০২ জুন ২০২০

গার্মেন্টশ্রমিকদের চাকরি রক্ষার্থে অবিলম্বে অধ্যাদেশ জারি করা হোক

গার্মেন্টশ্রমিকদের চাকরি রক্ষার্থে অবিলম্বে অধ্যাদেশ জারি করা হোক - সংগৃহীত

গার্মেন্টস শ্রমিকদের বেতন পরিশোধের জন্য ৫,০০০ কোটি টাকার প্রণোদনার পরও বিপুল সংখ্যক গার্মেন্টশ্রমিককে লে অফ করে, তাদেরকে ছাঁটাই করে দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে খোদ কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতর।

এইসব নথিপত্র, অভিযোগ, স্মারক, চিঠি চালাচালি করতে করতেই গার্মেন্টস শ্রমিকরা সর্বশ্রান্ত হয়ে যাবে। তাই জাতির এই ক্রান্তিকালে রাষ্ট্রপতির অধ্যাদেশ জারি করে দ্রুত শ্রমিক ছাঁটাই বন্ধের কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

বাংলাদেশ শ্রম আইন ২০০৬-এর ধারা ১২, ১৬, ১৭ এবং ১৮-এর বিধানাবলীতে যাই বর্ণিত থাকুক না কেন, রাষ্ট্রপতির এই অধ্যাদেশ জারির মাধ্যমে পরবর্তী ৯০ দিন পর্যন্ত দেশের সকল গার্মেন্টস শ্রমিককে সবধরনের লে অফ করা এবং তাদেরকে সবধরনের ছাঁটাই করে দেয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে অবিলম্বে এই অধ্যাদেশ জারি ও বলবৎ করা হোক।

গার্মেন্টস মালিকরা শ্রমিকের বেতনের টাকার জোগান দিতে না পারলে প্রয়োজনে বেতন পরিশোধের জন্য আরো আর্থিক প্রণোদনা দিতে হবে। তবুও কোনো অবস্থাতেই যেন ৪০ লাখ শ্রমিকের পরিবার অনাহারে না মরে।

আইনজ্ঞ ও সংবিধান বিশেষজ্ঞ


আরো সংবাদ