৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০
প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় জাবির শিক্ষক ও ছাত্রনেতারা 

আন্দোলনকারীরা নয়, ছাত্রলীগকেই ভিসির দুর্নীতির প্রমাণ দিতে হবে

দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’র সংহতি সমাবেশ - ছবি : নয়া দিগন্ত

‘অভিযোগ প্রমাণে ব্যর্থ হলে আন্দোলনকারীদের শাস্তি পেতে হবে’ বৃহস্পতিবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা হতাশা ব্যক্ত করেছেন। তারা বলেছেন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির টাকা লেনদেনের বিষয়টি ছাত্রলীগ নিজেরাই প্রথমে অভিযোগ করেছে। ছাত্রলীগের দু’জন কেন্দ্রীয় নেতা এবং বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতারাও এটা স্বীকার করেছেন। নেতাদের ফোনালাপও সবাই শুনেছেন। কাজেই এ অভিযোগ যদি প্রমাণ করতে হয়ে তাহলে এটা করতে হবে ছাত্রলীগকেই। আন্দোলনের সাথে সম্পৃক্ত কেউ এটা প্রমাণের দায়িত্ব নেবে কেনো?

আজ বৃহম্পতিবার দুপুরে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) আন্দোলনরত শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা নয়া দিগন্তের সাথে আলাপকালে এসব প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক জামাল উদ্দিন বলেন, আমাদের অবস্থান ভিসির বিরুদ্ধে নয়, আমাদের অবস্থান দুর্নীতির বিরুদ্ধে। তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন থেকে আমরা দুর্নীতির বিষবৃক্ষ উপড়ে ফেলতে চাই। কারা দুর্নীতির পক্ষে আর কারা বিরুদ্ধে ইতোমধ্যে তা প্রমাণ হয়েছে। আমরা শুরু থেকেই বলেছি, ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করতে হবে। আর এ তদন্তের দায়িত্ব সরকারের।

নৃ-বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক সাঈদ ফেরদৌস জানান, আমাদের বক্তব্য বা আন্দোলন দুর্নীতির বিরুদ্ধে। কোনো ব্যক্তিবিশেষের বিরুদ্ধে নয়। তবে আমরা চাই নিয়মতান্ত্রিক পন্থায় আন্দোলনের মাধ্যমে দুর্নীতির তদন্ত প্রক্রিয়াকে এগিয়ে নেয়া। তিনি আরো বলেন, নিষেধাজ্ঞা দিয়ে কিংবা নিয়ম বেঁধে দিয়ে কোনো আন্দোলন সংগ্রাম স্তিমিত করা যায় না।

জাবি’র আন্দোলনের সংগঠক ছাত্র ইউনিয়নের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি নাজির আমীন চৌধুরী জয় জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো শিক্ষক বা ছাত্র ভিসির বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ আনেননি। প্রথমে এ অভিযোগ তুলেছে ছাত্রলীগেরই নেতৃবৃন্দ। কাজেই ভিসি ফারজানা ইসলামের বিরুদ্ধে দুর্নীতির প্রমাণ করতে হবে ছাত্রলীগকেই। আমরা শুধু এর তদন্ত চেয়েছি মাত্র।

গত ৫ নভেম্বর হামলায় আহত নগর অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের ছাত্র রাকিবুল হক জানান, ছাত্রলীগ এবং ভিসিপন্থী আওয়ামী লীগের শিক্ষকরাই সবকিছু ঘোলাটে করেছে। তারা আমাদের নিরীহ ছাত্র ও শিক্ষকদের উপর হামলা করেছে। প্রধানমন্ত্রী যদি প্রমাণ চান তাহলে এটা তাকেই করতে হবে। কারণ অভিযোগ প্রমাণের দায়িত্ব সরকারের।


আরো সংবাদ

আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ আইসিইউতে ‘হাতিরঝিল থেকে উত্তরা পর্যন্ত ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট চালুর প্রকল্প নেয়া হয়েছে’ প্রবাসী শ্রমিকদের স্বার্থ সহানুভূতির সাথে বিবেচনার আহ্বান তাহলে আদভানি-জোশীরা সেদিন মঞ্চে মিষ্টি বিলি করছিলেন কেন, প্রশ্ন আসাদউদ্দিন ওয়াইসির জালিয়াতি করে জামিন, ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা করার নির্দেশ হাইকোর্টের আইসিডিডিআর,বির প্রথম বাংলাদেশী নির্বাহী পরিচালক ড. তাহমিদ স্বাস্থ্যের দুর্নীতি বন্ধে দুদকের সুপারিশ বাস্তবায়নের অগ্রগতি জানতে চায় হাইকোর্ট দশ দিনে ভারতে গেল ৮০৫ মেট্রিক টন ইলিশ ফেনীতে ৩ বছরের শিশু ধর্ষিত বোয়ালখালীতে এইচএসসি পরীক্ষার্থীর আত্মহত্যা সিলেটে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টামামলায় গ্রেফতার ৩

সকল

সুবিধাজনক অবস্থায় আজারবাইজান, ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির শিকার আর্মেনিয়রা (১৯২৯১)আর্মেনিয়ান রেজিমেন্ট ধ্বংস করলো আজারবাইজান, শীর্ষ কমান্ডারের মৃত্যু (১৪১০৪)আর্মেনিয়া-আজারবাইজান তুমুল যুদ্ধ, নিহত বেড়ে ৯৫ (১৩০২৮)আজারবাইজানের সাথে যুদ্ধ : ইরান দিয়ে আর্মেনিয়ার অস্ত্র বহনের অভিযোগ সম্পর্কে যা বলছে তেহরান (৭৪২৯)স্বামীকে খুঁজতে এসে সন্তানের সামনে ধর্ষণের শিকার মা (৭২৯২)আজারবাইজান-আর্মেনিয়ার যুদ্ধের মর্টার এসে পড়লো ইরানে (৭২১৭)এমসি কলেজে গণধর্ষণ : স্বামীর কাছে ৫০ হাজার টাকা দাবি করে ধর্ষকরা (৬৪১৯)এমসি কলেজে গণধর্ষণ : সাইফুরের যত অপকর্ম (৫৯৮৯)‘তুরস্ককে আবার আর্মেনীয়দের ওপর গণহত্যা চালাতে দেয়া হবে না’ (৫৬২১)আর্মেনিয়া এবং আজারবাইজান দ্বন্দ্ব: কোন দেশের সামরিক শক্তি কেমন? (৫৪৩৫)