৩০ মার্চ ২০২০
ডাকঘর সঞ্চয়স্কিমের সুদ কমিয়ে অর্ধেক করা হয়েছে

সঞ্চয়পত্রের নয়, সুদ কমেছে ডাকঘর সঞ্চয় স্কিমের

সঞ্চয়পত্রের নয়, সুদ কমেছে ডাকঘর সঞ্চয় স্কিমের - ছবি : সংগৃহীত

সঞ্চয়পত্রের নয় সুদ কমেছে ডাকঘর সঞ্চয় স্কিমের। ডাকঘর থেকে যেমন সঞ্চয়পত্র কেনা যায়, তেমনি ডাকঘর সঞ্চয় স্কিমের আওতায় টাকাও রাখা যায়। একে বলা হয়, ডাকঘর সঞ্চয় ব্যাংক। শুধুমাত্র এ স্কিমে সুদহার অর্ধেক করা হয়েছে। অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে রোববার পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি ব্যাখ্যা করা হয়েছে।

অর্থমন্ত্রী দপ্তর থেকে পাঠানো এই প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘অর্থ মন্ত্রণালয়ের অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ গত ১৩ ফেব্রুয়ারি একটি পরিপত্র জারি করে। এটির মাধ্যমে ডাকঘরে যে সঞ্চয় ব্যাংক রয়েছে সেই ব্যাংকের সুদের হার সরকারি ব্যাংকের সুদ হারের সমপর্যায়ে নিয়ে আসা হয়েছে। কিন্তু সরকারের যে সঞ্চয়পত্র রয়েছে সেটির সুদের হার কমানো হয়নি, এটি আগে যা ছিল তাই আছে।

এতে আরও বলা হয়, অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের পরিপত্রটি জারির পর বিভিন্ন গণমাধ্যম বা পত্রপত্রিকায় সঞ্চয়পত্রের সুদের হার কমানো হয়েছে মর্মে প্রতিবেদন প্রকাশ করছে। এ জন্য বিষয়টি স্পষ্টিকরণ আবশ্যক হয়ে পড়েছে। ডাকঘর থেকে যেমন সঞ্চয়পত্র কেনা যায়, তেমনি ডাকঘর সঞ্চয় স্কিমের আওতায়ও টাকা রাখা যায়। ডাকঘরে চারভাবে টাকা রাখা যায়।

ডাকঘর থেকে জাতীয় সঞ্চয় অধিদফতরে সঞ্চয়পত্র কেনা যায়, ডাকঘর সঞ্চয় ব্যাংকে মেয়াদি হিসাব ও সাধারণ হিসাব খোলা যায়। আবার ডাক জীবন বীমাও করা যায়। এবার সুদের হার কমেছে ডাকঘরের সঞ্চয় স্কিমের মেয়াদি হিসাব ও সাধারণ হিসাবে। সাধারণ হিসাবের ক্ষেত্রে সুদের হার সাড়ে ৭ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৫ শতাংশ করা হয়েছে।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ এ-সংক্রান্ত যে নির্দেশনা জারি করেছে তাতে বলা হয়েছে, তিন বছর মেয়াদি ডাকঘর সঞ্চয় স্কিমের সুদের হার হবে ৬ শতাংশ, যা এত দিন ১১ দশমিক ২৮ শতাংশ ছিল। মেয়াদ পূর্তির আগে ভাঙানোর ক্ষেত্রে এক বছরের জন্য সুদ মিলবে ৫ শতাংশ, আগে যা ছিল ১০ দশমিক ২০ শতাংশ। দুই বছরের ক্ষেত্রে তা সাড়ে ৫ শতাংশ, আগে যা ছিল ১০ দশমিক ৭০ শতাংশ।

অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম স্বাক্ষরিত এই প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে,‘ দি পাবলিত ডেট অ্যাক্ট ১৯৪৪ এর ধারা ১৮ এবং দি পোস্ট সেভিং ব্যাংক রুলস এর বিধি ৫১ এ প্রদত্ত ক্ষমতাবলে সরকার দি পোস্ট অফিস সেভিং ব্যাংক রুলসটি পরিবর্তন করেছে।


আরো সংবাদ