভাঙচুর ও লুটপাট করে তারা।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত জামিল নুর জানায়, ‘জিয়াউর রহমান হলে একটা সমস্যা হওয়ায় তাদের সেখানে আসতে বলেছিলাম। তাদের কোনো হুমকি দেইনি। তাদের কক্ষে ভাঙচুর ও লুটপাট সম্পর্কে আমি কিছু জানি না।’

প্রক্টর অধ্যাপক ড. পরেশ চন্দ্র বর্ম্মন বলেন, ‘বিষয়টি সম্পর্কে গতকাল মৌখিক অভিযোগ পাওয়ার পরই একজন সহকারী প্রক্টরকে বিষয়টি দেখভাল করার জন্য বলেছিলাম। আজ লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর আবারো হল প্রশাসনের সাথে ডিসকাস করে বিষয়টি সমাধান করতে বলেছি তাকে।’


আরো সংবাদ