২৯ নভেম্বর ২০২৩, ১৪ অগ্রহায়ন ১৪৩০, ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৫ হিজরি
`

বায়রার সভায় হাতাহাতি-হট্টগোল

সিন্ডিকেট মুক্ত মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারের প্রতিশ্রুতি নেতাদের
বায়রার সভায় হাতাহাতি-হট্টগোল। - ছবি : নয়া দিগন্ত

হাতাহাতি, হট্টগোলের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব ইন্টারন্যাশনাল রিক্রুটিং এজেন্সির (বায়রা) মতবিনিময় সভা। সভায় বায়রার কথিত সিন্ডিকেট ও সিন্ডিকেট বিরোধীপক্ষের ব্যবসায়ীরা প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে লাইসেন্সপ্রাপ্ত সকল এজেন্সির মালিক ব্যবসা করতে পারবেন।

বৃহস্পতিবার (২ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর হোটেল ইন্টার কন্টিনেন্টালে এই সভার আয়োজন করে বায়রা।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বায়রার সাবেক সভাপতি বেনজির আহমেদ এমপি।

কম খরচে দ্রুত কর্মী পাঠাতে মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার বায়রার সকল সদস্যদের জন্য উন্মুক্ত করার দাবিতে মতবিনিময় সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সভাপতি আবুল বাশার। এরপর মঞ্চের সামনে সাধারণ সদস্যদের মধ্য থেকে বক্তব্য শুরু হয়।

মালয়েশিয়াসহ সকল শ্রমবাজার সিন্ডিকেট মুক্ত করে সকল সদস্যদের ব্যবসা করার সুযোগ চান তারা।

ব্যবসায়ীদের মধ্যে একজন বলেন, সভায় শ্রমবাজার সিন্ডিকেট মুক্ত করার কথা বলা হচ্ছে। কিন্তু বায়রার নির্বাহী কমিটির সদস্যরাই এই সিন্ডিকেটের সাথে জড়িত। তিনি কারা এই সিন্ডিকেটের সাথে জড়িত, তাদের নামও বলতে চান। তার কথার রেশ ধরে তাৎক্ষণিক হল জুড়ে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। প্রায় ২০ মিনিট এ নিয়ে বিশৃঙ্খলা চলে, এতে হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে দু’পক্ষের মধ্যে।

এরপর মঞ্চে উপস্থিত দু’পক্ষের নেতা আবুল বাশার ও সাবেক মহাসচিব রুহুল আমিন স্বপনসহ সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপে পরিবেশ কিছুটা শান্ত হলেও ফের বিশঙ্খলা দেখা দেয়। পরে পুলিশের সহায়তা পরিস্থিতি সামাল দেন নেতারা। পরে অনুষ্ঠানের কার্যক্রম শুরু হলে বক্তারা শ্রমবাজার সিন্ডিকেট মুক্ত করে সকল এজেন্সির জন্য উন্মুক্তের দাবি জানান। দীর্ঘ প্রায় পৌনে তিন ঘণ্টা এই সভা চলে।

বায়রার যুগ্ম-মহাসচিব ফখরুল ইসলাম বক্তবে মালয়েশিয়া সিন্ডিকেটের সাথে সাবেক মহাসচিব ক্যাথারসিসের রুহুল আমিন স্বপনের নাম উচ্চারণের সাথে সাথে ফের বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়। স্বপন অনুসারীরা জোড়ালো প্রতিবাদ জানালে আটকে যায় ফখরুল ইসলামের বক্তব্য। সাত-আট মিনিট বিশৃঙ্খল অবস্থা চলার মাঝে এক সাংবাদিককে লাঞ্ছনার অভিযোগ ওঠে।

বায়রার সিনিয়র নেতারা পরিস্থিতি সামাল দেন। সভাপতি আবুল বাশার সাংবাদিক লাঞ্ছনার ঘটনায় ক্ষমা চান। সভার বক্তাদের দাবির মুখে দু’পক্ষের নেতা আবুল বাশার ও রুহুল আমিন স্বপন মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে যাতে সকল ব্যবসায়ী কাজ করতে পারেন তার জন্য ঐক্যবদ্ধ উদ্যোগগ্রহণের কথা জানান।

সভায় উপস্থিত ছিলেন বায়রা মহাসচিব শামীম আহমেদ চৌধুরী নোমান, সিনিয়র সহ-সভাপতি রিয়াজ উল হক, সহ-সভাপতি আবুল বারাকাত ভূঁইয়া, সাবেক মহাসচিব আলী হায়দার চৌধুরী, যুগ্ম-মহাসচিব এম টিপু সুলতান প্রমুখ।


আরো সংবাদ



premium cement