৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ন ১৪২৮, ২৪ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিজরি
`

বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এক অনন্য উদাহরণ : ব্রিটিশ হাইকমিশনার

বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এক অনন্য উদাহরণ : ব্রিটিশ হাইকমিশনার - ছবি : নয়া দিগন্ত

ঢাকায় নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন বলেছেন, বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এক অনন্য উদাহরণ। এ দেশের হিন্দু মুসলমান একে অপরকে সহযোগিতা ও সম্প্রীতিতে বসবাস করে। চমৎকার পরিবেশে শারদীয় দুর্গোৎসব পালনই তার বড় প্রমাণ। এ দেশের মানুষ তাদের ধর্মীয় উৎসবটি সুন্দরভাবে অনুশীলন করছে।

মঙ্গলবার দুপুরে টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে দানবীর রণদা প্রসাদ সাহার বাড়ির পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। সময় তার সাথে ডেপুটি হাইকমিশনার জাবেদ প্যাটেল উপস্থিত ছিলেন।

দানবীর রণদা প্রসাদ সাহার পূজার আয়োজন দেখতে হাইকমিশনার রবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন ও ডেপুটি হাইকমিশনার জাবেদ প্যাটেল মঙ্গলবার সকাল সোয়া ১০টায় মির্জাপুর কুমুদিনী কমপ্লেক্সে এ পৌঁছালে কুমুদিনী ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্টের পক্ষ থেকে তাকে ফুল দিয়ে বরণ করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মির্জাপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. জুবায়ের হোসেন, টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মির্জাপুর ও নাগরপুর) সার্কেল এস এম মুনসুর মুসা, কুমুদিনী হাসপাতালের পরিচালক ডা. প্রদীপ কুমার রায়,সহকারি পরিচালক ডা. আলী হাসান, সহকারি মহাব্যবস্থাপক অনিমেষ ভৌমিক লিটন তাদের স্বাগত জানান।

কুমুদিনী লাইব্রেরিতে চা চক্র শেষে ব্রিটিশ হাই কমিশনার কুমুদিনী হাসপাতাল, নাসিং স্কুল এন্ড কলেজ ও ভারতেশ্বরী হোমস পরিদর্শন শেষে নৌকায় লৌহজং নদী পার হয়ে রণদা প্রসাদ সাহার পূজা মন্ডপে যান। সেখানে কুমুদিনী ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাজীব প্রসাদ সাহা, পরিচালক শ্রীমতি সাহা, পরিচালক (শিক্ষা) প্রতিভা মুৎসুদ্দি, পরিচালক সম্পা সাহা তাদের স্বাগত জানান।

ডেপুটি হাইকমিশনার জাবেদ প্যাটেল বলেন, দানবীর রনদা প্রসাদ সাহার গ্রাম ঘুরে আমার খুব ভালো লেগেছে। এখানকার মানুষ অত্যন্ত চমৎকারভাবে দুর্গা পূজা পালন করছে।পরে পায়ে হেঁটে ব্রিটিশ হাইকমিশনার মির্জাপুর গ্রামের কয়েকটি পূজা মণ্ডপও পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি বিভিন্ন মণ্ডপের পুজারিদের সাথে কথা বলেন।



আরো সংবাদ