০৩ আগস্ট ২০২০
উপস্থিত না হতে পরিপত্র জারি

প্রাথমিক শিক্ষকদের মহাসমাবেশ ঘিরে টানটান উত্তেজনা

-
24tkt

আগামীকাল ২৩ অক্টোবর ঢাকায় প্রাথমিক শিক্ষকদের মহাসমাবেশ ঘিরে টানটান উত্তেজনা চলছে। মন্ত্রণালয় ও প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর (ডিপিই) সমাবেশে শিক্ষকরা যাতে উপস্থিত হতে না পারে, তার জন্য গতকাল আরো একটি পরিপত্র জারি করেছে। গত ১৪ অক্টোবর থেকে এ নিয়ে তৃতীয় পরিপত্র জারি করল ডিপিই। গতকাল জারি করা পরিপত্রে জেলা, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাদের মাধ্যমে মহাপরিচালক নির্দেশ দিয়েছেন- ২৩ অক্টোবর প্রাথমিক শিক্ষকরা যেন কর্মস্থল ত্যাগ না করেন। এতে বলা হয়েছে, ‘আগামী ২৩ অক্টোবর কতিপয় শিক্ষক সংগঠন ঢাকায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মহাসমাবেশ করার ঘোষণা দিয়েছেন, সে সমাবেশেকে ঘিরে বিশৃঙ্খলার আশঙ্কা রয়েছে বিধায় ওই দিন আখেরি চাহা সোম্বার ছুটি থাকলেও শিক্ষকরা যেন কর্মস্থল ত্যাগ না করেন।’

অপর দিকে রাজধানীসহ সারা দেশে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া শুরু করেছে জেলা ও উপজেলা বা থানা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসগুলো। রাজধানীতে গতকাল বিকেলে বেশ কয়েকটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে থানা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসগুলো। শিক্ষক নেতারা জানান, গতকাল রাজধানীর দু’টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের এমন নোটিশ দেয়া হয়েছে। তারা স্কুল দু’টির নাম প্রকাশ করতে রাজি হননি। জানা গেছে, এর একটি মতিঝিল থানায় অপরটি যাত্রাবাড়ী থানায়। একটির সব শিক্ষকদের দেয়া হয়েছে, অপরটির শুধু প্রধান শিক্ষকের নামে নোটিশ দেয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদ আহ্বায়ক আনিছুর রহমান ও সদস্য সচিব শামসুদ্দিন মাসুদ গতকাল সন্ধ্যায় নয়া দিগন্তকে জানান, আজকের মধ্যে ওই নোটিশ প্রত্যাহার না করলে, আজ বিকেলের আগে ওই সব থানা শিক্ষা অফিস ঘেরাও করবেন স্থানীয় শিক্ষকরা। একই পরিস্থিতি দেশের আরো কয়েকটি স্থানে ঘটেছে বলে জানান তারা।

এ দিকে ২৩ অক্টোবরের মহাসমাবেশ অত্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবেই অনুষ্ঠিত হবে বলে উল্লেখ করেছেন প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদ উপদেষ্টা আনোয়ারুল ইসলাম তোতা। তিনি নয়া দিগন্তকে বলেন, শিক্ষকদের দীর্ঘ দিনের বেতনবৈষম্যের ব্যাপারে সরকারের ও সরকার প্রধানকে অবহিত করতেই এ সমাবেশের ডাক দেয়া হয়েছে। এ সমাবেশটি সরকারের বিরুদ্ধে কোনো সমাবেশ নয়। আমাদের ও শিক্ষকদের ন্যায্য দাবির ব্যাপারে কথা বলতেই এ সমাবেশ। এ সমাবেশ ঠেকাতে অধিদফতর যা করছে, তাতে মনে হয়েছে শিক্ষকরা যেন সরকার বা অধিদফতরের প্রতিপক্ষ। তিনি বলেন, শিক্ষকদের বেতনবৈষম্য নিয়ে আগের মন্ত্রী সচিবরা অঙ্গীকার করলেও কোনো ফল পাওয়া যায়নি। তাই সমাবেশ করতে বাধ্য হািচ্ছ আমরা।

সদস্য সচিব শামসুদ্দিন মাসুদ ও প্রধান মুখপাত্র বদরুল আলম বলেন, কোনো পরিপত্র দিয়ে শিক্ষকদের সমাবেশ থেকে ঠেকানো যাবে না। সমাবেশ সফল করতে শিক্ষকরা ঢাকায় আসতে প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছেন।


আরো সংবাদ

সাবেক সেনা কর্মকর্তাকে গুলি করে হত্যা : পুলিশের ২১ সদস্য প্রত্যাহার (১৩১০১)আজারবাইজানে ঢুকেছে তুর্কি জঙ্গিবিমান; যৌথ মহড়া শুরু (৮৬৬১)ভারতের যেকোনো অপকর্মের কঠিন জবাব দেয়ার হুমকি দিলো পাকিস্তান (৬৫২৩)অবশেষে ১৪ লাখ টাকায় বিক্রি হলো সেই ‘ভাগ্যরাজ’ (৫৯২৮)লিবিয়া ইস্যুতে তুরস্ক ও আমিরাতের মধ্যে তুমুল বাগযুদ্ধ (৫৯০৯)আমিরাতের পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নিয়ে কেন সন্দিহান ইরান-কাতার? (৫৮০৪)ভারত-চীন সীমান্তের নতুন স্থানে চীনা বাহিনীর অবস্থান, আতঙ্কে ভারত (৫৪১৮)পুলিশের গুলিতে সাবেক সেনা কর্মকর্তার মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত কমিটি (৫১৪৮)করোনায় লাশের মিছিল, কবরস্থানে জায়গা না হওয়ায় পুড়ানো হচ্ছে লাশ (৫০৫০)রাম মন্দিরের ভূমিপূজা মুসলিমবিদ্বেষী, টাইমস স্কোয়্যারে প্রদর্শন রুখতে নিউ ইয়র্কের মেয়রকে চিঠি (৪৪০৯)