৩০ মে ২০২০

করোনা মোকাবিলায় ৯৯.৯ ভাগ কার্যকরী অস্ত্র প্রস্তুত চীনের!

করোনা মোকাবিলায় ৯৯.৯ ভাগ কার্যকরী অস্ত্র প্রস্তুত চীনের! - সংগৃহীত

বিশ্বজুড়ে জাল বিছিয়েছে করোনা ভাইরাস। মানব সভ্যতার সামনে সাম্প্রতিক অতীতের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জের নাম কোভিড-১৯। করোনাভাইরাসের কামড়ে প্রতিদিনই প্রাণ হারাচ্ছেন হাজার হাজার মানুষ। সরকারি তথ্য বলছে, এই মুহূর্তে বিশ্বজুড়ে ভাইরাস সংক্রমিতের সংখ্যা ৭ লাখ পেরিয়েছে। বিশ্বের তাবড় বিজ্ঞানী, গবেষকরা এর প্রতিষেধক তৈরিতে ব্যস্ত। এখনও পর্যন্ত সেভাবে সাফল্য আসেনি। কিন্তু চীনের গবেষকদের দাবি, তারা করোনা রোখার সবচেয়ে কার্যকারী অস্ত্র তৈরি করে ফেলেছেন। যা কিনা এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে ৯৯.৯ শতাংশ পর্যন্ত উপকারি হতে পারে।

সম্প্রতি, গ্লোবাল টাইমস নামের চীনের এক সংবাদ মাধ্যম দাবি করেছে, চীনা বিজ্ঞানীদের একটি দল করোনাকে ধংস করার মোক্ষম পথ পেয়ে গেছে। কোনো ওষুধ বা টিকা নয়, চীনা গবেষকরা তৈরি করেছেন একটি ন্যানোমেটেরিয়াল (Nanomaterial), যা কিনা করোনার জীবাণু শুষে ফেলতে পারে বা এর কার্যক্ষমতা ৯৬.৫-৯৯.৯% পর্যন্ত কমিয়ে দিতে পারে। এই ন্যানোমেটেরিয়ালটি উৎসেচকের মতো কাজ করে। এই ন্যানোমেটেরিয়াল দিয়ে পেন্ট, ফিল্টার, ইনসুলেশনের মতো জিনিস তৈরি হতে পারে। ইতিমধ্যেই চিনের ওই গবেষকদল নাকি বিভিন্ন সংস্থার সাথে কথা বলছে এই ন্যানোমেটেরিয়াল দিয়ে মাস্ক এবং চিকিৎসকদের জন্য পিপিই বানানর জন্য। যদিও, চীনের বাইরে থেকে এ খবরের সত্যতা যাচাই করা সম্ভব নয়। তবে এটা যদি সত্যি হয় তাহলে বুঝতে হবে উৎসস্থলেই সমাপ্তির পথে করোনা ভাইরাস।

করোনা ভাইরাসের দাপট সবার প্রথমে দেখা যায় চীনেরই ইউহান প্রদেশে। সেখান থেকেই আস্তে আস্তে গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে মারক ভাইরাসটি। আপাতত চীনে এর সংক্রমণ অনেকটা নিয়ন্ত্রণে এলেও বিশ্বের অন্যান্য দেশে প্রভাব মারাত্মক। ইতিমধ্যেই করোনার জেরে পৃথিবীতে প্রায় ৩১ হাজার মানুষের প্রাণ গিয়েছে।মুশকিল হলো, ভাইরাসটির উৎপত্তি এবং চরিত্র সম্পর্কে বিজ্ঞানীদের কাছে তেমন কোনো তথ্য নেই। বিজ্ঞানীদের একটা অংশ দাবি করেন, এটি কোনো প্রাকৃতিক সংক্রমণ নয়, বরং মনুষ্য সৃষ্ট। জৈবিক অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করার জন্য চীনই ভাইরাসটি তৈরি করেছে।
সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন


আরো সংবাদ