০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

চীন ও বাংলাদেশ অপরিহার্য কৌশলগত অংশীদার : রাষ্ট্রদূত

চীন ও বাংলাদেশ অপরিহার্য কৌশলগত অংশীদার : রাষ্ট্রদূত - ছবি : সংগৃহীত

ঢাকায় নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বলেছেন, চীন ও বাংলাদেশ বন্ধুত্বপূর্ণ প্রতিবেশী এবং অপরিহার্য কৌশলগত অংশীদার।

শনিবার রাতে পূর্বাচলে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী প্রদর্শনী কেন্দ্রে গণপ্রজাতন্ত্রী চীনের প্রতিষ্ঠার ৭৩তম বার্ষিকী উদযাপনে এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, যৌথ উন্নয়নে বাংলাদেশ ও বিশ্বে চীন নিবেদিত থাকবে।

রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশ নৌকা থেকে ক্রুজে পরিণত হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে প্রবল বিপরীত গতি ও স্রোত সত্ত্বেও এগিয়ে চলেছে।

তিনি বলেন,বাংলাদেশে আমার নিজের তিন বছরের অভিজ্ঞতা থেকে আমি বলতে পারি যে, বঙ্গোপসাগর থেকে একটি অত্যাশ্চর্য মুক্তা উঠছে।

রাষ্ট্রদূত বলেন, দুই প্রতিবেশী দেশের দক্ষ নেতৃত্বে বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ বন্ধন দীর্ঘ ও চিরকাল অটুট থাকবে।

তিনি বলেন, দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতার একাধিক ক্ষেত্রে অর্থনৈতিক সহযোগিতা নি:সন্দেহে সবচেয়ে নজরকাড়া।

তিনি আরো বলেন, গত বছর আমাদের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ২৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ছাড়িয়েছে। চীনে বাংলাদেশের রফতানি বাড়াতে চীন ৯৮ শতাংশ শুল্কমুক্ত সুবিধা দিয়েছে।

তিনি বলেন, কোভিড-১৯-এর বিরুদ্ধে লড়াই এবং মহামারী পরবর্তীকালে পুনরুদ্ধারের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ও চীন সবসময় একসাথে দাঁড়িয়েছে। আমরা একে অপরকে মহামারী মোকাবেলায় সরঞ্জাম, টেস্টিং কিট, টিকা এবং আরো অনেক কিছুতে সাহায্য করেছি।

রাষ্ট্রদূত বলেন, মহামারী চলাকালীন আটকে পড়া বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের ফিরিয়ে নিতে এখানকার চীনা দূতাবাস পুনরায় ভিসা প্রদান শুরু করেছে।

পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এতে অন্যদের মধ্যে রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, ঢাকায় নিযুক্ত কূটনীতিক, ব্যবসায়ী ও সিনিয়র সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র : বাসস


আরো সংবাদ


premium cement