৩০ অক্টোবর ২০২০
একই ধরনের প্রকল্পে ব্যয়ের ভিন্নতা

রাষ্ট্রীয় অর্থের যথেচ্ছ ব্যবহার

-

উন্নয়ন প্রকল্পের খরচ সমীক্ষা ছাড়া প্রাক্কলন করায় ব্যয়ের হিসাব নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। একই ধরনের প্রকল্পে দেশের একেক প্রান্তে খরচের ভিন্নতা হওয়ায় এই প্রশ্ন তুলেছে খোদ পরিকল্পনা কমিশন। লক্ষণীয়, এই ব্যয়ে উনিশ-বিশ নয়, আকাশ-পাতাল তফাত। ঢাকার বাইরে এক কিলোমিটার ড্রেন নির্মাণে খরচ দেড় কোটি টাকা প্রস্তাব করা হয়েছে। সেখানে ঢাকায় সমাপ্ত একটি প্রকল্পে ড্রেন নির্মাণে গড় ব্যয় হয়েছে কিলোমিটারে ৫২ লাখ টাকা। অর্থনীতিবিদদের মতে, এমন ব্যয়ের যৌক্তিক কোনো ব্যাখ্যা নেই। এতটা হেরফেরের যৌক্তিকতা আছে কি না; সে সম্পর্কে প্রশ্ন ওঠা স্বাভাবিক। তাদের মতে, সমীক্ষা ছাড়া প্রকল্পের প্রাক্কলনে অবশ্যই হেরফের হবে। নয়া দিগন্তে প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।
স্থানীয় সরকার বিভাগের প্রকল্প প্রস্তাবের বরাতে ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, বরগুনা, আমতলি, পাথরঘাটা ও বেতাগীÑ এই চার পৌরসভার অবকাঠামো নির্মাণে ১২০ কোটি টাকা ব্যয়ে একটি প্রকল্প প্রস্তাব করা হয়েছে, যাতে ৩৫ কিলামিটার সড়ক নির্মাণ (বিসি) করতে খরচ ধরা হয়েছে ৩১ কোটি ৫০ লাখ টাকা। প্রতি কিলোমিটারে ব্যয় ৯০ লাখ টাকা। ১৮ কিলোমিটার সড়ক নির্মাণ (আরসিসি) করতে ব্যয় ধরা হয়েছে ২৩ কোটি ৪০ লাখ টাকা। কিলোমিটারে ব্যয় হবে এক কোটি ৩০ লাখ টাকা। ১৮ কিলোমিটার রাস্তার সাথে ড্রেন নির্মাণে ব্যয় হবে ২৭ কোটি টাকা। প্রতি কিলোমিটারে ব্যয় এক কোটি ৫০ লাখ টাকা, যা বিটুমিন রাস্তার চেয়ে ৬০ লাখ টাকা এবং আরসিসি রাস্তার চেয়ে ২০ লাখ টাকা খরচ বেশি হবে ড্রেন নির্মাণে।
আইএমইডির এক প্রতিবেদনে তুলনামূলক বিশ্লেষণে দেখা যায়, ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের অবকাঠামো উন্নয়নে ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তা, নর্দমা ও ফুটপাথ উন্নয়ন প্রকল্পের চেয়ে ড্রেন নির্মাণে খরচ ফেনী পৌরসভাতে দ্বিগুণেরও বেশি। ঢাকা দক্ষিণে নর্দমা বা ড্রেন নির্মাণে ৬৭ দশমিক ৫৬ কিলোমিটারে খরচ হয়, ৪১ কোটি ২৭ লাখ ৮২ হাজার টাকা। কিলোমিটারে খরচ ৫৯ লাখ ৮৯ হাজার টাকা। ঢাকা উত্তরে ৪৬ দশমিক ২২ কিলোমিটারে ২১ কোটি ২২ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়। কিলোমিটারে ব্যয় ৪৬ লাখ ১২ হাজার টাকা। এলডিইডি ১৬ দশমিক ১৬৯ কিলোমিটার ড্রেন নির্মাণ করেছে ছয় কোটি ৮৭ লাখ ৫৯ হাজার টাকা ব্যয়ে। কিলোমিটারে খরচ হয়েছে ৪২ লাখ ৫২ হাজার টাকা।
কয়েক বছর ধরে সরকারি অনেক প্রকল্পে আকাশছোঁয়া দামে জিনিসপত্র কেনার প্রবণতা মাত্রা ছাড়া পর্যায়ে গিয়ে পৌঁছেছে। একই সাথে প্রকল্পের খরচে অপ্রয়োজনীয় বিদেশ ভ্রমণ বেড়েছে। বিশেষ করে বালিশ ও পর্দাকাণ্ড এবং পুকুর খনন ও খিচুড়ি রান্না শিখতে বিদেশ ভ্রমণের প্রস্তাব তীব্রভাবে সমালোচিত হয়। এসব দিক বিবেচনায় গত সোমবার সম্প্রতি বিভিন্ন মন্ত্রণালয়-বিভাগ ও অধীনস্থ সংস্থাগুলোর বিভিন্ন প্রকল্পে পণ্যের অতিরিক্ত ব্যয়ের বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে একটি নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। যাতে বলা হয়েছে, সরকারি অনেক প্রকল্পে পণ্যের অস্বাভাবিক বাজারমূল্য যাতে দেখানো না হয়, সে জন্য সংশ্লিষ্ট সব মন্ত্রণালয় ও বিভাগকে প্রকল্প যাচাই-বাছাইয়ের ক্ষেত্রে সতর্ক থাকতে হবে। নির্দেশনায় আরো বলা হয়, লক্ষ করা যাচ্ছে-বিভিন্ন মন্ত্রণালয়-বিভাগ নিজেদের মধ্যমেয়াদি বাজেট কাঠামোর আওতায় সংশ্লিষ্ট অর্থবছরগুলো সিলিং (ব্যয়সীমা) বহির্ভূতভাবে প্রকল্প গ্রহণ করছে। এতে সরকারের রাজস্ব আয়ের সাথে চলমান প্রকল্পের বরাদ্দ সামঞ্জস্যতা থাকছে না। বলা হয়, প্রাক্কলন ও প্রক্ষেপণের বাইরে প্রকল্প গ্রহণ সরকারের সুষ্ঠু আর্থিক ব্যবস্থাপনার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। এমতাবস্থায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে মন্ত্রণালয়-বিভাগগুলোর প্রতি ছয়টি বিষয়ে সজাগ থাকার কথা বলা হয়েছে। বিনিয়োগ প্রকল্পের ক্ষেত্রে ৫০ কোটি টাকার ঊর্ধ্বের প্রকল্পে আবশ্যিকভাবে বাস্তবায়নের সম্ভাব্যতা যাচাই করতে হবে। প্রকল্প যাচাই-বাছাইয়ে অধিকতর সচেতনতা অবলম্বন করতে হবে, যাতে কোনো পণ্যের অস্বাভাবিক বাজারমূল্য প্রদর্শিত না হয়।
দেশের উন্নয়নের ধারা গতিশীল ও অব্যাহত রাখতে অবকাঠামোগত প্রকল্প গ্রহণ এবং বাস্তবায়নের বিকল্প নেই। তাই বলে উন্নয়নের নামে রাষ্ট্রীয় সম্পদের হরিলুট গ্রহণযোগ্য নয়। সীমিত সম্পদের অধিকারী একটি দেশ হিসেবে আমাদের উচিত, জনগণের প্রতিটি পয়সার সদ্ব্যবহার করা, যাতে দেশের খাত উন্নয়ন ত্বরান্বিত হয়। এ জন্য দরকার জনঘনিষ্ঠ প্রকল্প গ্রহণ এবং বাস্তবায়নে যৌক্তিক ব্যয় নির্ধারণ করা।


