০৭ মার্চ ২০২১
`

ভারতের উপহারের ভ্যাকসিন এলো বিশেষ বিমানে

ভারতের উপহারের ভ্যাকসিন এলো বিশেষ বিমানে - ছবি - সংগৃহীত

ভারতের উপহার দেয়া ২০ লাখ ডোজ করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন দেশে পৌঁছাছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে এয়ার ইন্ডিয়ার বিশেষ বিমানে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসে ভ্যাকসিনের প্রথম চালান। নয়াদিল্লির উপহার সিরামের তৈরি অক্সফোর্ডের ২০ লাখ ডোজে এতে রয়েছে।

এর আগে সকাল ৮টায় মুম্বাইয়ের ছত্রপতি শিবাজি মহারাজ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে থেকে বাংলাদেশের উদ্দেশে রওনা দেয় ফ্লাইটটি। সকাল ১০টা ১২ মিনিটে ভারতীয় হাইকমিশনের ফেসবুক পেজেও এ বিষয়ে জানানো হয়। সেখানে টিকাসহ একটি উড়োজাহাজের ছবি দিয়ে বলা হয়, গন্তব্য বাংলাদেশে! ভারতে তৈরি কোভিডের চালান বাংলাদেশের উদ্দেশে রওনা হয়েছে!

চলতি মাসেই শুরু হচ্ছে টিকাদান কর্মসূচি। প্রয়োগের প্রথম দিন রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের ২৫ জনকে দেয়া হবে এ ভ্যাকসিন। পরদিন দেয়া হবে আরো পাঁচ শ’ জনকে। তাদের কিছুদিন নজরদারিতে রাখার পর ফেব্রুয়ারির প্রথম দিকে পুরোদমে শুরু হবে টিকাদান কর্মসূচি। তবে সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধন ছাড়া কোনোভাবেই ভ্যাকসিনেশনের আওতায় আসা যাবে না।

এদিকে বুধবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে সংবাদ সম্মেলন হয়।

সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্যসচিব মোঃ আবদুল মান্নান জানান, চলতি মাসেই কুর্মিটোলায় হাসপাতালে ফ্রন্টলাইনারসহ ২৫ জনকে দিয়েই শুরু হবে কার্যক্রম। পরদিন তিনটি হাসপাতালে থেকে দেয়া হবে আরও চার থেকে পাঁচ শ’ জনকে। এদের কয়েক দিন নজরদারিতে রেখে শুরু হবে মূল কার্যক্রম।

প্রথম মাসে ৬০ লাখ ডোজ দ্বিতীয় মাসে ৫০ লাখ আবার তৃতীয় মাসে প্রথম মাসের প্রথমবারে যারা নিয়েছেন সেই ৬০ লাখ পাবেন দ্বিতীয় ডোজ। সরকারি হাপাতালের বাইরে দেয়া হবে না ভ্যাকসিন। অ্যাপ ছাড়া ভ্যাকসিনেশনের আওতায় আসা সম্ভব না।

তবে প্রতিরোধক্ষমতা বা অ্যান্টিবডি কত দিন থাকবে সেটা নিশ্চিত করা সম্ভব না বলে জানান তিনি।

জানানো হয়, ভ্যাকসিন নেয়া সবাই টেলিমিসিনের আওতায় থাকবে। প্রতিদিন ভ্যাকসিন বুলেটিন প্রচার করা হবে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।



আরো সংবাদ