০৬ মার্চ ২০২১
`

কুয়েতে এমপি পাপুলের চার বছর জেল

কুয়েতে এমপি পাপুলের চার বছর জেল - ছবি : সংগৃহীত

মানব পাচারের অভিযোগে কুয়েতে বাংলাদেশী স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলকে চার বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির একটি আদালত। বৃহস্পতিবার কুয়েতের ফৌজদারি আদালতের বিচারক আবদুল্লাহ আল-ওসমান পাপুলের বিরুদ্ধে এই সাজা ঘোষণা করেন বলে দেশটির আরবি ভাষার দৈনিক আল-কাবাসের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, মানব পাচারের এই মামলায় পাপুলকে সহায়তাকারী কুয়েতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা মাজেন আল-জাররাহ এবং একজন মধ্যস্থতাকারী ও এক দালালকেও চার বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সাথে লক্ষ্মীপুর-২ আসনের আলোচিত সংসদ সদস্য পাপুল ও অন্য অভিযুক্তদের প্রত্যেককে ১৯ লাখ করে কুয়েতি দিনার জরিমানা করা হয়েছে।

তবে কুয়েতের সংসদ সদস্য সাদোন হাম্মাদ এবং সাবেক সংসদ সদস্য সালাহ খুরশিদকে এই মামলা থেকে খালাস দিয়েছেন আদালত।

এর আগে, কুয়েতের ফৌজদারি আদালত সংসদ সদস্য পাপুলের মামলার শুনানির দিন ২৮ জানুয়ারি নির্ধারণ করেছিলেন। সেই অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার আদালতের বিচারক আবদুল্লাহ আল-ওসমান পাপুলের ও রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীর শুনানি শেষে সাজা ঘোষণা করেন।

লক্ষ্মীপুর-২ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলকে গত বছরের ৬ জুন কুয়েত পুলিশ গ্রেফতার করে। সেই সময় অন্তত পাঁচ বাংলাদেশি প্রবাসী এমপি পাপুলের মাধ্যমে পাচার হয়েছেন দাবি করে অভিযোগ করেন। কুয়েতের আদালতের বিচারক এই অভিযোগ আমলে নিয়ে তদন্তের নির্দেশ দেন।

কুয়েতের অপরাধ তদন্ত বিভাগের জিজ্ঞাসাবাদে কাজী পাপুল কুয়েতি কর্মকর্তাদের ঘুষ দিয়ে মানব ও অর্থপাচার করেছেন বলে স্বীকার করেন। তদন্তে তার বিরুদ্ধে অর্থ, মানবপাচার এবং বাংলাদেশী প্রবাসীদের ওপর নির্যাতনের অভিযোগের সত্যতাও পায় কুয়েতের আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী।



আরো সংবাদ