আরো সংবাদ

সকল

নারীদের হিজাব, পুরুষের টাকনুর ওপর পোশাক পরে অফিসে আসার নির্দেশ (৩৬৯৮০)অফিসে ধর্মীয় পোশাক, নোটিশ প্রত্যাহার করে দুঃখ প্রকাশ (১৩১৪৫)সরব হচ্ছেন হাজী সেলিমের ভিকটিমরা (৯৫৭৭)র‌্যাবের শীর্ষ কমান্ডারদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারির জন্য যুক্তরাষ্ট্রের সিনেটরদের আহ্বান (৭৭৮৪)আর্মেনিয়ার দুটি যুদ্ধবিমান ধ্বংস করলো আজারবাইজান (৭৫৭৮)ঢাকায় আসছেন এরদোয়ান (৭৫২৮)জি কে শামীমকে জামিনে সহায়তার অভিযোগে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেলকে দুদকে তলব (৫৮৪২)ফ্রান্সে গির্জায় ছুরি হামলায় অন্তত ২ জন নিহত (৫০৮২)ফরাসি প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁকে ‘ব্যক্তিগত আক্রমণের’ তীব্র নিন্দা ভারতের (৪৯৯৬)অফিসে ধর্মীয় পোশাক, যে যুক্তি দিলেন জনস্বাস্থ্যের পরিচালক (৪৮০০)